ঢাকা ০২:১৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কটিয়াদীতে দরিদ্র কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছেন ছাত্রলীগ

কিশোরগঞ্জ কটিয়াদীতে দরিদ্র কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছেন ছাত্রলীগ নেতা কর্মীরা। লোহাজুরী ইউনিয়নের চরকাউনিয়া গ্রামের কৃষক উজ্জল মিয়ার এক বিঘা জমির পাকা ধান কেটে দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

চান্দপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রনি খানের নেতৃত্বে জালালপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা আজিজুর রহমান, মুমুরদিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান রাকিব, ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগ নেতা আসাদুজ্জামান সাজন, চান্দপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহরিয়ার সুলতান প্রিন্স, কটিয়াদী সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মোঃ রিপন, লোহাজুরী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা মোঃ রাতুল, মনির, ফয়সাল, সাইফুল ধান কাটায় অংশ নেন।

কৃষক উজ্জল মিয়া বলেন, কৃষি শ্রমিকের বাজার চড়া, মজুরি দিতে হয় এক হাজার টাকা করে দিতে হয়। এক বিঘা জমির ধান কাটতে পাঁচজন শ্রমিকের প্রয়োজন। ছাত্রলীগের সহায়তায় বিনা খরচে জমির ধান ঘরে তুলতে পেরেছি। ছাত্রলীগ এভাবে এগিয়ে আসলে আমার মত অনেক গরিব কৃষক উপকৃত হবেন।

চান্দপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. রনি খান বলেন, কেন্দ্রীয় নির্দেশনা বাস্তবায়নে আমরা সর্বদাই সচেষ্ট আছি। যে কোনো দুর্যোগে ছাত্রলীগ অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। ভবিষ্যতেও এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আরো বলেন কৃষকের পাশে এমন ভাবে যদি সকলে এগিয়ে আসে ধানের দাম কমিয়ে আসবে বলে তারা আশাবাদী।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

কটিয়াদীতে দরিদ্র কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছেন ছাত্রলীগ

আপডেট সময় ০২:৪২:৪১ অপরাহ্ন, সোমবার, ১ মে ২০২৩

কিশোরগঞ্জ কটিয়াদীতে দরিদ্র কৃষকের পাশে দাঁড়িয়েছেন ছাত্রলীগ নেতা কর্মীরা। লোহাজুরী ইউনিয়নের চরকাউনিয়া গ্রামের কৃষক উজ্জল মিয়ার এক বিঘা জমির পাকা ধান কেটে দিয়েছেন ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।

চান্দপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রনি খানের নেতৃত্বে জালালপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা আজিজুর রহমান, মুমুরদিয়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক হাবিবুর রহমান রাকিব, ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগ নেতা আসাদুজ্জামান সাজন, চান্দপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক শাহরিয়ার সুলতান প্রিন্স, কটিয়াদী সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা মোঃ রিপন, লোহাজুরী ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা মোঃ রাতুল, মনির, ফয়সাল, সাইফুল ধান কাটায় অংশ নেন।

কৃষক উজ্জল মিয়া বলেন, কৃষি শ্রমিকের বাজার চড়া, মজুরি দিতে হয় এক হাজার টাকা করে দিতে হয়। এক বিঘা জমির ধান কাটতে পাঁচজন শ্রমিকের প্রয়োজন। ছাত্রলীগের সহায়তায় বিনা খরচে জমির ধান ঘরে তুলতে পেরেছি। ছাত্রলীগ এভাবে এগিয়ে আসলে আমার মত অনেক গরিব কৃষক উপকৃত হবেন।

চান্দপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. রনি খান বলেন, কেন্দ্রীয় নির্দেশনা বাস্তবায়নে আমরা সর্বদাই সচেষ্ট আছি। যে কোনো দুর্যোগে ছাত্রলীগ অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। ভবিষ্যতেও এ প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আরো বলেন কৃষকের পাশে এমন ভাবে যদি সকলে এগিয়ে আসে ধানের দাম কমিয়ে আসবে বলে তারা আশাবাদী।