বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

বিএনপি কর্মী-সমর্থকদের উপর হামলার অভিযোগ

Muktir Lorai / ৯৪ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় বুধবার, ৩০ ডিসেম্বর, ২০২০

মোংলা পৌর নির্বাচনে বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী মো. জুলফিকার আলীর কর্মী সমর্থকদের ওপর হামলা করে হাত-পা ভেঙে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) সকালে প্রধান নির্বাচন কমিশন, বাগেরহাট জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও মোংলা থানায় এই লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী বর্তমান মেয়র মো. জুলফিকার আলী।

অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, মঙ্গলবার দুপুরে বিএনপি’র মেয়র প্রার্থী জুলফিকার পৌর শহরতলীর কমলার মোড় এলাকায় ভোটারদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময় করছিলেন। তখন তার কর্মী-সমর্থকদের ওপর হামলা হয়। এতে বিএনপি’র মেয়র প্রার্থীর সমর্থক আলতাফ হোসেন, ফয়সাল ও মো. রুহুল আমীন নামে তিনজন গুরুতর আহত হয়েছেন। তাদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। এ ঘটনায় প্রতিপক্ষ মেয়র প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকদের দোষারোপ করে বুধবার সকালে প্রধান নির্বাচন কমিশন, বাগেরহাট জেলা রিটার্নিং কর্মকর্তা ও মোংলা থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন জুলফিকার।
এর আগে ২৫ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় বটতলা এলাকায় প্রথম দফায় অনুরূপ হামলা চালানো হয়। এ সময় বিএনপি প্রার্থীর কর্মী আলম ও বাবু মোল্ল্যা নামের অপর দুই কর্মীকে মারধর করে হাত-পা ভেঙে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন বর্তমান মেয়র জুলফিকার আলী।
এ ব্যাপারে জুলফিকার সংবাদকর্মীদের বলেন, নির্বাচনী প্রচারণার আগ মুহূর্তে ভোটারদের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়কালে দু দফায় হামলার শিকার হয়েছেন আমার কর্মী-সমর্থকরা। এতে ভোটার ও পৌরবাসীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে।
এ অবস্থায় ১৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য মোংলা পোর্ট পৌরসভার সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ ভোট গ্রহণ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।
এ ব্যাপারে জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ফারাজী বেনজীর আহামেদ ও মোংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) তুহিন মন্ডল জানান, বিএনপি’র মেয়র প্রার্থীর কর্মী সমর্থকদের ওপর হামলা ও মারধরের অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »