ঢাকা ০৮:৪৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিদায় ও বরন অনুষ্ঠিত Logo প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল-জয়দেবপুর থানার ওসির কান্ড! Logo রাজউক আইন ভঙ্গ করে বহুতল ভবন/মার্কেট নির্মাণ (পর্ব-২) Logo বড় ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে দুই ভাইয়ের মৃত্যু Logo ঘূর্ণিঝড় রেমাল’র প্রস্তুতি পর্যবেক্ষণে দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী মুহিব Logo সাদুল্লাপুরে ১০কেজি শুকনো গাঁজাসহ দুইজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার Logo এমপি আনারের মাংস কেটে কিমা করা কসাই জিহাদের ১২ দিনের রিমান্ড Logo চাকরি গেলেও কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা করতেন শাহারুল Logo বাঘাইছড়ি ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত Logo ঝিনাইদহে দুই মহিলার গলা কেটে দুই লক্ষ টাকা ছিনতাই

জুড়ীতে ভাসুর পুত্রের হাত ধরে গৃহবধূ উধাও

জুড়ী (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধিঃ
মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার কচুরগুল গ্রাম থেকে প্রেমের টানে ভাসুরের ছেলের হাত ধরে কেনিজ আক্তার জুমি নামে এক গৃহবধূ পালিয়ে গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার (২২ জানুয়ারি) দুপুরে।

সরজমিনে জানা গেছে, ওই গ্রামের মৃত ফরমুজ আলীর সৌদি প্রবাসী পূএ আসকর আলীর ( ৪০) এর সাথে একই গ্রামের মৃত সফিক উদ্দিনের মেয়ে কেনিজ আক্তার জুমি (৩০) এর সাথে ১৫ বছর পুর্বে বিয়ে হয়। বিয়ের পর আসকর আলী আবারও প্রবাসে চলে যান। বিয়ের পর তাদের দাম্পত্য জীবন সুখেই কাটছিল। বিয়ের পর আসকর পাঁচবার প্রবাস থেকে দেশে আসেন।

দাম্পত্য জীবনে আসকরের ৭ বছরের আবদুল্লাহ নামে একটি পূএ সন্তানের জন্ম নেয়। আসকর সর্বশেষ ২০২২ সালে দেশে আসেন। দুই মাস অবস্হান করার পর আবারো প্রবাসে চলে যান।
আসকর প্রবাসে চলে যাওয়ার সুযোগে তারই আপন বড় ভাই আসিক আলীর পূএ রাহিন (২২) আসকেরের ঘরে যাওয়া আাসা করতে থাকে। আসা যাওয়ার এক পর্যায়ে রাহিনের কু-দৃষ্টি পড়ে চাচী কেনিজের উপর। রাহিন চাচী কেনিজ আক্তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিলে সে প্রস্তাবে সাড়া দেয়। এর পর থেকে চলতে থাকে রাহিন ও কেনিজের গোপন অভিসার।

এক সময় রাহিন ও কেনিজ বেপরুয়া চলা ফেরা শুরু করে। কেনিজের ঘরে রাহিনের ঘন ঘন আসা যাওয়ার বিষয়টি ভাল ভাবে নেননি আত্মীয়-স্বজনরা। তারা রাহিন ও কেনিজ আক্তারকে এ পথ থেকে সরে আসার জন্য সতর্ক করেন। এক পর্যায়ে তাদের অবৈধ সম্পর্কের বিষয়টি এলাকায় চাউর হয়ে যায়।

তখন রাহিন ও কেনিজ পালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। ঘটনার দিন দুপুরে সুযোগ বুঝে কেনিজ আক্তার পুএ আব্দুল্লাহকে সাথে পিত্রালয়ে বেড়ানোর কথা বলে নগদ ১৫ লাখ টাকা, চার ভরি স্বর্ণালংকারসহ মোট ২০ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে অজানার উদ্দেশ্যে পারি জমায়।

সৌদি আরব থেকে মুঠো ফোনে, কেনিজের স্বামী আসকর আলী জানান, কেনিজ আক্তার আমার কষ্টের জমানো টাকা পয়সা ও সোনা গহনাসহ সন্তানকে নিয়ে পালিয়ে গেছে। আমি নিঃস্ব হয়ে গেছি। আমি আমার কলিজার টুকরো সন্তানকে ফেরত চাই বলে হাউ মাউ করে কেঁদে ফেলেন।

সোমবার আসকর আলীর ভাই হারিছ আলী বাদী হয়ে জুড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

জুড়ী থানার এস আই মো. ফরহাদ অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আপলোডকারীর তথ্য

বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিদায় ও বরন অনুষ্ঠিত

জুড়ীতে ভাসুর পুত্রের হাত ধরে গৃহবধূ উধাও

আপডেট সময় ০১:৫৯:০৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২৫ জানুয়ারী ২০২৩

জুড়ী (মৌলভীবাজার) প্রতিনিধিঃ
মৌলভীবাজারের জুড়ী উপজেলার কচুরগুল গ্রাম থেকে প্রেমের টানে ভাসুরের ছেলের হাত ধরে কেনিজ আক্তার জুমি নামে এক গৃহবধূ পালিয়ে গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে রোববার (২২ জানুয়ারি) দুপুরে।

সরজমিনে জানা গেছে, ওই গ্রামের মৃত ফরমুজ আলীর সৌদি প্রবাসী পূএ আসকর আলীর ( ৪০) এর সাথে একই গ্রামের মৃত সফিক উদ্দিনের মেয়ে কেনিজ আক্তার জুমি (৩০) এর সাথে ১৫ বছর পুর্বে বিয়ে হয়। বিয়ের পর আসকর আলী আবারও প্রবাসে চলে যান। বিয়ের পর তাদের দাম্পত্য জীবন সুখেই কাটছিল। বিয়ের পর আসকর পাঁচবার প্রবাস থেকে দেশে আসেন।

দাম্পত্য জীবনে আসকরের ৭ বছরের আবদুল্লাহ নামে একটি পূএ সন্তানের জন্ম নেয়। আসকর সর্বশেষ ২০২২ সালে দেশে আসেন। দুই মাস অবস্হান করার পর আবারো প্রবাসে চলে যান।
আসকর প্রবাসে চলে যাওয়ার সুযোগে তারই আপন বড় ভাই আসিক আলীর পূএ রাহিন (২২) আসকেরের ঘরে যাওয়া আাসা করতে থাকে। আসা যাওয়ার এক পর্যায়ে রাহিনের কু-দৃষ্টি পড়ে চাচী কেনিজের উপর। রাহিন চাচী কেনিজ আক্তাকে প্রেমের প্রস্তাব দিলে সে প্রস্তাবে সাড়া দেয়। এর পর থেকে চলতে থাকে রাহিন ও কেনিজের গোপন অভিসার।

এক সময় রাহিন ও কেনিজ বেপরুয়া চলা ফেরা শুরু করে। কেনিজের ঘরে রাহিনের ঘন ঘন আসা যাওয়ার বিষয়টি ভাল ভাবে নেননি আত্মীয়-স্বজনরা। তারা রাহিন ও কেনিজ আক্তারকে এ পথ থেকে সরে আসার জন্য সতর্ক করেন। এক পর্যায়ে তাদের অবৈধ সম্পর্কের বিষয়টি এলাকায় চাউর হয়ে যায়।

তখন রাহিন ও কেনিজ পালিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। ঘটনার দিন দুপুরে সুযোগ বুঝে কেনিজ আক্তার পুএ আব্দুল্লাহকে সাথে পিত্রালয়ে বেড়ানোর কথা বলে নগদ ১৫ লাখ টাকা, চার ভরি স্বর্ণালংকারসহ মোট ২০ লাখ টাকার মালামাল নিয়ে অজানার উদ্দেশ্যে পারি জমায়।

সৌদি আরব থেকে মুঠো ফোনে, কেনিজের স্বামী আসকর আলী জানান, কেনিজ আক্তার আমার কষ্টের জমানো টাকা পয়সা ও সোনা গহনাসহ সন্তানকে নিয়ে পালিয়ে গেছে। আমি নিঃস্ব হয়ে গেছি। আমি আমার কলিজার টুকরো সন্তানকে ফেরত চাই বলে হাউ মাউ করে কেঁদে ফেলেন।

সোমবার আসকর আলীর ভাই হারিছ আলী বাদী হয়ে জুড়ী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

জুড়ী থানার এস আই মো. ফরহাদ অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।