বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

এমপিওভূক্তির দাবিতে কারিগরি শিক্ষকদের মানববন্ধন

Muktir Lorai / ২৪ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় বুধবার, ২২ জুন, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টারঃ বুধবার (২২ জুন) এমপিওভূক্তির দাবিতে কারিগরি অধিদপ্তরের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছেন ভূক্তভূগী শিক্ষকরা।

বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষের এনটিআরসিএ”র ৩য় গণবিজ্ঞপ্তির সুপারিশে নিয়োগ পেয়েও গত পাঁচ মাসে এমপিওভুক্ত হতে পারছেন না কারিগরি শিক্ষকরা।

মানববন্ধনে অংগ্রহনকারী শিক্ষকরা জানান, তৃতীয় গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে সারাদেশে মোট ১ হাজার ৫০০ জন শিক্ষক কারিগরি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যোগদান করেন। সব প্রক্রিয়া অনুসরণ করে গত ফেব্রুয়ারি মাসে সাত শতাধিক শিক্ষক অধিদপ্তরে এমপিওভুক্তির জন্য ফাইল জমা দেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত এ বিষয়ে কোন ধরনের সরকারি নির্দেশনা জারি হয়নি।

তারা বলেন, কারিগরি শিক্ষকদের এমপিওভুক্তির দাবিতে গত ২৬ এপ্রিল ফোরামের পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল মহাপরিচালকের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। যারা ফেব্রুয়ারি মাসে ফাইল জমা দিয়েছেন তাদের বেতন ঈদুল ফিতরের আগে এবং মে মাসে আরও শিক্ষকের এমপিও প্রদান করার প্রতিশ্রুতি দিলেও তা বাস্তবায়ন হয়নি।

শিক্ষকরা আরও বলেন, ২০২২ সালের অর্ধেক সময় অতিক্রম হয়ে গেলেও এ পর্যন্ত যোগদান করা শিক্ষকদের মধ্যে মাত্র ৬০০ জনের ফাইল সমাধান হয়েছে। আর নতুনদের সমাধানের খবর নেই। অথচ মাদরাসা শিক্ষা অধিদপ্তর এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর এক মাসেই আট থেকে ১০ হাজার নতুন এমপিওর আওতায় এসেছে। কারিগরি অধিদপ্তরের এ ব্যর্থতা লজ্জাজনক, বিরক্তিকর ও কষ্টদায়ক।

কারিগরি শিক্ষকরা জানান, তাদের অধিকাংশ শিক্ষক আগের চাকরি ছেড়ে নিজ জেলা থেকে ৩০০-৪০০ কিলোমিটার দূরের প্রতিষ্ঠানে যোগ দিয়েছেন। পাঁচ মাসেও তারা বেতন না পেয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছেন।

এবিষয়ে কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ড.মো: ওমর ফারুক বলেন, আমরা দ্রুত এমপিও’র সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করছি। জুলাই মাসের মধ্যেই আশাকরি সকল এমপিও জটিলতা নিরসন হবে।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »