ঢাকা ০১:১৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo বিগত দশ বছরে, চীনের নেটওয়ার্ক অবকাঠামোর অনেক উন্নতি হয়েছে Logo দৈনিক মুক্তির লড়াই পত্রিকার চতুর্থ বর্ষে পদার্পন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত Logo ক্ষুদ্রচাকশ্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত Logo বরগুনা প্রেসক্লাবে হামলার ঘটনায় মামলা, পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ Logo সরাইলে নদীর মাটি যাচ্ছে ইট ভাটায়, হুমকির মুখে ফসলি জমি Logo চীন বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যিক উন্নয়ন বাড়াতে চায়;চীনা বাণিজ্য মন্ত্রী Logo চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ২০২৪ সালকে ‘ভোগ বৃদ্ধির বছর’ হিসাবে মনোনীত করে Logo শাজাহান শিকদার সম্পাদনিত ‘সম্মিলিত কবিতার বই-৪’ এর মোড়ক উম্মোচন Logo নওগাঁয় ৭২ কেজি গাঁজাসহ মাদক এক ব্যবসায়ী আটক Logo ফুলবাড়ীতে কুকুরের কামড়ে ৮টি ছাগলের মৃত্যু

গরমে অতিষ্ঠ খুলনাবাসী

খুলনা প্রতিনিধিঃ জ্যৈষ্ঠ মাস মধু মাস। এই মাসেই সকল সুস্বাদু ফল পাওয়া যায়। ফলের দিক থেকে মধু মাস হলে এই মাসে তাপদাহ গরমে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে খুলনাবাসী।
সকাল হলেই সাধারন খেটে খাওয়া মানুষগুলি বেঁচে থাকার তাগিদে কর্মের সন্ধানে বের হয়। সারাদিন দিন পরিশ্রম করে যে রোজগার হয় তাই দিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে সুখে শান্তিতে দিন কাটে তাদের।
বর্তমানে তাপদাহের কারনে এই কর্মজীবি মানুষ গুলি পড়েছে সবচেয়ে বেশী বিপদে তারা কাজে গিয়ে গরমে কাজ না করে ফিরে আসছে বাড়িতে। গরমের কারনে ঘরে বাইরে কোথাও মিলছে না স্বস্তি। এর ভেতরে আবার শুরু হয়েছে বিদ্যুৎ এর লোড শোডিং। দিনের বেলায় বিদ্যুৎ না থাকলে মানুষ গাছের তলায় গিয়ে একটু শিতল হওয়ার চেষ্টা করলেও রাতে পড়ছে মহা বিপদে। রাতে ৩ থেকে ৪ বার লোড শোডিং হচ্ছে। একবার লোড শোডিং হলে ২ ঘন্টার কমে বিদ্যুৎ আসে না। ঘুম আসার পরে বিদ্যুৎ চলে গেলে ঘুম ভেঙ্গে যায়। না ঘুমিয়ে বসে থাকতে হয় বিদ্যুৎ এর আসায়। দিনে প্রচুর তাপদাহের কারনে মানুষ খুব বেশী প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না। বাজারের ব্যাবসায়ীগন গরমের মধ্যে দোকানে এসে বসলেও ক্রেতা শুন্য হয়ে পড়েছে বাজার। কোন বেচাকেনা নেই বললেই চলে। প্রচন্ড তাপদহের ফলে রাস্তার পিচ গলে গলে পড়ছে। ছোট, বৃদ্ধ, যুবক সকল শ্রেনীর মানুষ হয়ে পড়ছে অসুস্থ্য। হাসপাতাল গুলিতে রোগীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। মানুষের পাশাপাশি অসুস্থ হয়ে পড়ছে গৃহ পালিত পশু পাখি। গাছের ফল ঝরে যাচ্ছে। পাতা শুকিয়ে গাছ মারা যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। মৎস্য ঘেরে সল্প পানি থাকায় পানি গরম হয়ে মাছ মারা যাচ্ছে এবং নতুন মাছ ছাড়তে পারছে না। বীজ রোপনের সময় হলেও কৃষক পারছে না বীজ রোপন করতে।
এই প্রচন্ড তাপদাহ থেকে বাঁচতে একটু বৃষ্টির আশায় বুক বেধে বসে আছে, মহান সৃষ্টি কর্তার কৃপার আশায়।

বিগত দশ বছরে, চীনের নেটওয়ার্ক অবকাঠামোর অনেক উন্নতি হয়েছে

গরমে অতিষ্ঠ খুলনাবাসী

আপডেট সময় ০৩:৩০:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ৬ জুন ২০২৩

খুলনা প্রতিনিধিঃ জ্যৈষ্ঠ মাস মধু মাস। এই মাসেই সকল সুস্বাদু ফল পাওয়া যায়। ফলের দিক থেকে মধু মাস হলে এই মাসে তাপদাহ গরমে অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছে খুলনাবাসী।
সকাল হলেই সাধারন খেটে খাওয়া মানুষগুলি বেঁচে থাকার তাগিদে কর্মের সন্ধানে বের হয়। সারাদিন দিন পরিশ্রম করে যে রোজগার হয় তাই দিয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে সুখে শান্তিতে দিন কাটে তাদের।
বর্তমানে তাপদাহের কারনে এই কর্মজীবি মানুষ গুলি পড়েছে সবচেয়ে বেশী বিপদে তারা কাজে গিয়ে গরমে কাজ না করে ফিরে আসছে বাড়িতে। গরমের কারনে ঘরে বাইরে কোথাও মিলছে না স্বস্তি। এর ভেতরে আবার শুরু হয়েছে বিদ্যুৎ এর লোড শোডিং। দিনের বেলায় বিদ্যুৎ না থাকলে মানুষ গাছের তলায় গিয়ে একটু শিতল হওয়ার চেষ্টা করলেও রাতে পড়ছে মহা বিপদে। রাতে ৩ থেকে ৪ বার লোড শোডিং হচ্ছে। একবার লোড শোডিং হলে ২ ঘন্টার কমে বিদ্যুৎ আসে না। ঘুম আসার পরে বিদ্যুৎ চলে গেলে ঘুম ভেঙ্গে যায়। না ঘুমিয়ে বসে থাকতে হয় বিদ্যুৎ এর আসায়। দিনে প্রচুর তাপদাহের কারনে মানুষ খুব বেশী প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না। বাজারের ব্যাবসায়ীগন গরমের মধ্যে দোকানে এসে বসলেও ক্রেতা শুন্য হয়ে পড়েছে বাজার। কোন বেচাকেনা নেই বললেই চলে। প্রচন্ড তাপদহের ফলে রাস্তার পিচ গলে গলে পড়ছে। ছোট, বৃদ্ধ, যুবক সকল শ্রেনীর মানুষ হয়ে পড়ছে অসুস্থ্য। হাসপাতাল গুলিতে রোগীর সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। মানুষের পাশাপাশি অসুস্থ হয়ে পড়ছে গৃহ পালিত পশু পাখি। গাছের ফল ঝরে যাচ্ছে। পাতা শুকিয়ে গাছ মারা যাওয়ার উপক্রম হয়েছে। মৎস্য ঘেরে সল্প পানি থাকায় পানি গরম হয়ে মাছ মারা যাচ্ছে এবং নতুন মাছ ছাড়তে পারছে না। বীজ রোপনের সময় হলেও কৃষক পারছে না বীজ রোপন করতে।
এই প্রচন্ড তাপদাহ থেকে বাঁচতে একটু বৃষ্টির আশায় বুক বেধে বসে আছে, মহান সৃষ্টি কর্তার কৃপার আশায়।