• শনিবার, ৩১ জুলাই ২০২১, ০৭:৪৪ পূর্বাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

খুলনায় স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে ভ্রাম্যমান আদালত

news / ৬৯ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার, ২২ জুন, ২০২১

নাহিদ জামান, খুলনা রিপোটারঃ খুলনায় করোনা সংক্রমণের হার দ্রুত বেড়ে যাওয়ার প্রেক্ষিতে আজ ২২ জুন মঙ্গলবার থেকে মহানগর ও উপজেলায় শুরু হয়েছে কঠোর লকডাউন। খুলনা জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, মোহাম্মদ হেলাল হোসেন এর নির্দেশনায় অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, মোঃ ইউসুপ আলী তত্ত্বাবধানে খুলনা মহানগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালন নিশ্চিতকরণে মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালিত হয়। মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে মোট ২৩ মামলায় ৪০,৫০০/- টাকা জরিমানা ও ১৭ জনকে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।
জেলা প্রশাসন, খুলনার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কাজী নাহিদ ইভা, মোঃ ইসমাইল হোসেন ও আরিফুল ইসলাম সকালে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে স্বাস্থ্যবিধি এবং করোনাকালীন বিধি নিষেধ অমান্যকরণের দায়ে এসব অর্থদণ্ড ও কারাদণ্ড প্রদান করেন। সরকারি আদেশ অমান্যকারীদের ‘সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮’ এবং ‘দণ্ডবিধি, ১৮৬০’ এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক জরিমানা করা হয়।
উল্লেখ্য, সাম্প্রতিককালে খুলনায় করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে যাওয়ায় গত ২০ জুন, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ তারিখে অনুষ্ঠিত জেলা পর্যায়ে করোনাভাইরাস সংক্রমণ ও প্রতিরোধসহ সার্বিক ব্যবস্থাপনা কমিটির সভায় সর্বাত্মক লকডাউন আরোপের সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে জারিকৃত গণবিজ্ঞপ্তির নির্দেশনাসমূহ সঠিকভাবে প্রতিপালিত হচ্ছে কিনা তা তদারকি করতেই মূলত এই মোবাইল কোর্ট পরিচালিত হয়।

মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা প্রদান করেন এপিবিএন, বাংলাদেশ আনসার র‍্যাব এবং থানা পুলিশের সদস্যগণ। করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধকল্পে জেলা প্রশাসন কর্তৃক মোবাইল কোর্টের অভিযান অব্যাহত থাকবে।
এছাড়া রূপসা উপজেলায় বিকাল ৫ টার পর সহকারি কমিশনার (ভুমি) মাসুম বিল্লার নেতৃত্বে কাজদিয়া বাজার, সামন্তসেনা বাজার, নৈহাটি বাজার এবং রূপসা বাজারে মোবাইল কোট পরিচালিত হয়। মোবাইল কোটে বিনা প্রয়োজনে বাড়ী থেকে বের হওয়া বেক্তি, মোটর সাইকেল, ইঞ্জিত চালিত গাড়ির মালিকদের জরিমানা করা সহ কঠিন ভাবে সতর্ক করা হয়। উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতির দোকান ৫ টার পর খোলা পাওয়া গেলে, দোকান খোলা রাখায় কঠিন সতর্কতা প্রদান করেন। মোট ৭ টি মামলায় ৩৯০০( তিন হাজার নয়শত টাকা) জরিমানা করা হয়। রূপসা ঘাটে ট্রলারে নদী পারাপার, সামাজিক দুরত্ব বজায় না রাখা এবং মাস্ক ব্যাবহার না করার অপরাধে মাঝি মোঃ মারুপ শেখ পিতা কালু ব্যাপারি কে,দন্ড বিধি২০১৮( ৬০)এর ২৬৯ ধারায় ৫ দিনের জেল প্রদান করা হয়।
ভ্রামমান আদালত পরিচালনার সময় পুলিশেরর এসআই মোঃ শহিদুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল,আনসার সদস্যগন,এবং সাংবাদিকগন সহযোগীতা প্রদান করেন। এই অভিযান বিকাল ৫ টা থেকে রাত ৯ টা পযন্ত চলে। সহকারি কমিশনার( ভুমি) মাসুম বিল্লাহ বলেন, আমাদের এই অভিযান যতদিন লক ডাউন থাকবে ততদিন অব্যাহত থাকবে।


এই বিভাগের আরো সংবাদ