• শুক্রবার, ৩০ জুলাই ২০২১, ০৭:১৯ পূর্বাহ্ন
  • Arabic Arabic Bengali Bengali English English
শিরোনাম
হেলেনা জাহাঙ্গীরকে আটক করেছে র‌্যাব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে চলমান ছুটি বাড়লো ৩১ আগষ্ট পর্যন্ত হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসা থেকে বিপুল পরিমাণ মাদক উদ্ধার নবীগঞ্জে বিধিনিষেধ অমান্য করায় জরিমানা পবায় প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায় পরিবারের মাঝে ঢেউটিন বিতরণ সরাইলে নমুনা দেয়ার আগেই ঢলে পড়লেন মৃত্যুর কোলে শনিবার থেকে নিবন্ধনকারীদের করোনার টিকা দেওয়া হবে রাজশাহী টিচার্স ট্রেনিং কলেজে পবায় কোভিড-এ ক্ষতিগ্রস্ত পল্লী উদ্যোক্তাদের মাঝে প্রণোদনা ঋণ বিতরণ উল্লাপাড়ায় স্বেচ্ছায় রাস্তা সংস্কার কঠোর লকডাউনে বাড়েনি সবজির দাম, সাধারণ মানুষর স্বস্তি ফিরলেও দুঃশ্চিন্তায় চাষীরা
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈদিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একদন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ

পবায় ৩৩৩ নম্বরে কল পেয়ে আর্থিক সহায়তা পৌঁছে দিলেন ইউএনও শিমুল আকতার

news / ৫৮ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় সোমবার, ১২ জুলাই, ২০২১

পবা প্রতিনিধিঃ পবায় ৩৩৩ নম্বরে কল করে প্রতিদিন আর্থিক সহায়তা পাচ্ছেন করোনাকালে সংকটে পড়া কর্মহীন বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার নিম্ন আয়ের মানুষ। জেলা প্রশাসন ও উপজেলা প্রশাসনের মাধমে এসব খাদ্য ও আর্থিক সহায়তা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে সুবিধাভোগীদের ঘরে ঘরে। সোমবার (১২ জুলাই) দুপুর ১ টায় পবার বায়া (বালিয়াডাঙ্গা) ও ভোলাবাড়ী এলাকার ১৫ জন কল প্রদানকারীর বাড়ীতে নগদ অর্থ নিয়ে হাজির হন পবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শিমুল আকতার। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. শিমুল আকতার জানান, প্রতিদিন ৩৩৩ নম্বরে সহায়তা চেয়ে অনেকে কল করেছেন। রাজশাহী জেলা প্রশাসকের নির্দেশে উপজেলা প্রশাসন বাড়ী বাড়ী গিয়ে তাদের প্রয়োজনীয় সহায়তা প্রদান করছেন। এর ধারাবাহিকতায় উপজেলার ভোলাবাড়ী ও বায়া (বালিয়াডাঙ্গা) এলাকায় করোনা পরিস্থিতিতে ক্ষতিগ্রস্ত কর্মহীন ১৫ জন অসহায় ও দুঃস্থ মানুষকে বাড়ীতে গিয়ে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়। এছাড়াও তিনি আরও জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মধ্যবিত্তসহ সকল শ্রেণীর অসহায় ও দুঃস্থ মানুষের কথা চিন্তা করে কল সেন্টার নম্বর-৩৩৩ পরিষেবা চালু করেছেন। যারা দ্বিধান্বিত ও বিব্রত, যাঁরা সহায়তা চাইতে পারেন না, এটি মুলত তাঁদের জন্য। এটি একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্পের আওতায় ‘৩৩৩ কল সেন্টার’ জাতীয় তথ্য ও সেবা দিতে কাজ করছে, যার সার্বিক সহযোগিতায় রয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি ভিত্তিক প্রতিষ্ঠান জেনেক্স ইনফোসিস লিমিটেড। পবার আর্থিক সহায়তা প্রাপ্ত একজন জানান, করোনার লকডাউনের প্রভাবে দীর্ঘ দিন ধরে কর্মহীন হয়ে বাড়ীতে বসে আছি। ঘরে কিডনির সমস্যায় আক্রান্ত আমার স্ত্রী, অর্থের অভাবে ঔষধ কিনতে পারছিলাম না। তাই বাধ্য হয়ে ৩৩৩ নম্বরে কল করি। তিনি আরও জানান, এই পরিস্থিতিতে ৩৩৩ নম্বরে কল দেওয়ার এক ঘন্টা পর আর্থিক সহায়তা পেয়েছি। বর্তমান পরিস্থিতিতে এটি আমার কাছে অনেক বড় পাওয়া। সে জন্য আমি পবা উপজেলার ইউএনও মহোদয়কে অসংখ্য ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাচ্ছি। অপর একজন সুবিধাভোগী জানান, আমি শারীরিক প্রতিবন্ধী। লকডাউনের ফলে চায়ের দোকান বন্ধ থাকায় কর্মহীন হয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছি। ৩৩৩ নম্বরে কল করায় ইউএনও স্যার আমার বাড়ীতে এসে নিজ হাতে টাকা দিয়েছেন, সে জন্য স্যারকে আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই ও তার দীর্ঘায়ু কামনা করছি।


এই বিভাগের আরো সংবাদ