• শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ০৭:৪০ পূর্বাহ্ন
  • Arabic Arabic Bengali Bengali English English
শিরোনাম
হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করেছে র‌্যাব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চলমান ছুটি বাড়লো ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক উদ্ধার নবীগঞ্জে বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা পবায় প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় পরিবারের মাঝে ঢেউটিন বিতরণ সরাইলে নমুনা দেয়ার আগেই ঢলে পড়লেন মৃত্যুর কোলে শনিবার থেকে নিবন্ধনকারীদের করোনার টিকা দেওয়া হবে রাজশাহী টিচার্স ট্রেনিং কলেজে পবায় কোভিড-এ ক্ষতিগ্রস্ত পল্লী উদ্যোক্তাদের মাঝে প্রণোদনা ঋণ বিতরণ উল্লাপাড়ায় স্বেচ্ছায় রাস্তা সংস্কার কঠোর লকডাউনে বাড়েনি সবজির দাম, সাধারণ মানুষর স্বস্তি ফিরলেও দুঃশ্চিন্তায় চাষীরা
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈদিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একদন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ

উন্নয়নের ছোঁয়া পাননি মুসলিমপুর ও হুরুয়ারকান্দা এলাকাবাসী

news / ৩৭ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় রবিবার, ১৮ জুলাই, ২০২১

সুনামগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার সুরমা ইউনিয়নের হুরুয়ারকান্দা ও মুসলিমপুর গ্রামে কোন ধরনের উন্নয়ন মূলক কাজ করা হয়নি। সুরমা ইউনিয়ন এর মুসলিমপুর বাচ্চু মিয়ার বাড়ি হইতে বালাকান্দা বাজারের মধ্যে দিয়ে হুরুয়ারকান্দা পর্যন্ত অংশে স্বাধীনতার অর্ধশত বছরেও উন্নয়নের ছোঁয়া লাগেনি। এতে প্রতিদিন পাচঁ থেকে দশ হাজার মানুষ ও আরো পাঁচটি গ্রামের চাকুরীজীবি, ব্যবসায়ী, শিক্ষার্থী, রোগীসহ এখানকার কৃষকরা তাদের উৎপাদিত পণ্য বাজারজাত করনে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। উল্লেখ্য, মাটির এই রাস্তাটির সংস্কার বা উন্নয়নে বছরের পর বছর স্থানীয় গ্রামবাসী আশার বানী শুনে আসছে।

মুসলিমপুর বাচ্চু মিয়ার বাড়ি হইতে বালাকান্দা বাজারের মধ্যে দিয়ে হুরুয়ারকান্দা পর্যন্ত ৫ টি গ্রামের মানুষের চলাচলের সড়ক এটি। প্রায় ৭ কিলোমিটার দীর্ঘ সড়কটিতে স্বাধীনতার পর গত অর্ধশত বছরেও উন্নয়নের কোন ছোঁয়া লাগেনি। এলাকায় ১০ হাজারেরও বেশী লোকের বসবাস। এই গ্রামে রয়েছে সরকারী-বেসরকারী চাকুরীজীবি, ব্যবসায়ী, কৃষকসহ অনেক শিক্ষার্থী। সড়কটি একদিন বৃষ্টি হলে ব্যবহারের পুরোপুরি অনুপযোগী হয়ে পড়ায় প্রতিদিন অবনর্ণীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকার মানুষজনদের। এসময় রিক্সা,মোটরসাইকেল, অটোরিক্সা, ইজিবাইকসহ ছোট ছোট যানবাহন চলাচল একেবারেই বন্ধ হয়ে যায়। এসময়ে পায়ে হেঁটেই যাতায়াত করতে হয় গ্রামবাসীর।

সুরমা ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মোঃ ইউনুস মিয়া, মোঃ সফিকুল হক, আলাউর রহমান (সাবেক মেম্বার), ময়না মিয়া, সুলতান মিয়া, আঃহামিদ, মোঃ আবুল বাশার, মোঃ ওয়াসিম মিয়া, মোঃআকামত মিয়া জানান, উল্লেখিত গ্রামগুলোর অধিকাংশ বাসিন্দাই কৃষি কাজ করেই জীবিকা নির্ভর করেন। সড়কটিতে যান চলাচলের অসুবিধার কারণে আমাদের উৎপাদিত পন্য বাজারে নিয়ে যেতে শ্রমিকদের উপর নির্ভর করতে হচ্ছে। এর জন্য অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় করতে হচ্ছে। ফলে ক্ষতির সম্মুখীন হতে হচ্ছে কৃষকদের। একদিন বৃষ্টি হলে পুরো সড়কটি ব্যবহারের অনুপযোগী থাকায় রোগী,বয়স্ক লোকজন কিংবা অসুস্থ গর্ভবতী মহিলাদেরও অবর্ননীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

সরজমিনে গিয়ে কথা হয় এলাকার জজ মিয়া, মাসুক মিয়া, রুবেল মিয়া, মোঃ আঃ বারেক, মটরসাইকেল চালক এর সাথে। তারা রাস্তাটি ব্যবহারের অনুপযোগী হওয়ায় অনেক সময় পাকা রাস্তার পাশে গাড়ি রেখে পায়ে হেটে বাড়িতে আসা-যাওয়া করতে হয়। এই সড়ক পথেই রয়েছে একটি বাজার, একটা এতিমখানা ও কয়েকটি সরকারি বেসরকারি স্কুল প্রতিষ্ঠান। এছাড়াও বেশ কয়েকটি জামে মসজিদ রয়েছে এখানে এই গ্রামের রাস্তার পাসে।

এব্যাপারে স্থানীয় সুরমা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আঃছাত্তার সাংবাদিকদের জানান, মুসলিমপুর থেকে বালাকান্দা বাজার হয়ে হুরুয়ারকান্দার রাস্তাটি করার জন্য আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি। আমি আমার ইউনিয়ন পরিষদের তেমন কিছু বরাদ্দ পাচ্ছিনা, বরাদ্দ যদি পাই তাহলে রাস্তার কাজ করে দিব।


এই বিভাগের আরো সংবাদ