• শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ০৭:৫৫ পূর্বাহ্ন
  • Arabic Arabic Bengali Bengali English English
শিরোনাম
হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করেছে র‌্যাব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চলমান ছুটি বাড়লো ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক উদ্ধার নবীগঞ্জে বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা পবায় প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় পরিবারের মাঝে ঢেউটিন বিতরণ সরাইলে নমুনা দেয়ার আগেই ঢলে পড়লেন মৃত্যুর কোলে শনিবার থেকে নিবন্ধনকারীদের করোনার টিকা দেওয়া হবে রাজশাহী টিচার্স ট্রেনিং কলেজে পবায় কোভিড-এ ক্ষতিগ্রস্ত পল্লী উদ্যোক্তাদের মাঝে প্রণোদনা ঋণ বিতরণ উল্লাপাড়ায় স্বেচ্ছায় রাস্তা সংস্কার কঠোর লকডাউনে বাড়েনি সবজির দাম, সাধারণ মানুষর স্বস্তি ফিরলেও দুঃশ্চিন্তায় চাষীরা
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈদিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একদন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ

কুুমিল্লায় তাসলিমা মেটার্নিটি ক্লিনিকে ডাক্তারের অপচিকিৎসায় জলসে যাওয়া সেই রোগরি মৃত্যু

news / ৫৫ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় সোমবার, ৫ জুলাই, ২০২১

কুুমিল্লা প্রতিনিধি: কুুমিল্লা মহানগরীর ঝাউতলায় তাসলিমা মেটার্নিটি ক্লিনিকে ডাক্তারের অপচিকিৎসায় জলসে যাওয়া সেই রোগরি মৃত্যু হয়েছে।

সরেজমিন ঘুরে জানা যায় কুমিল্লা কুমিল্লা মহানগরীর ঝাউতলা শহীদ সামসুল হক সড়কের তাসলিমা মের্টানিটি ক্লিনিকে গত ২৭ই জুন দুপুর ১২ টায় ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার ছাতিয়ানী গ্রামের মৃত ছিদ্দিকুর রহমান ভূঁইয়ার ছেলে ইউনুস ভূঁইয়া (৫৫) কে ডাক্তার দেখাতে আসে ইউনুস ভূঁইয়ার স্বজনরা।
তখন হাসপাতালের কর্তব্যবরত ডাক্তার ওই ব্যবস্থাপনা পরিচালক, কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহকারী অধ্যাপক এ কে এম হাসান কে দেখাতে আসেন, ডাক্তার পরীক্ষা নিরীক্ষার পর রোগীর স্বজনদের জানান আপনাদের রোগীর অবস্থা আশঙ্কাজনক। আমাদের হাসপালে ভর্তি করান। কিছুক্ষন পরই অস্ত্রপ্রচার করা হয় রোগীর মুত্রনালীতে চিকন পাইপ ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। একেক করে পাঁচ ছয় টি ইঞ্জেকশন ঢুকিয়ে দেওয়া হয়। বেশ কিছু ঔষধ সেবন করানো হলে, দেড় থেকে দুই ঘন্টা পর রোগীর কথা বলা বন্ধ হয়ে যায়। তার মুখ দিয়ে লালা বের হতে থাকে। এক পর্যায় রোগীর চামড়া ঝলসে উঠে যায়। রোগী চিৎকার করতে থাকলে তাকে আবারো ঘুমের ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়। এসময় রোগীর স্বজনরা আত্মচিৎকার করতে থাকলে ডাক্তার বলেন, আপনারা শান্ত হউন এখানে চিকিৎসা হবে। এ কথা বলে ডাক্তার হাসপাতাল ত্যাগ করে চলে যান। ৩ জুন রাত সাড়ে ১২ টায় ইউনুস ভূঁইয়া অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখা দেওয়ায় ডাক্তার হাসপাতালে আসেন। এক পর্যায় রোগী যখন মৃত্যর প্রহর গুনছে ডাক্তার হাসান রোগীর স্বজনদের বলেন এখনি রোগীকে অন্যত্র নিয়ে চিকিৎসা করান। রাত ২ টায় রোগীর স্বজনদের উপর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ উত্তেজিত হয়ে বলেন এ রোগীকে এক্ষনই হাসপাতাল থেকে সরান।

পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য শুক্রবার রাতেই স্বজনরা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তাররা শেখ হাসিনা বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করলে ০৪ জুলাই শনিবার ভোর ৫.৩০ ডাক্তার মৃত ঘোষনা করনে।

এ ব্যাপারে কুমিল্লার সিভিল সার্জন ডা. মো: মীর মোবারক হোসেন জানান, ঐ রোগীর যদি ডাক্তারের ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু হয়ে থাকে তাহলে অবশ্যইে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এই বিভাগের আরো সংবাদ