ঢাকা ০৩:২৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

পিআইবিতে নারী সাংবাদিকদের ফ্যাক্টচেক বিষয়ক প্রশিক্ষণ সম্পন্ন

স্টাফ রিপোর্টারঃ প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি)’র আয়োজনে নারী সাংবাদিকদের জন্য (০৬-০৭ ডিসেম্বর) দুইদিনব্যাপী প্রশিক্ষণ শেষ হয়েছে। বুধবার (০৭ নভেম্বর) বিকেলে পিআইবি’র সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত প্রশিক্ষণের সমাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রশিক্ষার্থীদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস) এর প্রধান বার্তা সম্পাদক সমীর কান্তি বড়–য়া। তিনি বলেন, সাংবাদিকতার উৎকর্ষ সাধনে ফ্যাক্টচেকিং এর গুরুত্ব অপরিসীম।

সমীর কান্তি বড়–য়া বলেন, বর্তমান যুগে যেভাবে তথ্য প্রবাহ হয় তাতে ফ্যাক্টচেকিং করে সত্য -মিথ্যা নির্ণয় করা অত্যাবশ্যক। নতুবা প্রতিবেদনে বড় ধরনের ভুল হতে পারে। প্রতিবেদন হয়ে পড়বে গুরুত্বহীন। তিনি ফ্যাক্টচেককে বর্তমান সময়ের উপযোগী বিষয় হিসেবে তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথি কিভানে ফ্যাক্টচেকিং টুলস,ভুয়া তথ্য যাচাই,সামাজিক মাধ্যমে ভুয়া সংবাদ ছড়ানোর প্রবণতা ও ঝুঁকি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেন। এছাড়া তিনি ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন লেখার কৌশল, ভুয়া ছবি ও ভিডিও চিত্রের ফ্যাক্টচেক করার পদ্ধতি, ফ্যাক্টচেকিং সাইট পর্যবেক্ষণ এবং সত্যতা যাচাই সম্পর্কে বক্তব্যে তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানের সভাপ্রধান প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ(পিআইবি)’র মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ ফ্যাক্টচেক ও সাংবাদিকতার নৈতিকতা নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি আরো বলেন, এখন মিথ্যাচার অনেক বেশি হচ্ছে। ফেইসবুকের স্ট্যাটস দিয়ে অনেক দৈনিক পত্রিকা প্রতিবেদন করছে। এজন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের প্রয়োজনীয়তা ছিল।
পিআইবি’র মহাপরিচালক বলেন, অনলাইন গণমাধ্যমগুলোতে অল্প সময়ের মধ্যে সংবাদ প্রচার হয় এখানে ভুল তথ্য পরিবেশনের হলে সহজে জনগণ বিভ্রান্ত হয়। সেদিকে কর্তৃপক্ষের সতর্ক হতে হবে।
জাফর ওয়াজেদ বলেন,তথ্য অধিকার আইনের মাধ্যমে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার সুযোগ থাকলেও সাংবাদিকরা এই আইনের মাধ্যমে তথ্য চেয়ে কম আবেদন করেন।

প্রশিক্ষণ কর্মশালায় পিআইবি’র সহকারী প্রশিক্ষক জিলহাজ উদ্দিন নিপুনের সমন্বয়ে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক সমিতির (বানাসাস) সদস্য মোট ৩০ জন সাংবাদিক অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক সমিতির (বানাসাস) সভাপতি সোমা শাহতাজ উপস্থিত ছিলেন।

আপলোডকারীর তথ্য

পিআইবিতে নারী সাংবাদিকদের ফ্যাক্টচেক বিষয়ক প্রশিক্ষণ সম্পন্ন

আপডেট সময় ০৩:১১:৪৫ অপরাহ্ন, বুধবার, ৭ ডিসেম্বর ২০২২

স্টাফ রিপোর্টারঃ প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি)’র আয়োজনে নারী সাংবাদিকদের জন্য (০৬-০৭ ডিসেম্বর) দুইদিনব্যাপী প্রশিক্ষণ শেষ হয়েছে। বুধবার (০৭ নভেম্বর) বিকেলে পিআইবি’র সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত প্রশিক্ষণের সমাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে প্রশিক্ষার্থীদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থা (বাসস) এর প্রধান বার্তা সম্পাদক সমীর কান্তি বড়–য়া। তিনি বলেন, সাংবাদিকতার উৎকর্ষ সাধনে ফ্যাক্টচেকিং এর গুরুত্ব অপরিসীম।

সমীর কান্তি বড়–য়া বলেন, বর্তমান যুগে যেভাবে তথ্য প্রবাহ হয় তাতে ফ্যাক্টচেকিং করে সত্য -মিথ্যা নির্ণয় করা অত্যাবশ্যক। নতুবা প্রতিবেদনে বড় ধরনের ভুল হতে পারে। প্রতিবেদন হয়ে পড়বে গুরুত্বহীন। তিনি ফ্যাক্টচেককে বর্তমান সময়ের উপযোগী বিষয় হিসেবে তুলে ধরেন।

প্রধান অতিথি কিভানে ফ্যাক্টচেকিং টুলস,ভুয়া তথ্য যাচাই,সামাজিক মাধ্যমে ভুয়া সংবাদ ছড়ানোর প্রবণতা ও ঝুঁকি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করেন। এছাড়া তিনি ফ্যাক্টচেক প্রতিবেদন লেখার কৌশল, ভুয়া ছবি ও ভিডিও চিত্রের ফ্যাক্টচেক করার পদ্ধতি, ফ্যাক্টচেকিং সাইট পর্যবেক্ষণ এবং সত্যতা যাচাই সম্পর্কে বক্তব্যে তুলে ধরেন।

অনুষ্ঠানের সভাপ্রধান প্রেস ইনস্টিটিউট বাংলাদেশ(পিআইবি)’র মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ ফ্যাক্টচেক ও সাংবাদিকতার নৈতিকতা নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি আরো বলেন, এখন মিথ্যাচার অনেক বেশি হচ্ছে। ফেইসবুকের স্ট্যাটস দিয়ে অনেক দৈনিক পত্রিকা প্রতিবেদন করছে। এজন্য ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের প্রয়োজনীয়তা ছিল।
পিআইবি’র মহাপরিচালক বলেন, অনলাইন গণমাধ্যমগুলোতে অল্প সময়ের মধ্যে সংবাদ প্রচার হয় এখানে ভুল তথ্য পরিবেশনের হলে সহজে জনগণ বিভ্রান্ত হয়। সেদিকে কর্তৃপক্ষের সতর্ক হতে হবে।
জাফর ওয়াজেদ বলেন,তথ্য অধিকার আইনের মাধ্যমে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার সুযোগ থাকলেও সাংবাদিকরা এই আইনের মাধ্যমে তথ্য চেয়ে কম আবেদন করেন।

প্রশিক্ষণ কর্মশালায় পিআইবি’র সহকারী প্রশিক্ষক জিলহাজ উদ্দিন নিপুনের সমন্বয়ে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক সমিতির (বানাসাস) সদস্য মোট ৩০ জন সাংবাদিক অংশগ্রহণ করেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক সমিতির (বানাসাস) সভাপতি সোমা শাহতাজ উপস্থিত ছিলেন।