ঢাকা ০৪:১৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কেন্দ্রে ভোটার না থাকায় ক্রিকেট খেলছে পুলিশ

জাতীয় সংসদ উপনির্বাচনে ঠাকুরগাঁও-৩ (রাণীশংকৈল ও পীরগঞ্জ) আসনে ভোটারদের উপস্থিতি কম হওয়ায় ক্রিকেট খেলে সময় পার করতে দেখা গেছে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যকে।

বুধবার (১ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে ঠাকুরগাঁও ৩ আসনের রাণীশংকৈল উপজেলার নন্দুয়ার ইউনিয়নের মীরডাঙ্গী উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ভোট কেন্দ্রে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। কেন্দ্রে দায়িত্বরত ওই পুলিশ সদস্যের নাম আরিফ মাহামুদ আপেল। তিনি ঠাকুরগাঁও সদর থানায় উপপরিদর্শক (এসআই) পদে কর্মরত রয়েছেন।

এদিকে ভোট কেন্দ্রে দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় ক্রিকেট খেলার দৃশ্য দেখে ভোটারদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। ওই ভোট কেন্দ্রে আসা ভোটারের সঙ্গে কথা হলে তাঁরা বলেন, কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি কেমন তা পুলিশ সদস্যের ক্রিকেট খেলা দেখলেই বুঝতে পারবেন। এর আগে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতির কারণে পুলিশসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা দুপুরের খাবার খাওয়ার সুযোগ পাননি। অথচ জাতীয় সংসদ সদস্য পদে উপনির্বাচনের মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি নির্বাচনে পুলিশ ক্রিকেট খেলার সময় পাচ্ছে।

জানতে চাওয়া হলে ওই দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা আরিফ মাহামুদ আপেল বলেন, ‘একদল কিশোর ভোট কেন্দ্রের মাঠে ক্রিকেট খেলছিল। ওই সময় আমি তাদের সঙ্গ দিয়ে একটু খেলেছি তাদের সরিয়ে দেওয়ার জন্য। এতে কোনো সমস্যা নেই।’

মীরডাঙ্গী উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ভোট কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার আব্দুর রহিম বলেন, ‘বিকেল ৩টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত ২ হাজার ৪৭ জন ভোটারের বিপরীতে ৩০০ জন নারী ভোটার তাদের ভোট প্রদান করেছেন।’

ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসনের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এতে ভোটের কোনো ব্যাঘাত তৈরি হয়নি। ক্রিকেট খেলে খারাপ কিছু করেনি।’

রানীশংকৈল পৌর শহরের কেন্দ্রীয় হাই স্কুল ভোট কেন্দ্র দায়িত্বরত কর্মকর্তারা থাকলেও উপস্থিতি কম দেখা গেছে ভোটারদের।

উল্লেখ্য, আসনটিতে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাঁরা হলেন—১৪ দলের প্রার্থী ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা সভাপতি ইয়াসিন আলী হাতুড়ি প্রতীকে, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য দুই বারের এমপি হাফিজ উদ্দিন আহম্মেদ লাঙ্গল প্রতীকে, স্বতন্ত্র প্রার্থী গোপাল চন্দ্র রায় একতারা প্রতীকে, জাকের পার্টির এমদাদুল হক গোলাপ ফুল প্রতীকে, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির সাফি আল আসাদ আম প্রতীকে ও বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের সিরাজুল ইসলাম টেলিভিশন প্রতীকে।

আসনটিতে মোট ভোটার ৩ লাখ ২৪ হাজার ৭৩৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৬৫ হাজার ২৩৫ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ৫৯ হাজার ৫০৪ জন।

আপলোডকারীর তথ্য

কেন্দ্রে ভোটার না থাকায় ক্রিকেট খেলছে পুলিশ

আপডেট সময় ০২:৪২:৩৬ অপরাহ্ন, বুধবার, ১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

জাতীয় সংসদ উপনির্বাচনে ঠাকুরগাঁও-৩ (রাণীশংকৈল ও পীরগঞ্জ) আসনে ভোটারদের উপস্থিতি কম হওয়ায় ক্রিকেট খেলে সময় পার করতে দেখা গেছে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যকে।

বুধবার (১ ফেব্রুয়ারী) দুপুরে ঠাকুরগাঁও ৩ আসনের রাণীশংকৈল উপজেলার নন্দুয়ার ইউনিয়নের মীরডাঙ্গী উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ভোট কেন্দ্রে এমন দৃশ্য দেখা গেছে। কেন্দ্রে দায়িত্বরত ওই পুলিশ সদস্যের নাম আরিফ মাহামুদ আপেল। তিনি ঠাকুরগাঁও সদর থানায় উপপরিদর্শক (এসআই) পদে কর্মরত রয়েছেন।

এদিকে ভোট কেন্দ্রে দায়িত্ব পালনরত অবস্থায় ক্রিকেট খেলার দৃশ্য দেখে ভোটারদের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। ওই ভোট কেন্দ্রে আসা ভোটারের সঙ্গে কথা হলে তাঁরা বলেন, কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি কেমন তা পুলিশ সদস্যের ক্রিকেট খেলা দেখলেই বুঝতে পারবেন। এর আগে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ভোটারের উপস্থিতির কারণে পুলিশসহ নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা দুপুরের খাবার খাওয়ার সুযোগ পাননি। অথচ জাতীয় সংসদ সদস্য পদে উপনির্বাচনের মতো গুরুত্বপূর্ণ একটি নির্বাচনে পুলিশ ক্রিকেট খেলার সময় পাচ্ছে।

জানতে চাওয়া হলে ওই দায়িত্বরত পুলিশ কর্মকর্তা আরিফ মাহামুদ আপেল বলেন, ‘একদল কিশোর ভোট কেন্দ্রের মাঠে ক্রিকেট খেলছিল। ওই সময় আমি তাদের সঙ্গ দিয়ে একটু খেলেছি তাদের সরিয়ে দেওয়ার জন্য। এতে কোনো সমস্যা নেই।’

মীরডাঙ্গী উচ্চ বিদ্যালয়ের নারী ভোট কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার আব্দুর রহিম বলেন, ‘বিকেল ৩টা ৫০ মিনিট পর্যন্ত ২ হাজার ৪৭ জন ভোটারের বিপরীতে ৩০০ জন নারী ভোটার তাদের ভোট প্রদান করেছেন।’

ঠাকুরগাঁও পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসনের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এতে ভোটের কোনো ব্যাঘাত তৈরি হয়নি। ক্রিকেট খেলে খারাপ কিছু করেনি।’

রানীশংকৈল পৌর শহরের কেন্দ্রীয় হাই স্কুল ভোট কেন্দ্র দায়িত্বরত কর্মকর্তারা থাকলেও উপস্থিতি কম দেখা গেছে ভোটারদের।

উল্লেখ্য, আসনটিতে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তাঁরা হলেন—১৪ দলের প্রার্থী ওয়ার্কার্স পার্টির জেলা সভাপতি ইয়াসিন আলী হাতুড়ি প্রতীকে, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য দুই বারের এমপি হাফিজ উদ্দিন আহম্মেদ লাঙ্গল প্রতীকে, স্বতন্ত্র প্রার্থী গোপাল চন্দ্র রায় একতারা প্রতীকে, জাকের পার্টির এমদাদুল হক গোলাপ ফুল প্রতীকে, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির সাফি আল আসাদ আম প্রতীকে ও বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট ফ্রন্টের সিরাজুল ইসলাম টেলিভিশন প্রতীকে।

আসনটিতে মোট ভোটার ৩ লাখ ২৪ হাজার ৭৩৯ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৬৫ হাজার ২৩৫ জন এবং নারী ভোটার ১ লাখ ৫৯ হাজার ৫০৪ জন।