• মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৮:১৮ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
শিরোনাম
খুলশীতে দশম শ্রেনীর ছাত্রীকে অপহরণের সময় চারজন আটক : ভিকটিম উদ্ধার রাজশাহীতে বন্ধগেট – সিটি হাট পর্যন্ত সড়ক চারলেনে উন্নীতকরণ কাজের উদ্বোধন হাতিয়ায় ইউপি নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যাঁরা শ্রীবরদীতে ইউএনওর হস্তক্ষেপে বাল্যবিয়ে থেকে রক্ষা পেল ৮ম শ্রেণীর এক শিক্ষার্থী অনেক আকাংখার কন্যা সন্তানকে কোলে নেয়া হলো না পিতা আতিক মুন্সীর কাজী আনাস, ইসলামিক নাশিদ অঙ্গনে এক উদীয়মান নাম বাঘাইছড়ি মৎস্যচাষী সমবায় সমিতির মতবিনিময় সভা অনুষ্টিত বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে গোপালগঞ্জ রেড ক্রিসেন্ট ইউনিটের নব নির্বাচিত কমিটির শ্রদ্ধা দিঘলিয়ায় ইউপি নির্বাচনে আ.লীগর এক বিদ্রোহী পাঁচ প্রার্থীর জয়লাভ মুরাদনগরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ নিয়ে চাচীকে জখম করায় ভাতিজা গ্রেফতার
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ : রূপগঞ্জে স্বপ্নের ঘরে বসবাস

Muktir Lorai / ৫৩ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার, ১৩ জুলাই, ২০২১

রাকিবুল ইসলাম, রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার আশ্রয়ণ প্রকল্প-২ এ নির্মিত স্বপ্নের ঘরে বসবাস করছেন অসহায়, ভূমিহীন, দরিদ্র মানুষ। ৩০৩টি পরিবারের মধ্যে এ ঘর বরাদ্দ দেয়ার কথা। এদের মধ্যে ১৫০টি ঘরে এখন তারা বসবাস করছেন। বাকি ১৫৩টি ঘরের নির্মাণ কাজ চলছে। কিছুদিনের মধ্যেই তা সুবিধাভোগীদের মাঝে হস্তান্তর করা হবে।
সরেজমিনে জানা গেছে, শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে প্রাকৃতিক মনোরম পরিবেশে এ সকল ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। বিরাবো আশ্রয়ণ প্রকল্পের অর্থায়নে নির্মিত ঘরে বসবাস করেন বৃদ্ধা রুনা বেগম। বিধবা। তার এক ছেলে ও এক মেয়ে। তারা মায়ের খোঁজ খবর রাখেন না। রুনা বেগমের ঘর বাড়ি ছিলনা। ভিক্ষা করে চলতেন। অন্যের রান্নাঘরে কিংবা বারান্দায় রাত কাটাতেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহারে আশ্রায়ণ প্রকল্পে সেই স্বপ্ন পূরণ হলো রুনা বেগমের। আশ্রায়ণ প্রকল্পের আওয়তায় রুনা বেগম পেয়েছেন নিজের নামে দুই শতক জমি ও একটি টিনসেডের দুই কক্ষ বিশিষ্ট একটি ঘর। সাথে রয়েছে একটি গোসলখানা ও টয়লেট। বৈদ্যুতিক সংযোগ ও পানির ব্যবস্থাতো আছেই।
শুধু রুনা বেগম নয় ইউসূফ (৬৫), সজীমুন (৯০), পঙ্গু শফিকুল আলম (৭০), সাহেদা (৬৩), কবিতা (৫৩), নাজমা (৬১), হযরত আলী (৬০)সহ ১৫০ টি পরিবার ঘর পেয়ে তাদের স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। ১৫৩ টি পরিবারের স্বপ্ন পূরণের অপেক্ষায় রয়েছে।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ্ নুসরাত জাহান বলেন, ২ শতক জমি নিয়ে ১ লাখ ৭১হাজার টাকা ব্যয়ে টিনসেডের দুই কক্ষ বিশিষ্ট ঘর নির্মাণ করা হয়। মুড়াপাড়া দড়িকান্দি এলাকা ২০ টি ও কাঞ্চনের বিরাবো এলাকায় ১৩১ টি ঘর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। এছাড়া বিরাবো এলাকায় আরো ১’শ টি ও আধুরিয়া এলাকায় ৪৫ টি ঘরের নির্মাণ কাজ চলছে। বরাদ্দকৃত অর্থায়নে ভিটি বালু, বৈদ্যুতিক সংযোগ, পয়ঃ নিষ্কাশন, পানি নিষ্কাশনের জন্য ব্যবস্থা করাটা খুব কঠিন হয়ে পড়ছিল। তখন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দে বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক।
বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মানবতার জননী। তার মন সাধারণ মানুষের জন্য সব সময় কাঁদে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আশ্রায়ন প্রকল্পের সারাদেশে যত মানুষকে ঘর দিয়েছেন তা পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল। গৃহহীনরা এখন সেই স্বপ্নের ঘরে বসবাস করছেন।


এই বিভাগের আরো সংবাদ