বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা সহ ৪ দফা দাবিতে সমাবেশে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট

Muktir Lorai / ১৯৬ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় শুক্রবার, ১৩ আগস্ট, ২০২১

স্টাফ রিপোর্টারঃ সকলের জন্য করোনার টিকা নিশ্চিত কর, টিকা নিয়ে দুর্নীতি-অব্যবস্থাপনা বন্ধ করা, অবিলম্বে সকল শিক্ষার্থী-শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টিকা, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পরিকল্পনা ঘোষণা করা সহ ৪ দফা দাবিতে সমাবেশ করেছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট। ১৩ আগস্ট বিকাল ৪ টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল কাদেরী জয় ও সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন প্রিন্স। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক রুখসানা আফরোজ আশা, ঢাকা নগর শাখার সাধারণ সম্পাদক অনিক কুমার দাস, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সদস্য সুহাইল আহমেদ শুভ ও বুয়েট শাখার সংগঠক তাহমীদ হোসেন।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, “করোনা মোকাবেলায় সরকার সিরিজ ব্যররথতার পরিচয় দিয়েছে। আর সেই ব্যার্থতা ঢাকতেই

নানা রকম চক্রান্ত চলছে। গণ ভ্যাকসিনেশন গণভোগান্তিতে পরিণত হয়েছে। হাসপাতালে সিট না পেয়ে প্রতিদিন মৃত্যুর মিছিল দীর্ঘ হচ্ছে। এমনকি টিকা নিয়ে দুর্নীতি ও অব্যবস্থাপনাও উঠেছে চরমে। দেশের এই দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে সরকারের ভূমিকা মানুষকে এক গভীর অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছে।”

শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পরিকল্পনা প্রকাশের দাবি জানিয়ে সভাপতি আল কাদেরী জয় বলেন, “সরকারের লকডাউন ঘোষণাও অপরিকল্পিত ভাবে হয়, আবার অপরিকল্পিতভাবেই সরকার লকডাউন তুলে দেয়। এই চুড়ান্ত সমন্বয়হীতায় আজ দেশের আপামর ছাত্র-জনতার জীবন অনিশ্চয়তার মুখে। ইতমধ্যেই কত শিক্ষার্থী ঝরে পড়েছে। অনেকেই জীবিকার তাগিদে পড়াশোনা ছেড়ে কাজের খোজে বের হতে বাধ্য হয়েছেন। সেখানে গিয়েও হাশেম ফুড কোম্পানির অগ্নিকান্ডের ঘটনার মত কোন এক ঘটনায় হয়ত জীবন হারিয়েছেন। এভাবে অনিশ্চয়তার মধ্যে শিক্ষার্থীরা চুপ করে বসে থাকবে না। অবিলম্বে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পরিকল্পনা হাজির না করলে আমরা রাজপথেই হবে ক্লাসরুম।

সমাবেশ থেকে নিম্নোক্ত ৪ দফা দাবি জানানো হয়।

১। করোনা মোকাবেলায় সরকারের ব্যর্থতা-দুর্নীতি আড়াল করার চক্রান্ত রুখে দাড়াও।

২। সকলের জন্য করোনার টিকা নিশ্চিত কর, টিকা নিয়ে দুর্নীতি-অব্যবস্থাপনা বন্ধ কর।

৩। অবিলম্বে সকল শিক্ষার্থী-শিক্ষক-কর্মকর্তা-কর্মচারীদের টিকা দাও, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পরিকল্পনা ঘোষণা কর।

৪। সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের করোনাকালের বেতন-ফি মওকুফ কর।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »