পতাকা…সেন্টু রঞ্জন চক্রবর্তী

(আগরতলা ২৩/০৬/২০২১)

পতাকা
তোমাকে পেতে গিয়ে
এক নদী রক্ত বয়ে গেলো,
তোমার পরম স্পর্শ পেতে গিয়ে
আমেনার ঘর ভাঙ্গলো
পাশের বাড়ির বাসনার কপালও চূর্ণ হলো |

পতাকা
তোমাকে পেতে গিয়ে
গ্রামকে গ্রাম আগুনে ভস্ম হলো
শশ্মানে পরিণত হলো পুরোটা মানচিত্র,
তোমাকে পেতে গিয়ে
সিঁথির সিঁদুর
হাতের শঙ্খজোড়া নিমিষেই উধাও
পুরুটা দেশই হলো শশ্মান রণক্ষেত্র |

পতাকা
তোমাকে একবার বুকে চেপে ধরতে গিয়ে
অনেকের পরনে সাদা শাড়ী উঠেছে
শুনেছি আপনজন হারানোর আহাজারি,
লক্ষ শিশুকে এতিম হতে দেখলাম
দেখলাম বেওনেটের খোঁচায়
মানুষের হৃদপিন্ড খুবলে বের করে
নিষ্ঠুতার তান্ডব তাহারি |

পতাকা
তোমাকে পেতে গিয়ে
অনেক প্রাণের উৎসর্গ দেখেছি আমি,
দেখেছি লক্ষ আত্মার অঞ্জলি
দেখেছি দেশ মাতৃকার বেদিমূলে
হাসতে হাসতে বীরের আহুতি
মৃত্যুর স্বহাস্য বরণ প্রনামী |

পতাকা
শুধু তোমার একটু শীতল পরম স্পর্শ পেতে
আমি দেখেছি
অদম্য সন্তানেরা কি করে ছেড়েছে ঘর ,
দেখেছি সম্মুখ সমরে
প্রানপনে লড়াইয়ে অকুতোভয় সন্তানেরা কাঁধে কাঁধ মিলায় পরস্পর |

পতাকা
তোমাকে ঘরে আনতে গিয়ে দেখেছি
সকালের সূর্য কতো লাল,
তোমায় হাতে নিয়ে
জেগেছে জনমহাপ্লাবন
রাজপথ তাই হয়েছিলো এতো উত্তাল |

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *