ঢাকা ০১:৫০ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৮ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কক্সবাজারে প্রধানমন্ত্রীট আগমণ উপলক্ষ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি

আজিজ উদ্দিন, কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ
কক্সবাজার জেলার মেরিন ড্রাইভের পাশ ঘেষে ইনানী পয়েন্টে বিশ্বের ৫৬ দেশের নৌ-বাহিনীর অংশগ্রহনে নৌবহর পর্যালোচনায় প্রধান অতিথি হিসাবে যোগ দিতে ৭ ডিসেম্বর কক্সবাজার আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই দিন বিকেলে কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত জনসভায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

মঙ্গলবার (২৯নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মাঠে সাজানো হচ্ছে সমাবেশস্থলসহ আশপাশের এলাকা। চলছে প্রশাসনের জোর প্রস্তুতিও। পাশাপাশি দলীয় জনসভা সফল করতে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছে জেলা আওয়ামী লীগের ও কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও। জনসভায় সর্বোচ্চ জমায়েত নিশ্চিত করতে বিভিন্ন উপজেলায় উপজেলায়ও চলছে প্রস্তুতি।

কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজিবুল ইসলাম প্রস্তুতি নেওয়া মাঠ দেখতে গিয়ে বলেন, কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগ ৩০হাজার নেতাকর্মী নিয়ে সমাবেশস্থলে প্রবেশ করবে।

তিনি আরো বলেন, আমি ইতি মধ্যে কয়েকটি ওয়ার্ডে প্রস্তুতি সভা করেছি। সবার কাছে জননেত্রী শেখ হাসিনা কক্সবাজারে আগমণ বার্তা পৌছিয়ে দিচ্ছি। সেসাথে ৭ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাষণ শুনার জন্য সবাইকে দাওয়াত পত্র প্রদান করছি।

কক্সবাজার জেলাবাসী প্রধানমন্ত্রীকে দেখার অপেক্ষায় আছেন জানিয়ে, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান জানান, তিন লাখ মানুষের সমাগম হবে জনসভায়। জেলা আওয়ামী লীগ সেইভাবে প্রস্তুতি গ্রহণ করছে। আগামী কাল ৩০নভেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি সভা আছে জেলা, পৌরসভা ও উপজেলার নেতাকর্মীদের নিয়ে।

জাতীয় রাজনীতির প্রেক্ষাপট আর নির্বাচন কেন্দ্রিক গুরুত্বপূর্ণ বার্তা বহন করছে এই জনসভা। সেইসাথে কক্সবাজার জেলার বড় বড় উন্নয়ন প্রকল্প ও নানান ইস্যুতে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠা কক্সবাজারের এই জনসভা বিশেষ তাৎপর্য বহন করছে বলে জানান, মহেশখালী কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশেক উল্লাহ রফিক।

জনসভা সফল করতে ইতোমধ্যে প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন দলের নেতাকর্মীরা। প্রস্তুতি সভা চলছে বিভিন্ন উপজেলায়। গত শনিবার বিকেলে রামুর খিজারী হাইস্কুল মাঠে বিশাল প্রস্তুতি সভা করেছে সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল। সভায় এমপি কমল জানান, লক্ষ লক্ষ মানুষ রামু থেকে অংশ নিবে, সে লক্ষ্যে ৩০ নভেম্বর থেকে রামু প্রতিটি ইউনিয়নে প্রস্তুতি সভা করা হবে এবং ৫ ডিসেম্বর রামুতে স্বাগত মিছিলের আয়োজন করা হবে।

এইদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগমণ উপলক্ষ্যে কক্সবাজার পুরো জেলায় ব্যানার-ফ্যাস্টুন ও পোস্টার এবং তোরণ দিয়ে সাজিয়েছে নেতাকর্মীরা।
অনেক নেতারা বড় বড় বিল বোর্ড সাজিয়ে রেখেছে।
উৎসব মুখর পরিবেশ তৈরি হচ্ছে গ্রামগঞ্জ থেকে শহর পর্যন্ত।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

কক্সবাজারে প্রধানমন্ত্রীট আগমণ উপলক্ষ্যে ব্যাপক প্রস্তুতি

আপডেট সময় ০৬:২৬:০২ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২

আজিজ উদ্দিন, কক্সবাজার প্রতিনিধিঃ
কক্সবাজার জেলার মেরিন ড্রাইভের পাশ ঘেষে ইনানী পয়েন্টে বিশ্বের ৫৬ দেশের নৌ-বাহিনীর অংশগ্রহনে নৌবহর পর্যালোচনায় প্রধান অতিথি হিসাবে যোগ দিতে ৭ ডিসেম্বর কক্সবাজার আসছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। একই দিন বিকেলে কক্সবাজারের শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আয়োজিত জনসভায় ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী।

মঙ্গলবার (২৯নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের মাঠে সাজানো হচ্ছে সমাবেশস্থলসহ আশপাশের এলাকা। চলছে প্রশাসনের জোর প্রস্তুতিও। পাশাপাশি দলীয় জনসভা সফল করতে দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছে জেলা আওয়ামী লীগের ও কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও। জনসভায় সর্বোচ্চ জমায়েত নিশ্চিত করতে বিভিন্ন উপজেলায় উপজেলায়ও চলছে প্রস্তুতি।

কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি নজিবুল ইসলাম প্রস্তুতি নেওয়া মাঠ দেখতে গিয়ে বলেন, কক্সবাজার পৌর আওয়ামী লীগ ৩০হাজার নেতাকর্মী নিয়ে সমাবেশস্থলে প্রবেশ করবে।

তিনি আরো বলেন, আমি ইতি মধ্যে কয়েকটি ওয়ার্ডে প্রস্তুতি সভা করেছি। সবার কাছে জননেত্রী শেখ হাসিনা কক্সবাজারে আগমণ বার্তা পৌছিয়ে দিচ্ছি। সেসাথে ৭ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভাষণ শুনার জন্য সবাইকে দাওয়াত পত্র প্রদান করছি।

কক্সবাজার জেলাবাসী প্রধানমন্ত্রীকে দেখার অপেক্ষায় আছেন জানিয়ে, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র মুজিবুর রহমান জানান, তিন লাখ মানুষের সমাগম হবে জনসভায়। জেলা আওয়ামী লীগ সেইভাবে প্রস্তুতি গ্রহণ করছে। আগামী কাল ৩০নভেম্বর জেলা আওয়ামী লীগের প্রস্তুতি সভা আছে জেলা, পৌরসভা ও উপজেলার নেতাকর্মীদের নিয়ে।

জাতীয় রাজনীতির প্রেক্ষাপট আর নির্বাচন কেন্দ্রিক গুরুত্বপূর্ণ বার্তা বহন করছে এই জনসভা। সেইসাথে কক্সবাজার জেলার বড় বড় উন্নয়ন প্রকল্প ও নানান ইস্যুতে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠা কক্সবাজারের এই জনসভা বিশেষ তাৎপর্য বহন করছে বলে জানান, মহেশখালী কুতুবদিয়া আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আশেক উল্লাহ রফিক।

জনসভা সফল করতে ইতোমধ্যে প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন দলের নেতাকর্মীরা। প্রস্তুতি সভা চলছে বিভিন্ন উপজেলায়। গত শনিবার বিকেলে রামুর খিজারী হাইস্কুল মাঠে বিশাল প্রস্তুতি সভা করেছে সংসদ সদস্য সাইমুম সরওয়ার কমল। সভায় এমপি কমল জানান, লক্ষ লক্ষ মানুষ রামু থেকে অংশ নিবে, সে লক্ষ্যে ৩০ নভেম্বর থেকে রামু প্রতিটি ইউনিয়নে প্রস্তুতি সভা করা হবে এবং ৫ ডিসেম্বর রামুতে স্বাগত মিছিলের আয়োজন করা হবে।

এইদিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগমণ উপলক্ষ্যে কক্সবাজার পুরো জেলায় ব্যানার-ফ্যাস্টুন ও পোস্টার এবং তোরণ দিয়ে সাজিয়েছে নেতাকর্মীরা।
অনেক নেতারা বড় বড় বিল বোর্ড সাজিয়ে রেখেছে।
উৎসব মুখর পরিবেশ তৈরি হচ্ছে গ্রামগঞ্জ থেকে শহর পর্যন্ত।