বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

সুন্দরবন থেকে বিশ্ব ঐতিয্য সম্মান তুলে নেয়ার প্রতিবাদে শরণখোলায় মানববন্ধন

Muktir Lorai / ৩৭ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই, ২০২১

সাব্বির হোসেন, (বাগেরহাট) শরণখোলা প্রতিনিধিঃ শর্ত পূরণ না হলে সুন্দরবন থেকে বিশ্ব ঐতিহ্যের সম্মান ফিরিয়ে নেওয়া হতে পারে। ইউনেস্কোর এমন পরিকল্পনার প্রতিবাদে সোচ্চার হয়ে উঠেছে পরিবেশবাদী ও পেশাজীবী বিভিন্ন সংগঠন।

বৃহস্পতিবার বাগেরহাট জেলার শরণখোলা উপজেলায় সকাল সাড়ে ১০টায় ‘মৌমাছি ও মধু’ নামে একটি পরিবেশ সংগঠনের ব্যানারে মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শরণখোলা প্রেসক্লাবের সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন শেষে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তৃতা করেন রায়েন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান মিলন, সুন্দরবন সহব্যবস্থাপনা কমিটির সহসভাপতি এম ওয়াদুদ আকন, মৎস্যজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক সোলায়মান ফরাজী, মৌমাছি ও মধুর সমন্বয়কারী রাসেল আহমেদ প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, সুন্দরবন পৃথিবীর একক বৃহত্তম ম্যানগ্রোভ বন। এই বন শুধু বাংলাদেশের নয়, বিশ্বের যে কোন ঐতিহ্যবাহী স্থানের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। সরকার ইউনেস্কোর বেঁধে দেওয়া শর্ত ধীরে ধীরে পূরণ করছে। ইউনেস্কো যেনো তাদের সিদ্দান্ত থেকে ফিরে আসে, সুন্দরবন উপকূলবাসীর পক্ষ থেকে আমরা সেই অনুরোধ জানাই।

উল্লেখ্য, ১৬জুন জাতিসংঘের শিক্ষা, বিজ্ঞান ও সংস্কৃতি বিষয়ক সংস্থার রিয়েকটিভ মনিটরিং মিশনের এক প্রতিবেদনে বেশ কিছু শর্ত দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশ সরকারকে।

শর্তগুলোর মধ্যে বিশ্ব ঐতিহ্য সুন্দরবনের পাশে রামপাল বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কাজ বন্ধ রাখতে হবে, সেখানে আর কোনো ভারী শিল্প কারখানার অনুমোদন দেওয়া যাবে না এবং ইতিমধ্যে গড়ে ওঠা শিল্প করকারখানাগুলোর প্রভাব মূল্যায়ন করতে একটি সমীক্ষা করতে হবে। বাংলাদেশ সরকার শর্তগুলো কতটুকু পালন করলো তার ওপর নির্ভর করবে সুন্দরবনের বিশ্ব ঐতিহ্য সম্মান টিকে থাকার বিষয়টি।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »