শিরোনাম
খুলনায় দুই খালাতো বোনকে গন-ধর্ষণের অভিযোগে আটক-৩ পাথরঘাটা অস্বাভাবিক আকৃতি নিয়ে শিশুর জন্ম শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন: অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ দাউদকান্দিতে দুর্বৃত্তদের হামলায় সাংবাদিক গুরুত্বর আহত বিএনপির পায়ের নিচে মাটি নেই… কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক লাকসামে রোবটিক্স ও প্রোগ্রামিং রিফ্রেসার্স প্রশিক্ষণ কর্মশালা বালিয়াডাঙ্গীর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে দুদকে তলব কুমিল্লা সিটি নির্বাচনে আওয়ামীলীগ প্রার্থী রিফাত ও বর্তমান মেয়র সাক্কুসহ ৬ জন মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ নারীদের রাজনৈতিক নাগরিক সচেতনতা কার্যক্রম সভা অনুষ্ঠিত ভোলায় হাসপাতালের নির্মাণাধীন ভবনের ছাদ থেকে পড়ে শ্রমিকের মৃত্যু
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

ইচ্ছে শক্তিকে কাজে লাগিয়ে স্বাবলম্বী এক তরুণী গৃহবধূ

Muktir Lorai / ১২৯ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় সোমবার, ১৬ নভেম্বর, ২০২০

প্রসেনজিৎ দাস,আগরতলাঃ: কথায় আছে ইচ্ছে থাকলে কি না করা যায়। নিজের ইচ্ছে শক্তিকে কাজে লাগিয়ে স্বাবলম্বী এক তরুণী।
ইচ্ছা থাকলে স্বনির্ভর হওয়া হয়তো এতটা কঠিন না । যা আবার প্রমাণিত করে দিলো তরুণী গৃহবধূ শম্পা পাল বিশ্বাস। নাম শম্পা পাল বিশ্বাস বাড়ি দক্ষিণ জেলার বাইখোরাতে । উনি বাড়িতে মোবাইলে ইউটিউব দেখে সুতার তৈরি বিভিন্ন ফুল বানানোর কাজ শিখেছে। আজ তিনি স্বাবলম্বী। এখন রোজ মাতার বাড়িতে এসে এক থেকে দুই হাজার টাকার উপরে ইনকাম করতে পারে বলে জানালেন সংবাদ প্রতিনিধিদের। জানা যায়, বিগত দিনগুলোতে আর্থিক দিক দিয়ে ব্যাপক দৈন্যদশার শিকার ছিল ওই পরিবার। পরে নিজের হাতে কিছু করার বিষয়ে উদ্যোগী হন শম্পা। তবে কিভাবে কাজ করবেন তা বুঝে উঠতে পারছিলেন না। তখন সহায়তা নেওয়া হয় ইউটিউব এর। এই সামাজিক মাধ্যমের সহায়তায় সুতার সাহায্যে বিভিন্ন সামগ্রী বানানোর কাজ শিখেন এই মহিলা। পরে বাস্তবেও এই কাজ করে তোলার প্রতি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হন তিনি। সেই মোতাবেক কাজও শুরু করেন তিনি। তারপর আর কি , এক পা দু পা করে সাধারণ কাজ স্বাবলম্বী করে তুললো এই তরুণী গৃহববধূকে। এখন তো প্রায় প্রতিদিনই হাজার দেড় হাজার টাকার কাছাকাছি রোজগার করতে পারছেন তিনি। নিজের সাথে অন্যান্য বেকার মহিলাদের কাজ শিখছেন এই তরুণী গৃহবধূ।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »