ঢাকা ০১:৩০ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo বিগত দশ বছরে, চীনের নেটওয়ার্ক অবকাঠামোর অনেক উন্নতি হয়েছে Logo দৈনিক মুক্তির লড়াই পত্রিকার চতুর্থ বর্ষে পদার্পন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত Logo ক্ষুদ্রচাকশ্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত Logo বরগুনা প্রেসক্লাবে হামলার ঘটনায় মামলা, পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ Logo সরাইলে নদীর মাটি যাচ্ছে ইট ভাটায়, হুমকির মুখে ফসলি জমি Logo চীন বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যিক উন্নয়ন বাড়াতে চায়;চীনা বাণিজ্য মন্ত্রী Logo চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ২০২৪ সালকে ‘ভোগ বৃদ্ধির বছর’ হিসাবে মনোনীত করে Logo শাজাহান শিকদার সম্পাদনিত ‘সম্মিলিত কবিতার বই-৪’ এর মোড়ক উম্মোচন Logo নওগাঁয় ৭২ কেজি গাঁজাসহ মাদক এক ব্যবসায়ী আটক Logo ফুলবাড়ীতে কুকুরের কামড়ে ৮টি ছাগলের মৃত্যু

গাজীপুরে আ’লীগের মূল্যায়ন সভায় দুই গ্রুপের চেয়ার ছোড়াছুড়ি

গাজীপুরে সিটি করপোরেশন নির্বাচনপরবর্তী মূল্যায়ন সভায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে লোহার চেয়ার ছোড়াছুড়ির ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ৬ জন আহত হয়েছেন।
সোমবার গাজীপুরের বোর্ড বাজার এলাকায় মোল্লা কনভেনশন সেন্টারে গাছা থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সিটি নির্বাচনপরবর্তী মূল্যায়ন সভা আয়োজন করা হয়। গাজীপুর সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমত উল্লা খানও সভায় উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের এক কর্মীর বক্তব্য দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে সেখানে চেয়ার ছোড়াছুড়ি ঘটনাও ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

এ ঘটনায় আহতদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা হাসান উদ্দিন মাস্টার, এমারত হোসেন, ফরহাদ হোসেন রফিকুল ইসলাম, রমজান আলী ও আশিকুর রহমান।

 

আওয়ামী লীগ নেতা মামুন মণ্ডল বলেন, সিটি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর পরাজয়ের কারণ উদঘাটনে গাছা থানা আওয়ামী লীগ মূল্যায়ন সভার আয়োজন করে। এ সভায় আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মীদের বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ না দিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা খাতুনের এক কর্মীকে বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়। তাদের কারণেই নৌকার পরাজিত হয়েছে।

তিনি জানান, বক্তব্য দেওয়ার জন্য ওই ব্যক্তির নাম ঘোষণা করা হলে সভায় উপস্থিত নৌকার কর্মীরা আপত্তি জানান। এ নিয়ে হট্টগোল শুরু হয়। একপর্যায়ে চেয়ার ছোড়াছুড়িও চলে।

গাছা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মহিউদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন সামান্য আহত হন। পরে নৌকার প্রার্থী আজমত উল্লা খান উত্তেজিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বক্তব্য দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। এর আগেই ঘটনাস্থলে পুলিশ হাজির হয়।

এদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল সভাস্থলে উপস্থিত হন। এরপর তার উপস্থিতিতেই দ্বিতীয় দফায় হট্টগোলের চেষ্টা চালানো হয়। পরে অবশ্য আওয়ামী লীগের বিক্ষুদ্ধ নেতাকর্মীরা সে সুযোগ পায়নি।

ট্যাগস
আপলোডকারীর তথ্য

বিগত দশ বছরে, চীনের নেটওয়ার্ক অবকাঠামোর অনেক উন্নতি হয়েছে

গাজীপুরে আ’লীগের মূল্যায়ন সভায় দুই গ্রুপের চেয়ার ছোড়াছুড়ি

আপডেট সময় ০৭:২৩:০৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৫ জুন ২০২৩

গাজীপুরে সিটি করপোরেশন নির্বাচনপরবর্তী মূল্যায়ন সভায় আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের মধ্যে লোহার চেয়ার ছোড়াছুড়ির ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত ৬ জন আহত হয়েছেন।
সোমবার গাজীপুরের বোর্ড বাজার এলাকায় মোল্লা কনভেনশন সেন্টারে গাছা থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সিটি নির্বাচনপরবর্তী মূল্যায়ন সভা আয়োজন করা হয়। গাজীপুর সিটি নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমত উল্লা খানও সভায় উপস্থিত ছিলেন।

এ সময় আওয়ামী লীগের এক কর্মীর বক্তব্য দেওয়াকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। একপর্যায়ে সেখানে চেয়ার ছোড়াছুড়ি ঘটনাও ঘটে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

এ ঘটনায় আহতদের মধ্যে রয়েছেন আওয়ামী লীগ নেতা হাসান উদ্দিন মাস্টার, এমারত হোসেন, ফরহাদ হোসেন রফিকুল ইসলাম, রমজান আলী ও আশিকুর রহমান।

 

আওয়ামী লীগ নেতা মামুন মণ্ডল বলেন, সিটি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর পরাজয়ের কারণ উদঘাটনে গাছা থানা আওয়ামী লীগ মূল্যায়ন সভার আয়োজন করে। এ সভায় আওয়ামী লীগের ত্যাগী নেতাকর্মীদের বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ না দিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী জায়েদা খাতুনের এক কর্মীকে বক্তব্য দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হয়। তাদের কারণেই নৌকার পরাজিত হয়েছে।

তিনি জানান, বক্তব্য দেওয়ার জন্য ওই ব্যক্তির নাম ঘোষণা করা হলে সভায় উপস্থিত নৌকার কর্মীরা আপত্তি জানান। এ নিয়ে হট্টগোল শুরু হয়। একপর্যায়ে চেয়ার ছোড়াছুড়িও চলে।

গাছা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি মহিউদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন সামান্য আহত হন। পরে নৌকার প্রার্থী আজমত উল্লা খান উত্তেজিত নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বক্তব্য দিলে পরিস্থিতি শান্ত হয়। এর আগেই ঘটনাস্থলে পুলিশ হাজির হয়।

এদিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে এলে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল সভাস্থলে উপস্থিত হন। এরপর তার উপস্থিতিতেই দ্বিতীয় দফায় হট্টগোলের চেষ্টা চালানো হয়। পরে অবশ্য আওয়ামী লীগের বিক্ষুদ্ধ নেতাকর্মীরা সে সুযোগ পায়নি।