• শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৩৪ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
শিরোনাম
সিএমপির পাঁচলাইশ মডেল থানার অভিযানে ০২টি স্টিলের টিপছোরা সহ ০১ জন গ্রেফতার ভান্ডারিয়ায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান উন্নয়নে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হাজী তৈয়েবুর রহমান সড়কের বেহালদশা শ্রীবরদীতে নদীর পাড় থেকে গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার মুরাদনগরে জালিয়াতির অভিযোগে দুদকের মামলায় শিক্ষক গ্রেফতার গাংনীর কুমারীডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি ইয়াবাসহ আটক গাংনীতে গলায় ফাঁস দিয়ে গৃহবধুর আত্মহত্যা করলা সাথে শত্রুতা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রলার ডুবিতে নিহত মামুনের পরিবার ফেরত পেল মেডিকেলে ভর্তির ১৮ লাখ টাকা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় এমপি হচ্ছেন ডা. প্রাণ গোপাল দত্ত
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

প্রশাসন প্রতিমন্ত্রীর কথিত ভাই পরিচযে এলাকায় তান্ডব চালানোর অভিযোগ

Muktir Lorai / ৮৯ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় বুধবার, ১১ আগস্ট, ২০২১

মেহরপুর জেলা প্রতিনিধিঃ মেহেরপুর সদর উপজেলার চকশ্যাম নগর গ্রামে জন প্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনের কথিত ভাই পরিচয়ে গ্রামের মানুষকে অত্যাচার করছে বলে অভিযোগ উঠেছে।
বুধবার বিকাল ৫ টায় মেহেরপুর রিপোর্টার্স ক্লাবে এ অভিযোগ তুলে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে মোঃ শাহাবুদ্দিন। সাংবাদিক সম্মেলনে মোঃ সাহাবুদ্দিন বলে, আমার সহ গ্রামবাসীর জমিতে বানিজ্যিক ভাবে লাগানো আখ ঘাস প্রতিদিন গ্রামের নিফাজের ছেলে সামিরুল ও তার ভাই খায়রুল, ফিরাতুল মহিষ দিয়ে খাইয়ে দেয়। গত ৪ দিন পুর্বে সকালে সামিরুল আমার জমিতে মহিষ দিয়ে ঘাস খাওয়ানোর সময় আমি ঘাস খাওয়াতে নিষেধ করি। এতে তিনি ক্ষিপ্ত হয়ে বলেন আমি প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপির ছোট ভাই, আমি কি করবো আর কি করবোনা সেটা আমার ব্যাপার। এর পর গ্রামবাসীরা আমাকে বাড়ি চলে আসতে বললে আমি বাড়ি চলে আসি। ঐ দিন বিকালে পুনরায় সামিরুলের ছোট ভাই আমার জমিতে মহিষ ছেড়ে দিয়ে ঘাস খাওয়াতে লাগলে আমি তাকে বকা বকি করি। এসময় খবর পেয়ে সামিরুল একটি হাসুয়া নিয়ে এসে পেছন থেকে আমার মাথায় কোপ মারে। এর পর লাঠি দিয়ে আমাকে বেদম প্রহার করে। পরে গ্রামবাসীরা আমাকে উদ্ধার করে মেহেরপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। পরে আমি থানায় মামলা করতে না পেরে কোটে মামলা দায়ের করি। তিনি আরো বলেন জন প্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেনের কথিত ভাই পরিচযে এলাকায় তান্ডব চালাচ্ছেন সামিরুল। এলাকার নারি শিশু তার ভয়ে আতংকিত থাকে। তার বিনা হুকুমে গ্রামে কোন বিচার, সামাজিক অনুষ্ঠান এমনকি বিয়ে শাদিও দেওয়া যায়না। আমি সাংবাদিকদের মাধ্যমে জন প্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এমপি সহ প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করে সঠিক বিচার ও তদন্তের দাবি জানাচ্ছি। সেই সাথে গ্রামের সকল মানুষের নিরাপত্তার ও দাবি করছি।


এই বিভাগের আরো সংবাদ