শিরোনাম
ডেউয়াতলী গ্রামের মরহুম মোঃ কোব্বাদ খান ও মান্নান চৌধুরী পরিবারবর্গকে নিয়ে সফিউল্লা খন্দকারের মানহানিকর বক্তব্যের প্রতিবাদ পলাশ শিল্পাঞ্চল সরকারি কলেজ শিক্ষক ও কর্মচারিদের বিক্ষোভ বাস্তবময় জীবনের বাস্তবতা…অনামিকা চৌধুরী রু লাকসামে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে আগুন : প্রায় ৭লাখ টাকার ক্ষতি মুরাদনগরে সাব-রেজিস্ট্রারের কার্যালয়ের অভ্যন্তরীন প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত পদ্মা সেতু আমাদের জাতিকে মাথা উঁচু করে দাঁড়ানোর সুযোগ করে দিয়েছে দীঘিনালায় জেলেদের মাঝে ছাগল বিতরণ গোমস্তাপুরে চাঞ্চল্যকর কুলুলেস ‍‍`মেহেরুল‍‍` হত্যা মামলার আসামি আটক তরুন উদ্যোক্তা নাসিমা জাহান বিনতী’র গ্লোবাল ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড অর্জন পলাশে চাচীর সাথে পরকিয়া করতে গিয়ে প্রেমিকের হাতের কব্জি কর্তন
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র একজন মাদকাসক্ত, পরনারী ও যৌতুকলোভী

Muktir Lorai / ১১৫ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় সোমবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০২০

ফরিদগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জ পৌরসভার মেয়র মাহফুজুল হককে মাদকাসক্ত, পরনারী ও যৌতুকলোভী হিসেবে অভিযুক্ত করেছেন তার প্রথম স্ত্রী।

সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) প্রথম স্ত্রী সোনিয়া আক্তার সকালে চাঁদপুর প্রেসক্লাবে স্বামীর বিরুদ্ধে সন্তান, বাবা ও বোনদের নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ অভিযোগ করেন।
অশ্রুসজল নয়নে সাংবাদিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন সোনিয়া আক্তার। এ সময় লিখিত ও মৌখিক বক্তব্যে সোনিয়া আক্তার অভিযোগ করেন, মাহফুজুল হকের সঙ্গে তার বিয়ের পর তাদের সংসার প্রথম দিকে ভালো চললেও মাদকাসক্ত হয়ে পরবর্তীতে আমার ওপর শারীরিক নির্যাতন শুরু করে সে। এ পরিস্থিতিতে ব্যবসা ও অন্যান্য সমস্যার কথা বলে মাহফুজুল আমার বাবা ও ভাইয়ের কাছ থেকে মোটা অঙ্কের অর্থ হাতিয়ে নেন কয়েক দফায়। কিন্তু সেসব টাকা ফেরত দেননি আজও।
সোনিয়া আক্তার আরও জানান, মাহফুজুল হক মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে ক্ষমতার দাপটে মাদক ও অন্য নারীদের সঙ্গে অবৈধ সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। এর প্রতিবাদ করলে নির্যাতনের মাত্রা আরও বেড়ে যায়। কিন্তু শিশু তিন সন্তানের কথা চিন্তা করে এসব নির্যাতন সহ্য করে এলেও বর্তমানে নির্যাতনের মাত্রা আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। ইতিমধ্যে মতের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় বিয়েও করেছেন মেয়র মাহফুজুল হক বলে জানান সোনিয়া।

এ অবস্থায় বাধ্য হয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করেন তিনি। এরপর থেকে সোনিয়া ও তার বাবা, দুলাভাইসহ পরিবারের সবাইকে হুমকি-ধামকি দেওয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।
তবে এত কিছুর পরও তিন সন্তান এবং বর্তমানে গর্ভে অনাগত সন্তানের কথা চিন্তা করে মাহফুজের সঙ্গেই সংসার করতে চান সোনিয়া আক্তার।

এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ক্ষমতাসীন দলের সবার সহযোগিতা চেয়েছেন মেয়র মাহফুজুল হকের প্রথম স্ত্রী।
প্রসঙ্গত, স্ত্রী সোনিয়া আক্তারের এ সাংবাদিক সম্মেলনের কিছুদিন আগে মেয়র মাহফুজুল হকও কেঁদে কেঁদে তার প্রথম স্ত্রীর বিরুদ্ধেও সাংবাদিক সম্মেলন করেন। ওই সময় স্ত্রী সোনিয়া আক্তারকে একজন মানসিক রোগী হিসেবে চিহ্নিত করেন তিনি। একই সঙ্গে আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষরা আমাকে ঘায়েল করতে অসুস্থ এবং মানসিক রোগীকে (আমার স্ত্রী) দিয়ে এসব অপপ্রচার চালাচ্ছে বলেও অভিযোগ তোলেন তিনি।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »