ঢাকা ০৯:২৭ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৯ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo আমতলীতে ব্রীজ ভেঙ্গে ৯জন নিহতের ঘটনায় দু’টি তদন্ত কমিটি গঠিত Logo রূপসায় আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত Logo বরুড়া ডকটরস কমিউনিটি হসপিটাল পরিদর্শনে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা Logo রাণীনগর গলায় ফাঁস দিয়ে যুবকের আত্মহত্যা Logo ভারতের সাথে সমঝোতা চুক্তি স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব বিকিয়ে দেওয়া হয়েছে Logo সরাইলে প্রবাসী স্বামীর কোটি টাকা নিয়ে প্রেমিকের সংসারে লিপি Logo মুরাদনগরে আওয়ামী লীগের বর্ণাঢ্য আয়োজনে প্লান্টিনাম জয়ন্তী পালিত Logo বরুড়ায় পৃথক পৃথকভাবে আ.লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী পালিত Logo সময়ের সাহসী সন্তান- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান Logo রাঙামাটিতে আওয়ামী লীগের ৭৫ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

জনগণের প্রতি অবিচার বন্ধ না হলে এক দফার আন্দোলন..নাগরিক মঞ্চ

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ সোমবার নাগরিক মঞ্চের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিদ্যুৎ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল পূর্বক সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমান সরকার বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করে জনগণের অর্থলুটে নিয়ে দুর্নীতিবাজ লুটেরাদের বিদেশে অর্থ পাচারের পথ সুগম করেছে। মানুষ দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন উর্ধগতির কারণে অর্ধাহারে, অনাহারে দিন কাটাচ্ছে। বর্তমানে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি জনগণের মরার উপর খড়ার ঘায়ে পরিণত হয়েছে। রেন্টাল কুইক রেন্টালের নামে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার কথা বলে বার বার বিদুতের মূল্য বৃদ্ধি করে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে ব্যর্থ হয়েছে। গ্যাসের অভাবে কল-কারখানা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে এবং আবাসনে গ্যাসের তীব্র সংকটের কারণে সময় মতো গৃহস্থলির রান্নার কাজ চলছে না। দুর্নীতিবাজ লুটেরাদের বিদেশে অর্থ পাচারের কারণে দেশের রিজাভ শূণ্যের কোঠায়। সরকারের দুর্নীতিবাজ মন্ত্রী, এমপি ও আমলারা বিভিন্ন মেগা প্রকল্পের নামে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটে নিয়ে কানাডা, আমেরিকা, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ভারতসহ বিদেশের বিভিন্ন জায়গায় অট্টালিকা নির্মাণ করছে। অথচ ডলারের অভাবে বিবিন্ন কোম্পানীগুলো এলসি খুলতে পারছে না। অচিরেই ঔষুধ শিল্পসহ বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে কাঁচামালের তীব্র সংকট দেখা দিবে। অন্যদিকে জনগণের প্রতি যখন রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ মহল থেকে একের পর এক অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়া হয় তখন জনগণও অতিষ্ট হয়ে রাস্তায় বেরিয়ে আসতে বাধ্য হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে দেশপ্রেমিক নাগরিক পাটির চেয়ারম্যান ও নাগরিক মঞ্চের সমন্বয়কারী আহসান উল্লাহ শামীম বলেন, সরকার দেশে রাজনৈতিক অঙ্গনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে সর্বত্র অসান্তির দাবানল ছড়িয়ে দিচ্ছে। দেশে বিরোধী মতের রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের সভা-সমাবেশ ও বক্তব্য সহ্য করতে পারছে না বলেই জনগণের পক্ষে নিবেদিত প্রাণ রাজনীতিবিদদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে বছরের পর বছর জেলে বন্দি করে রেখেছেন। আমরা এই সমাবেশ থেকে জনগণের পক্ষে আন্দোলনকারী বিরোধীদল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ এবং জামায়াতের কেন্দ্রীয় আমিরসহ সকল নেতৃবৃন্দ ও আলেম ওলামাদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি করছি।

সভায় মুসলিম সমাজের চেয়ারম্যান ও নাগরিক মঞ্চের সমন্বয়ক মোঃ মাসুদ হোসেন বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করে জাতির সামনে দেশের সঠিক চিত্র তুলে ধরতে দিচ্ছে না। একের পর এক গ্যাস, বিদ্যুৎসহ জ্বালানী ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি করে জনগণের অর্থ লুটে নিচ্ছে। অনতিবিলম্বে দেশের সর্বস্তরের জনগণকে রাজপথে নেমে এসে এই ফ্যাসিস্ট সরকারের বিদায় করতে হবে।

মঞ্চের অন্যতম সমন্বয়ক দেশরক্ষা আন্দোলনের সভঅপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এম সানোয়ার হোসেন বলেন, জনগণের দাবি আদায় হবে তার প্রমাণ আজ নাগরিক মঞ্চের সমাবেশে বিভিন্ন দল-মতের নেতৃবৃন্দ সামিল হয়েছে। ভবিষ্যতে জনগণের দাবি আদায়ে এ সরকার যদি টালবাহানা করে তাহলে এক দফার কর্মসূচি দিয়ে এ সরকারের কাছ থেকে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আদায় করা হবে।

দেশপ্রেমিক নাগির পার্টির মহাসচিব ডা. মোঃ শওকত হোসেনের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ রিপাবলিকান পার্টির চেয়ারম্যান ও নাগরিক মঞ্চের সমন্বয়ক অধ্যাপক বাজলুর রহমান আমিনী, বাংলাদেশ ইসলামী সমাজতান্ত্রিক দলের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার হাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির চেয়ারম্যান ও দৈনিক সরকার পত্রিকার সম্পাদক মাওলানা ওবায়দুল হক, মহসীন হোসেন প্রমুখ।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

আমতলীতে ব্রীজ ভেঙ্গে ৯জন নিহতের ঘটনায় দু’টি তদন্ত কমিটি গঠিত

জনগণের প্রতি অবিচার বন্ধ না হলে এক দফার আন্দোলন..নাগরিক মঞ্চ

আপডেট সময় ০৮:৫০:১৬ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২৩

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ সোমবার নাগরিক মঞ্চের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিদ্যুৎ ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল পূর্বক সমাবেশে নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমান সরকার বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করে জনগণের অর্থলুটে নিয়ে দুর্নীতিবাজ লুটেরাদের বিদেশে অর্থ পাচারের পথ সুগম করেছে। মানুষ দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন উর্ধগতির কারণে অর্ধাহারে, অনাহারে দিন কাটাচ্ছে। বর্তমানে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি জনগণের মরার উপর খড়ার ঘায়ে পরিণত হয়েছে। রেন্টাল কুইক রেন্টালের নামে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার কথা বলে বার বার বিদুতের মূল্য বৃদ্ধি করে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে ব্যর্থ হয়েছে। গ্যাসের অভাবে কল-কারখানা বন্ধ হয়ে যাচ্ছে এবং আবাসনে গ্যাসের তীব্র সংকটের কারণে সময় মতো গৃহস্থলির রান্নার কাজ চলছে না। দুর্নীতিবাজ লুটেরাদের বিদেশে অর্থ পাচারের কারণে দেশের রিজাভ শূণ্যের কোঠায়। সরকারের দুর্নীতিবাজ মন্ত্রী, এমপি ও আমলারা বিভিন্ন মেগা প্রকল্পের নামে হাজার হাজার কোটি টাকা লুটে নিয়ে কানাডা, আমেরিকা, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ভারতসহ বিদেশের বিভিন্ন জায়গায় অট্টালিকা নির্মাণ করছে। অথচ ডলারের অভাবে বিবিন্ন কোম্পানীগুলো এলসি খুলতে পারছে না। অচিরেই ঔষুধ শিল্পসহ বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্ঠানে কাঁচামালের তীব্র সংকট দেখা দিবে। অন্যদিকে জনগণের প্রতি যখন রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ মহল থেকে একের পর এক অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দেয়া হয় তখন জনগণও অতিষ্ট হয়ে রাস্তায় বেরিয়ে আসতে বাধ্য হয়।

বিক্ষোভ সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে দেশপ্রেমিক নাগরিক পাটির চেয়ারম্যান ও নাগরিক মঞ্চের সমন্বয়কারী আহসান উল্লাহ শামীম বলেন, সরকার দেশে রাজনৈতিক অঙ্গনে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে সর্বত্র অসান্তির দাবানল ছড়িয়ে দিচ্ছে। দেশে বিরোধী মতের রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দের সভা-সমাবেশ ও বক্তব্য সহ্য করতে পারছে না বলেই জনগণের পক্ষে নিবেদিত প্রাণ রাজনীতিবিদদের অন্যায়ভাবে গ্রেফতার করে বছরের পর বছর জেলে বন্দি করে রেখেছেন। আমরা এই সমাবেশ থেকে জনগণের পক্ষে আন্দোলনকারী বিরোধীদল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ এবং জামায়াতের কেন্দ্রীয় আমিরসহ সকল নেতৃবৃন্দ ও আলেম ওলামাদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবি করছি।

সভায় মুসলিম সমাজের চেয়ারম্যান ও নাগরিক মঞ্চের সমন্বয়ক মোঃ মাসুদ হোসেন বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করে সরকার গণমাধ্যমের কণ্ঠরোধ করে জাতির সামনে দেশের সঠিক চিত্র তুলে ধরতে দিচ্ছে না। একের পর এক গ্যাস, বিদ্যুৎসহ জ্বালানী ও নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি করে জনগণের অর্থ লুটে নিচ্ছে। অনতিবিলম্বে দেশের সর্বস্তরের জনগণকে রাজপথে নেমে এসে এই ফ্যাসিস্ট সরকারের বিদায় করতে হবে।

মঞ্চের অন্যতম সমন্বয়ক দেশরক্ষা আন্দোলনের সভঅপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা এম সানোয়ার হোসেন বলেন, জনগণের দাবি আদায় হবে তার প্রমাণ আজ নাগরিক মঞ্চের সমাবেশে বিভিন্ন দল-মতের নেতৃবৃন্দ সামিল হয়েছে। ভবিষ্যতে জনগণের দাবি আদায়ে এ সরকার যদি টালবাহানা করে তাহলে এক দফার কর্মসূচি দিয়ে এ সরকারের কাছ থেকে তত্ত্বাবধায়ক সরকার আদায় করা হবে।

দেশপ্রেমিক নাগির পার্টির মহাসচিব ডা. মোঃ শওকত হোসেনের সঞ্চালনায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ রিপাবলিকান পার্টির চেয়ারম্যান ও নাগরিক মঞ্চের সমন্বয়ক অধ্যাপক বাজলুর রহমান আমিনী, বাংলাদেশ ইসলামী সমাজতান্ত্রিক দলের চেয়ারম্যান ইঞ্জিনিয়ার হাফিজুর রহমান, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির চেয়ারম্যান ও দৈনিক সরকার পত্রিকার সম্পাদক মাওলানা ওবায়দুল হক, মহসীন হোসেন প্রমুখ।