বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

বিকাশ প্রতারক চক্রের সক্রিয় পাঁচ সদস্যকে আটক

Muktir Lorai / ৬৮ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় মঙ্গলবার, ২০ এপ্রিল, ২০২১

ডেস্ক রিপোর্টঃ ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার রায়নগর গ্রামে অভিযান চালিয়ে বিকাশ প্রতারক চক্রের সক্রিয় পাঁচ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব। এ সময় তাদের কাছ থেকে ইয়াবা, ফেনসিডিল, ল্যাপটপ, ২৭৩ সিমকার্ড ও নগদ ২৯ হাজার ৫০০ টাকা জব্দ করা হয়।

র‌্যাব সূত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে রায়নগর গ্রামে একটি প্রতারক চক্র বিকাশের নাম ব্যবহার করে প্রতারণার মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছিল। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে র‌্যাব ফরিদপুর ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার মো. খোরশেদ আলম ও স্কোয়াড কমান্ডার মাহিদুল হাসানের নেতৃত্বে মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) ভোরে অভিযান পরিচালনা করা হয়।
এ সময় ফারুক মাতুব্বর (৩৫), সুমন হোসেন (২৮), আনোয়ার হোসেন (২১), শফিকুল ইসলাম (২৩) ও সজিব মাতুব্বরকে (১৯) আটক করে।

এ সময় আটকদের হেফাজতে থাকা ২২ পিস ইয়াবা, ১২ বোতল ফেনসিডিল এবং বিকাশ প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত ১৫ মোবাইল ফোনসহ ২৭৩ সিমকার্ড, একটি ল্যাপটপ এবং বিকাশ প্রতারণার ২৯ হাজার ৫০০ টাকা জব্দ করা হয়।
প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আটকরা বিকাশ প্রতারণার মাধ্যমে জনসাধারণের নিকট থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে বলে স্বীকার করে।
র‌্যাব সূত্র জানায়, বিকাশ প্রতারক চক্রের সদস্যরা বিভিন্ন দুর্নীতি পরায়ণ মোবাইল সিম বিক্রেতার সাথে পরস্পর যোগসাজশ করে ভুয়া নামে সিম কার্ড রেজিস্ট্রেশন ও উক্ত সিমকার্ড ব্যবহার করে অসাধু ডিএসআর (বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য বিকাশ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নিয়োগকৃত এজেন্ট গণের মাধ্যমে ভুয়া বিকাশ অ্যাকাউন্ট খোলে।
প্রতারক চক্রের সদস্যরা দুর্নীতিপরায়ণ ডিএসআর গণের কাছ থেকে অর্থের বিনিময়ে বিকাশ এজেন্টদের লেনদেনের তথ্য সংগ্রহ করে ভুয়া রেজিস্ট্রেশনকৃত মোবাইল সিমকার্ড ব্যবহার করে দেশের বিভিন্ন প্রান্তের সহজ সরল সাধারণ জনগণের কাছে নিজেকে বিকাশ হেড অফিসের কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে ফোন করে কৌশলে তাদের বিকাশ পিন কোড জেনে নেয় এবং স্মার্ট ফোনে বিকাশ অ্যাপ ব্যবহার করে সাধারণ লোকজনের বিকাশ অ্যাকাউন্ট থেকে প্রতারণার মাধ্যমে টাকা হাতিয়ে নেয়। এভাবে তারা প্রতিমাসে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিতো।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »