শিরোনাম
ডেউয়াতলী গ্রামের মরহুম মোঃ কোব্বাদ খান ও মান্নান চৌধুরী পরিবারবর্গকে নিয়ে সফিউল্লা খন্দকারের মানহানিকর বক্তব্যের প্রতিবাদ পলাশ শিল্পাঞ্চল সরকারি কলেজ শিক্ষক ও কর্মচারিদের বিক্ষোভ বাস্তবময় জীবনের বাস্তবতা…অনামিকা চৌধুরী রু লাকসামে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আগুন : প্রায় ৭লাখ টাকার ক্ষতি মুরাদনগরে সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ের অভ্যন্তরীন প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত পদ্মা সেতু আমাদের জাতিকে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর সুযোগ করে দিয়েছে দীঘিনালায় জেলেদের মাঝে ছাগল বিতরণ গোমস্তাপুরে চাঞ্চল্যকর কুলুলেস ‍‍`মেহেরুল‍‍` হত্যা মামলার আসামি আটক তরুন উদ্যোক্তা নাসিমা জাহান বিনতী’র গ্লোবাল ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড অর্জন পলাশে চাচীর সাথে পরকিয়া করতে গিয়ে প্রেমিকের হাতের কব্জি কর্তন
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

উখিয়া ড্রেইন ভরাটের ফলে রাস্তায় পানির সাথে ভাসছে মল-মুত্র!

Muktir Lorai / ১০৩ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় শনিবার, ১৬ জানুয়ারি, ২০২১

কক্সবাজার সংবাদদাতাঃ
উখিয়া সদর দারোগা বাজারের বেহাল দশা। ড্রেইন ভরাটের ফলে রাস্তার উপর পানির সাথে প্রবাহিত হচ্ছে মল-মুত্রের বজ্য। অথচ এ বাজার থেকে প্রতিবছর কোটি টাকার রাজস্ব আদায় হলেও জনগণের সুযোগ সুবিধা বাড়েনি এতটুকুও।

বর্ষা মৌসুম ড্রেইনের উপর দিয়ে পানি নিস্কাশনের ফলে হাটু পরিমাণ পানিতে বাজার করতে হয়েছে স্থানীয় জনগণকে। বর্ষা মৌসুম শেষে বর্তমান শীত মৌসুমেও কমেনি দুর্ভোগ। ড্রেইন ভরাটসহ কয়েকটি স্থানে ড্রেইন ভাঙ্গার কারনে বাজারের প্রধান রাস্তার উপর দিয়ে পানির সাথে প্রবাহিত হচ্ছে পায়খানার বজ্য।

সরজমিন দেখা যায়, যত্রতত্র ময়লা আবর্জনার দেখা মেলে এই বাজারে।পাশাপাশি পথচারী ও ক্রেতারা দূর গন্ধে নাকে রোমাল ও হাত দিয়ে চলাচল করতে দেখা যায়।

স্থানীয় দোকানী আশিষ দাশ বলেন,দীর্ঘদিন ধরে এ সমস্যা জিইয়ে থাকলেও বাজারের ঠিকাদার বা অন্য কেউ এ ব্যাপারে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। ফলে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে বাজারে আসা ক্রেতাসাধারণকে। তিনি আরো জানান,প্রধান সড়কে পানি ও বজ্য থাকার ফলে এ বাজারে বেচাবিক্রি কমে গেছে। বাজারে আসা ক্রেতা নুরুল ইসলাম জানান,এ বাজারে বাজার করা কষ্ট হয়ে পড়েছে। তিনি এ ব্যাপারে যথাযথ কতৃপক্কের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন। আবার অনেক ক্রেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, অনেক বলেছি এ বিষয়টি নিয়ে। কিন্ত কারো সময় নেই কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করার,সবাই যে যার ধান্ধায় ব্যস্ত..!


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »