ঢাকা ১০:৪৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৯ মে ২০২৪, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঠাকুরগাঁওয়ে পর্নোগ্রাফি তৈরীর অভিযোগে ল্যাপটপ সহ আটক ৪

পর্ণগ্রাফি তৈরীর অভিযোগে ঠাকুরগাঁওয়ে বিপুল পরিমান সরঞ্জাম ও ল্যাপটপসহ ৪ যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

রবিবার (০২ এপ্রিল) রাতে জেলা শহরের হাজীপাড়া এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। এসময় ২৯টি ল্যাপটপসহ বিপুল পরিমাণ সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলো- নওগাঁ জেলার পত্নীতলা উপজেলার মোবারকপুর এলাকার তরিকুল ইসলামের ছেলে তৌহিদ রেজা (২২), ঠাকুরগাঁওয়ের রুহিয়া থানার ঝাড়গাঁও গ্রামের আবুল কামালের ছেলে ওমর ফারুক (২২), রুহিয়া থানার ঘনিবিষ্ণুপুর এলাকার জব্বারের ছেলে আরিফুল ইসলাম (২৫), রুহিয়া থানার সেনিহারী বদিরুল ইসলামের ছেলে মেহেদী হাসান (২০)।

পুলিশ জানায়, আটককৃতরা দীর্ঘদিন ধরে শহরের হাজীপাড়া এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নিয়ে পর্নোগ্রাফি তৈরি করতো। বিভিন্ন সাইড থেকে নায়িকা ও সুন্দরী মেয়েদের ছবি ডাউনলোড করে নগ্ন ছবি তৈরি করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিতো। এছাড়াও দেশের বাইরে যারা রয়েছে তাদের হোয়াটসঅ্যাপ, ইমো, টুইটার এর মাধ্যমে ছবি আদান-প্রদান করে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে ডলার আদায় করতো। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে রবিবার সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এসময় তাদের ব্যবহৃত ২৯টি ল্যাপটপ সহ বিভিন্ন ধরনের সরঞ্জাম জব্দ করা হয়।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হবে।

আপলোডকারীর তথ্য

ঠাকুরগাঁওয়ে পর্নোগ্রাফি তৈরীর অভিযোগে ল্যাপটপ সহ আটক ৪

আপডেট সময় ০৮:১৪:০৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৩ এপ্রিল ২০২৩

পর্ণগ্রাফি তৈরীর অভিযোগে ঠাকুরগাঁওয়ে বিপুল পরিমান সরঞ্জাম ও ল্যাপটপসহ ৪ যুবককে আটক করেছে পুলিশ।

রবিবার (০২ এপ্রিল) রাতে জেলা শহরের হাজীপাড়া এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়। এসময় ২৯টি ল্যাপটপসহ বিপুল পরিমাণ সরঞ্জাম জব্দ করা হয়েছে।

আটককৃতরা হলো- নওগাঁ জেলার পত্নীতলা উপজেলার মোবারকপুর এলাকার তরিকুল ইসলামের ছেলে তৌহিদ রেজা (২২), ঠাকুরগাঁওয়ের রুহিয়া থানার ঝাড়গাঁও গ্রামের আবুল কামালের ছেলে ওমর ফারুক (২২), রুহিয়া থানার ঘনিবিষ্ণুপুর এলাকার জব্বারের ছেলে আরিফুল ইসলাম (২৫), রুহিয়া থানার সেনিহারী বদিরুল ইসলামের ছেলে মেহেদী হাসান (২০)।

পুলিশ জানায়, আটককৃতরা দীর্ঘদিন ধরে শহরের হাজীপাড়া এলাকায় একটি বাসা ভাড়া নিয়ে পর্নোগ্রাফি তৈরি করতো। বিভিন্ন সাইড থেকে নায়িকা ও সুন্দরী মেয়েদের ছবি ডাউনলোড করে নগ্ন ছবি তৈরি করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিতো। এছাড়াও দেশের বাইরে যারা রয়েছে তাদের হোয়াটসঅ্যাপ, ইমো, টুইটার এর মাধ্যমে ছবি আদান-প্রদান করে বিভিন্ন প্রলোভন দেখিয়ে ডলার আদায় করতো। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে রবিবার সন্ধ্যায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এসময় তাদের ব্যবহৃত ২৯টি ল্যাপটপ সহ বিভিন্ন ধরনের সরঞ্জাম জব্দ করা হয়।

এ বিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আসাদুজ্জামান জানান, আটককৃতদের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইন ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করা হবে।