বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

আরজেএফ’র আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত

Muktir Lorai / ১৫৫ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২০

স্টাফ রিপোর্টারঃ
রুর‌্যাল জার্নালিস্ট ফাউন্ডেশন (আরজেএফ) এর উদ্যোগে বিজয় দিবস উপলক্ষে ‘মুক্তিযুদ্ধ আমাদের চেতনা-বিজয় আমাদের অহংকার’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার (২৯ ডিসেম্বর) বিকেল ৩টায় ৪০ তোপখানা রোড, সেগুনবাগিচা, ঢাকায় বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিল মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
আরজেএফ’র চেয়ারম্যান এস এম জহিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও যুগ্ম মহাসচিব মোঃ আল-আমিন শাওনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, বঙ্গবন্ধু পাঠচক্রের সভাপতি ও সাবেক এমপি মোঃ নবী নেওয়াজ। বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব এ্যাডভোকেট শাহিদা রহমান রিংকু, বাংলাদেশ প্রেস কাউন্সিলের সচিব (যুগ্ম সচিব) মোঃ শাহ আলম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের কার্যকরী সদস্য ও সাবেক মহিলা কাউন্সিলর ফাতেমা আক্তার ডলি।
বক্তব্য রাখেন, যুবলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সদস্য মানিক লাল ঘোষ, স্বেচ্ছাসেবক লীগের জাতীয় কমিটির সদস্য ফাতেমা ইসলাম রাহা কাজী, আরজেএফ’র স্থায়ী পরিষদের সদস্য মঞ্জুর হোসেন ঈসা, অনুষ্ঠান উদযাপন কমিটির কো-চেয়ারম্যান ফাতেমা বেগম, মো: ছানাউল্লাহ, সদস্য সচিব অধ্যক্ষ ছিদ্দিকুর রহমান আজাাদী, উপদেষ্টা সালাম মাহমুদ, যুগ্ম আহ্বায়ক সাজাদ আলম খান সজল, সৈয়দ আল-আমিন হোসেন (সোহাগ), আমিনুল ইসলাম, এনামুল হক শামীম, উর্মি রহমান, আমিনুল ইসলাম জুয়েল, ওবায়েদুর রহমান সাইদ, শাহ মেহেদী হাসান লিটন, সফিকুল ইসলাম, মীর জাহাঙ্গীর হোসেন, খন্দকার সাইফুল ইসলাম সজল, সামসুল আলম, রেজাউল ইসলাম, প্রদীপ ঘোষাল তপু, শাহাদাত হোসেন শাহীন, এনামুল হক নাঈম, জামাল সিকদার, সদস্য কবি মাহবুব আরা দুলু, লুৎফুন নাহার রিক্তা, মোঃ সাব্বির হোসেন, আবু সাঈদ, মাওলানা শেখ মোহাম্মদ আজিম উদ্দিন, সৈয়দ নবাবজাদা।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোঃ নবী নেওয়াজ বলেন, বঙ্গবন্ধু-মুক্তিযুদ্ধ-স্বাধীনতা একইসূত্রে গাথা। মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতার সঠিক ইতিহাস নতুন প্রজন্মের কাছে তুলে ধরতে বেশি বেশি বই পড়ার অভ্যাস করতে হবে। পাড়ায়-মহল্লায় পাঠাগার গড়ে তুলতে হবে। প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে প্রতিযোগিতামূলক ‘বঙ্গবন্ধু’র জীবন ও কর্মসহ ভাষা আন্দোলন এবং মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ে গুরুত্ব সহকারে পাঠদান করতে হবে। তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা মানে উন্নয়ন। বাংলাদেশের উন্নয়ন, সমৃদ্ধি ও শান্তিতে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই।
অনুষ্ঠানের সভাপতি এস এম জহিরুল ইসলাম বলেন স্বাধীনতা ও মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস নতুন প্রজন্মের মাঝে তুলে ধরতে হবে। পাঠ্যপুস্তকে এইসব ইতিহাস বড় আকারে লিপিবদ্ধ করতে হবে। একই বিষয়ের উপরে সভা সেমিনারের আয়োজন করতে হবে।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »