বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড

Muktir Lorai / ৭২ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই, ২০২১

ফরিদপুর সংবাদদাতা: ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার কাদিরদি বাজারে এক ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। অগ্নিকাণ্ডে একটি বাড়ি ও আটটি দোকানের মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। প্রাথমিকভাবে ক্ষতির পরিমাণ প্রায় তিন কোটি টাকা বলে জানিয়েছেন ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ীরা।

বুধবার (১৪ জুলাই) রাত পৌনে ১০টার দিকে উপজেলার কাদিরদি বাজারের গৌতম দত্তের কসমেটিক্সের দোকান থেকে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে এ আগুনের সূত্রপাত ঘটে বলে জানা যায়।

বোয়ালমারী ও মধুখালী থেকে ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট এসে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

জানা গেছে, রাত পৌনে ১০টার দিকে বাজারের গৌতম দত্তের কসমেটিক্সের দোকান থেকে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিটের মাধ্যমে আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহূর্তের মধ্যে তা বাজারের অন্যান্য দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। আগুনে গৌতম দত্তের কসমেটিক্সসের দোকান, বিভূতি ভূষণ দাসের ধান ও কাপড়ের দোকান, দীনেশ ঘোষের মুদি দোকান, আইয়ুব মোল্লার মুদি-হার্ডওয়্যার দোকান, রিপন ঘোষের হার্ডওয়্যার দোকান, মুরাদ শেখের মুদি-স্টেশনারি দোকান, মোশাররফ হোসেনের বইয়ের লাইব্রেরি এবং আকরামুল আলম টনির পাট-ধান ভুষিমালের গোডাউনসহ বাড়ির মালপত্র পুড়ে যায়।

খবর পেয়ে বোয়ালমারী ও পার্শ্ববর্তী মধুখালী উপজেলার ফায়ার সার্ভিসের তিনটি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নেভাতে সক্ষম হলেও ততক্ষণে আটটি দোকান ও একটি বাড়ির মালামাল সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়। দুই উপজেলার ফায়ার সার্ভিস ও স্থানীয় বাসিন্দাদের প্রচেষ্টার কারণে বাজারের শতাধিক দোকান আগুনের হাত থেকে রক্ষা পায়। এতে প্রায় তিন কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

বোয়ালমারী ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন ম্যানেজার আ. ছত্তার মোল্লা বলেন, প্রায় দুই ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা হয়। তবে তিনি প্রাথমিকভাবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ জানাতে রাজি হননি। তদন্তের পর বিস্তারিত জানা যাবে বলে জানান তিনি।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »