ঢাকা ০১:২৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ১৯ জুলাই ২০২৪, ৩ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo কুমিল্লা- সিলেট মহাসড়ক অবরুদ্ধ করে রেখেছে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা Logo ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা’র সহধর্মীনি এডভোকেট সিগমা হুদার ইন্তেকাল Logo আমতলীতে ২য় শ্রেণির মাদ্রাসা ছাত্রী ধর্ষণ, ধর্ষক আটক Logo বাঘাইছড়িতে ছাত্রলীগের প্রতিবাদ মিছিল Logo সরাইলে কোটাবিরোধী আন্দোলনকারীদের সাথে ছাত্রলীগের সংঘর্ষ Logo ভাঙ্গায় দুই বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-৩ আহত ৪০ Logo রূপসায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন Logo শিক্ষার্থীদের উপর হামলার প্রতিবাদে মুরাদনগরে বিক্ষোভ ও সড়ক অবরোধ Logo সদরপুরে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সাথে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া Logo যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাসিম এর মুত‍্যু বার্ষিকী পালিত

ঝিনাইদহে বেতন বাড়ানোর দাবি করায় নৈশ প্রহরীকে চাকুরী থেকে অব্যাহতি

শাহিনুর রহমান পিন্টু, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহের বেতন বাড়ানোর দাবি নিয়ে অনশন ও আত্মহত্যার হুমকি দেওয়ার কালীগঞ্জ নলডাঙ্গা পোষ্ট অফিসের নৈশ প্রহরী ফরিদ উদ্দীনকে চাকুরী থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।
গত ১৮ ডিসেম্বর পোষ্ট অফিসের মাধ্যমেই তার ওই অব্যাহতি পত্রটি হাতে পায়। ঝিনাইদহ ডাক বিভাগের পরিদর্শক আফিয়া খাতুন স্বাক্ষরিত গত ১৫ ডিসেম্বর ডাক বিভাগের এক প্যাডে ইডি নৈশ প্রহরী ফরিদ উদ্দিনকে ওই ’পুট অব ডিউটির’ আদেশটি দেন। তাতে উল্লেখ করা হয়েছে, সরকারী তথ্য, সরকারী সম্পদ নিরাপত্তা ও অসাদচারনের দায়ে ওই কর্মচারীর বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যাবস্থাটি নেওয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ১৪ ডিসেম্বর সারারাত ডিউটি শেষে ফরিদ উদ্দিন পোষ্ট অফিসের মধ্যেই ছিল। সকালে অফিসের অন্য কর্মচারীরা এসে তাকে দরজা খুলতে বললেও সে দরজা না খুলে বেতন না বাড়ালে আত্মহত্যার হুমকি দিয়ে অনশন করতে থাকে। পরে কালীগঞ্জ থানার পুলিশ এসে অফিসের দরজা খুলে নৈশ প্রহরীকে বের করে।
নৈশ প্রহরী ফরিদ জানায়, বেতন বাড়ানোর দাবী করায় তাকে অন্যায়ভাবে চাকুরী থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে। সরকারীভাবেই গত ২০/০৬/২০ ইং তারিখে তার নিয়োগ হয়। কিন্তু চাকুরীর নিয়মকানুন বা শোকজ নোটিশ না করেই কর্তৃপক্ষ তাকে একতরফা ভাবে ওই শাস্তি দিয়েছে। এটা তার উপর অন্যায় করা হয়েছে। সে জানায়, তার বেতন মাত্র ৪ হাজার টাকা। যা দিয়ে ৭ সদস্যর সংসারে ভরনপোষন চালাতে হিমশিম খাচ্ছিল। তাই সে ক্ষোভে দুঃখে অনশন করেছিল। ফরিদ আরো জানায়, ভিটেবাড়ি ছাড়া আর কিছুই নেই। বর্তমানে দ্রব্যমূল্যের উবর্ধগতিতে সংসারের যাবতীয় খরচ মেটাতে না পারাতে সে ওইদিন অফিসের মধ্যেই অনশন করেছিল।
নৈশ প্রহরী ফরিদের অব্যহতির বিষয়টি জানতে পুট অব ডিউটি আদেশ পত্রে স্বাক্ষরিত ঝিনাইদহ ডাক বিভাগের পরিদর্শক আফিয়া খাতুনের মোবাইলে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।
এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ নলডাঙ্গা পোষ্ট অফিসের পোষ্ট মাষ্টার আব্দুল মালেক জানান, নৈশ প্রহরীর পুট অব ডিউটির আদেশ পত্রটি তার দপ্তরে এসেছে। তবে, কেন বা কোন অভিযোগে তাকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে তা পত্রের স্বাক্ষরিত কর্মকর্তাই ভাল বলতে পারবেন। আর কোন শোকজ ছাড়াই চাকুরী থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া যায় কি না এমন প্রশ্নের জবাবে বিষয়টি তিনি এড়িয়ে যান।
বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ইডি কর্মচারী ইউনিয়নের কেন্দ্রিয় কমিটির সাধারন সম্পাদক এম এ হাকিম বলেন, বেতন বাড়ানোর দাবী তোলা কোন অপরাধ হতে পারে না। কালীগঞ্জের ফরিদ উদ্দিন নামে এক নৈশ কর্মচারীকে সাময়িক কর্মচুত্যর কথা তিনি শুনেছেন। তবে কি কারনে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যাবস্থা নেওয়া হয়েছে বিষযটি জেনেই সংগঠন তার ব্যাবস্থা নিবেন বলে জানান।

আপলোডকারীর তথ্য

কুমিল্লা- সিলেট মহাসড়ক অবরুদ্ধ করে রেখেছে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা

ঝিনাইদহে বেতন বাড়ানোর দাবি করায় নৈশ প্রহরীকে চাকুরী থেকে অব্যাহতি

আপডেট সময় ০১:০৬:৩৯ অপরাহ্ন, বুধবার, ২১ ডিসেম্বর ২০২২

শাহিনুর রহমান পিন্টু, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ ঝিনাইদহের বেতন বাড়ানোর দাবি নিয়ে অনশন ও আত্মহত্যার হুমকি দেওয়ার কালীগঞ্জ নলডাঙ্গা পোষ্ট অফিসের নৈশ প্রহরী ফরিদ উদ্দীনকে চাকুরী থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।
গত ১৮ ডিসেম্বর পোষ্ট অফিসের মাধ্যমেই তার ওই অব্যাহতি পত্রটি হাতে পায়। ঝিনাইদহ ডাক বিভাগের পরিদর্শক আফিয়া খাতুন স্বাক্ষরিত গত ১৫ ডিসেম্বর ডাক বিভাগের এক প্যাডে ইডি নৈশ প্রহরী ফরিদ উদ্দিনকে ওই ’পুট অব ডিউটির’ আদেশটি দেন। তাতে উল্লেখ করা হয়েছে, সরকারী তথ্য, সরকারী সম্পদ নিরাপত্তা ও অসাদচারনের দায়ে ওই কর্মচারীর বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যাবস্থাটি নেওয়া হয়েছে।
উল্লেখ্য, গত ১৪ ডিসেম্বর সারারাত ডিউটি শেষে ফরিদ উদ্দিন পোষ্ট অফিসের মধ্যেই ছিল। সকালে অফিসের অন্য কর্মচারীরা এসে তাকে দরজা খুলতে বললেও সে দরজা না খুলে বেতন না বাড়ালে আত্মহত্যার হুমকি দিয়ে অনশন করতে থাকে। পরে কালীগঞ্জ থানার পুলিশ এসে অফিসের দরজা খুলে নৈশ প্রহরীকে বের করে।
নৈশ প্রহরী ফরিদ জানায়, বেতন বাড়ানোর দাবী করায় তাকে অন্যায়ভাবে চাকুরী থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে। সরকারীভাবেই গত ২০/০৬/২০ ইং তারিখে তার নিয়োগ হয়। কিন্তু চাকুরীর নিয়মকানুন বা শোকজ নোটিশ না করেই কর্তৃপক্ষ তাকে একতরফা ভাবে ওই শাস্তি দিয়েছে। এটা তার উপর অন্যায় করা হয়েছে। সে জানায়, তার বেতন মাত্র ৪ হাজার টাকা। যা দিয়ে ৭ সদস্যর সংসারে ভরনপোষন চালাতে হিমশিম খাচ্ছিল। তাই সে ক্ষোভে দুঃখে অনশন করেছিল। ফরিদ আরো জানায়, ভিটেবাড়ি ছাড়া আর কিছুই নেই। বর্তমানে দ্রব্যমূল্যের উবর্ধগতিতে সংসারের যাবতীয় খরচ মেটাতে না পারাতে সে ওইদিন অফিসের মধ্যেই অনশন করেছিল।
নৈশ প্রহরী ফরিদের অব্যহতির বিষয়টি জানতে পুট অব ডিউটি আদেশ পত্রে স্বাক্ষরিত ঝিনাইদহ ডাক বিভাগের পরিদর্শক আফিয়া খাতুনের মোবাইলে একাধিকবার কল দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।
এ ব্যাপারে কালীগঞ্জ নলডাঙ্গা পোষ্ট অফিসের পোষ্ট মাষ্টার আব্দুল মালেক জানান, নৈশ প্রহরীর পুট অব ডিউটির আদেশ পত্রটি তার দপ্তরে এসেছে। তবে, কেন বা কোন অভিযোগে তাকে শাস্তি দেওয়া হয়েছে তা পত্রের স্বাক্ষরিত কর্মকর্তাই ভাল বলতে পারবেন। আর কোন শোকজ ছাড়াই চাকুরী থেকে সাময়িক অব্যাহতি দেওয়া যায় কি না এমন প্রশ্নের জবাবে বিষয়টি তিনি এড়িয়ে যান।
বাংলাদেশ ডাক বিভাগের ইডি কর্মচারী ইউনিয়নের কেন্দ্রিয় কমিটির সাধারন সম্পাদক এম এ হাকিম বলেন, বেতন বাড়ানোর দাবী তোলা কোন অপরাধ হতে পারে না। কালীগঞ্জের ফরিদ উদ্দিন নামে এক নৈশ কর্মচারীকে সাময়িক কর্মচুত্যর কথা তিনি শুনেছেন। তবে কি কারনে তার বিরুদ্ধে শাস্তিমুলক ব্যাবস্থা নেওয়া হয়েছে বিষযটি জেনেই সংগঠন তার ব্যাবস্থা নিবেন বলে জানান।