বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

বরুড়ায় এতিমখানার চাউল বিক্রির অভিযোগে অধ্যক্ষ অবরুদ্ধ

Muktir Lorai / ৭৮৪ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় সোমবার, ১০ জানুয়ারি, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টারঃ কুমিল্লার বরুড়ায় এতিমখানার চাউল বিক্রি করার অভিযোগে অধ্যক্ষকে অবরুদ্ধ করে রেখেছেন অভিভাবকরা।

জানা গেছে, উপজেলা সদরের পৌর এলাকার বরুড়া সুন্নিয়া কামিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আলী আকবর ফারুকী এতিমখানার ১৪ বস্তা (৭০০ কেজি) চাউল বরুড়া বাজারের ফরিদ মিয়ার দোকানে গোপনে বিক্রি করে দেন।

এমন খবর চড়িয়ে পরলে অভিভাবক ও স্থানীয়রা ফরিদ মিয়ার দোকানে গিয়ে ঘটনার সত্যতা পান। পরে মাদ্রাসায় এসে অধ্যক্ষ মাওলানা আলী আকবর ফারুকীর কাছে জানতে চাইলে তিনি প্রথমে অস্বীকার করেন। এতে স্থানীরা ক্ষিপ্ত হলে অধ্যক্ষকে অবরুদ্ধ করে বিক্ষোভ করেন।

এক পর্যায়ে আলী আকবর ফারুকী চাউল বিক্রির কথা অভিভাবকদের কাছে স্বীকার করে বলেন, মাহফিল করে অনেক টাকা দেনা হয়েছি। সেই কারনে চাউল বিক্রি করেছি। কমিটিকে না জানিয়ে চাউল বিক্রি করার বিষয়ে তিনি বলে, এটা আমার ভুল হয়েছে। এজন্য আমি সবার কাছে ক্ষমাপ্রার্থী।

ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্য মোঃ মাসুদ মিয়া বলেন, মাদ্রাসা থেকে চাউলের বস্তাগুলো বাজারে নেয়ার সময় আমি আটক করি। অধ্যক্ষ কাউকে না জানিয়ে চাউল বিক্রি করার জন্য সবার কাছে দুঃখপ্রকাশ করেছেন। তাই বিষটি সবাইকে নিয়ে সমাধান করেছি।

চাউল ক্রয় করে রাখা দোকানদার ফরিদ মিয়া এ বিষয়ে সাংবাদিকদের বলেন, আমি মাওলানা আলী আকবর ফারুকীর কাছ থেকে ১৪ বস্তা (৭০০ কেজি) চাউল ক্রয় করি।

এবিষয়ে জানতে অধ্যক্ষ আলী আকবর ফারুকীর মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল দিয়েও তাকে পাওয়া যায়নি।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »