বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

তরুণ প্রজন্মকে তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ করতে হবে…জুনাইদ আহমেদ পলক

Muktir Lorai / ৪৪ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার, ১৬ জুন, ২০২২

বরিশাল অফিস : ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তির মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, তরুণ প্রজন্মকে তথ্য প্রযুক্তিতে দক্ষ করতে সরকার নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।

প্রায় ২ শ’ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন হাইটেক পার্ক থেকে প্রতি বছর হাজারো মানুষের প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। দক্ষিণাঞ্চলের তরুণরা গতানুগতিক ব্যবসা-বাণিজ্যর বদলে অনলাইনে কাজ করে অর্থ উপার্জন করতে পারবে। এছাড়া এটা দেশের আর্থসামাজিক অবস্থার ব্যাপক পরিবর্তন আনবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার (১৬ জুন) বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর নথুল্লাবাদে হাইটেক পার্ক স্থাপনের জন্য ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনের ফলক উন্মোচন করেন তিনি। পরে সেখানে তিনটি গাছের চারা রোপণ করেন করা হয়। এ সময় বরিশাল সিটি করপোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষ এবং ভারতীয় হাইকমিশনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বরিশালের নথুল্লাবাদে হাইটেক পার্ক স্থাপনের জন্য ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। ভারতের দেওয়া সহজ শর্তের অর্থায়নে দেশের ১২ জেলায় ১২টি হাইটেক পার্ক স্থাপন প্রকল্পের অংশ হিসেবে বরিশালে এর কাজ শুরু হলো।
পরে জেলা শিল্পকলা একাডেমিতে হাইটেক পার্ক ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন সংক্রান্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন প্রতিমন্ত্রী। সেখানে প্রধান অতিথি ছিলেনি সিটি মেয়র। অনুষ্ঠানে শুরুতেই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ মুক্তিযুদ্ধে আত্মদানকারী শহীদদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপরই বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বিষয়ক তথ্যচিত্র প্রদর্শন করা হয়। এ সময় তিনি বলেন,আগামী দুই বছরের মধ্যে পার্কের নির্মাণ কাজ শেষ হবে। পার্কটি চালু হলে প্রতিবছর ১ হাজার তরুণ প্রশিক্ষণ গ্ৰহন ও ৩ হাজার তরুণ-তরুণীর কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে। এ সময় সাংবাদিকদের মতবিনিময়কালে আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, এ হাই-টেক পার্ক বরিশাল অঞ্চলকে প্রযুক্তি সমৃদ্ধ নগরীতে পরিণত করবে। বরিশালের তরুণ প্রজন্ম তাদের মেধার যথাযথ বিকাশ ঘটিয়ে কর্মসংস্থানের জন্য নিজেকে তৈরি করতে পারবে পাশাপাশি অন্যদের জন্য কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি করতে সক্ষম হবে। বরিশাল নগরী সিলিকন নগরী হিসেবে গড়ে উঠবে যা স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখবে। এ উপলক্ষে বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সাদেক আব্দুল্লাহ বলেন,এ হাই-টেক পার্কটির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করার মাধ্যমে বরিশালের জনগনের দীর্ঘদিনের একটি দাবি পূরণ হলো। এর মাধ্যমে এলাকায় তথ্য প্রযুক্তি জ্ঞানে সমৃদ্ধ প্রজন্ম গড়ে উঠবে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদেক আব্দুল্লাহ, বাংলাদেশ হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক জনাব ড. বিকর্ণ কুমার ঘোষ, আইসিটি বিভাগের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো ইউনুস সহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ । ভারত সরকারের অর্থায়নে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের হাই-টেক পার্ক কর্তৃপক্ষের অধীন জেলা পর্যায়ে আইটি /হাইটেক পার্ক স্থাপন প্রকল্পের আওতায় বরিশালে এ হাই-টেক পার্কটি প্রায় সাড়ে ৬ একর জায়গার ওপর ১৭০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত হচ্ছে।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »