ঢাকা ১১:১৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo দৈনিক মুক্তির লড়াই পত্রিকার চতুর্থ বর্ষে পদার্পন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত Logo ক্ষুদ্রচাকশ্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত Logo বরগুনা প্রেসক্লাবে হামলার ঘটনায় মামলা, পিবিআইকে তদন্তের নির্দেশ Logo সরাইলে নদীর মাটি যাচ্ছে ইট ভাটায়, হুমকির মুখে ফসলি জমি Logo চীন বাংলাদেশের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্যিক উন্নয়ন বাড়াতে চায়;চীনা বাণিজ্য মন্ত্রী Logo চীনের বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ২০২৪ সালকে ‘ভোগ বৃদ্ধির বছর’ হিসাবে মনোনীত করে Logo শাজাহান শিকদার সম্পাদনিত ‘সম্মিলিত কবিতার বই-৪’ এর মোড়ক উম্মোচন Logo নওগাঁয় ৭২ কেজি গাঁজাসহ মাদক এক ব্যবসায়ী আটক Logo ফুলবাড়ীতে কুকুরের কামড়ে ৮টি ছাগলের মৃত্যু Logo আমতলী পৌর নির্বাচন ঘিরে অভিযোগ পাল্টা অভিযোগ

বেলারুশ-চীন সর্বজনীন সার্বিক কৌশলগত অংশীদারিত্বের সম্পর্কের বিকাশ ঘটাবে; লুকাশেঙ্কো

স্বর্ণা:

৪ঠা ডিসেম্বর সোমবার চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং বেইজিংয়ে বেলারুশের সফররত প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর সঙ্গে এক বৈঠকে মিলিত হন।

বৈঠকে সি চিন পিং বলেন, তার দেশ সর্বদা বেলারুশের সাথে সম্পর্ককে কৌশলগত ও দীর্ঘমেয়াদী দৃষ্টিকোণ থেকে দেখে; বেলারুশকে তার জাতীয় অবস্থার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ উন্নয়নের পথ বেছে নিতে দৃঢ়ভাবে সমর্থন করে এবং বেলারুশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপকারী বহিরাগত শক্তির বিরোধিতা করে।

সি চিন পিং জোর দিয়ে বলেন, দশ বছর আগে তিনি “বেল্ট অ্যান্ড রোড” উদ্যোগ প্রস্তাব করেন এবং এখন পর্যন্ত ১৫০টিরও বেশি দেশ এ উদ্যোগে সামিল হয়েছে। কিছুদিন আগে তিনি “বেল্ট অ্যান্ড রোড” উদ্যোগের উচ্চ-মানের বাস্তবায়নের স্বার্থে আট-দফা পদক্ষেপের কথা বলেন এবং বেলারুশকে এতে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করতে আহ্বান জানান।

প্রেসিডেন্ট সি বলেন, উভয় পক্ষের উচিত চীন-বেলারুশ শিল্প পার্কের মতো প্রকল্প বাস্তবায়ন করা এবং আরও ফলাফল অর্জনের জন্য চীন-বেলারুশ শিল্প সহযোগিতার প্রচার করা; উভয় পক্ষেরই উচিত আন্তঃসীমান্ত পরিবহনব্যবস্থা উন্নত করা এবং অর্থনৈতিক, বাণিজ্যিক ও সাংস্কৃতিক খাতে বিনিময় বাড়ানো।
তিনি বলেন, চীন ও বেলারুশ বৈশ্বিক শাসনব্যবস্থার সংস্কার ও নির্মাণে অংশগ্রহণকারী গুরুত্বপূর্ণ শক্তি। চীন জাতিসংঘ ও শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার মতো বহুপাক্ষিক ব্যবস্থার মধ্যে সমন্বয় ও সহযোগিতা জোরদার করতে, বৈশ্বিক উন্নয়ন উদ্যোগ, বৈশ্বিক নিরাপত্তা উদ্যোগ, এবং বিশ্ব সভ্যতা উদ্যোগ বাস্তবায়ন করতে, এবং মানবজাতির অভিন্ন কল্যাণের সমাজ গড়ে তোলার জন্য বেলারুশের সাথে কাজ করতে ইচ্ছুক।

জবাবে লুকাশেঙ্কো বলেন, তার দেশ চীনের সাথে অটলভাবে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক জোরদার করবে; উচ্চ-স্তরের আদান-প্রদান জোরদার করবে; পারস্পরিক কল্যাণকর সহযোগিতা আরও গভীর করবে; এবং বেলারুশ-চীন সর্বজনীন সার্বিক কৌশলগত অংশীদারিত্বের সম্পর্কের বিকাশ ঘটাবে।
সূত্র: চায়না মিডিয়া গ্রুপ।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

দৈনিক মুক্তির লড়াই পত্রিকার চতুর্থ বর্ষে পদার্পন উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

বেলারুশ-চীন সর্বজনীন সার্বিক কৌশলগত অংশীদারিত্বের সম্পর্কের বিকাশ ঘটাবে; লুকাশেঙ্কো

আপডেট সময় ১০:২৮:৩৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৫ ডিসেম্বর ২০২৩

স্বর্ণা:

৪ঠা ডিসেম্বর সোমবার চীনের প্রেসিডেন্ট সি চিন পিং বেইজিংয়ে বেলারুশের সফররত প্রেসিডেন্ট আলেক্সান্ডার লুকাশেঙ্কোর সঙ্গে এক বৈঠকে মিলিত হন।

বৈঠকে সি চিন পিং বলেন, তার দেশ সর্বদা বেলারুশের সাথে সম্পর্ককে কৌশলগত ও দীর্ঘমেয়াদী দৃষ্টিকোণ থেকে দেখে; বেলারুশকে তার জাতীয় অবস্থার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ উন্নয়নের পথ বেছে নিতে দৃঢ়ভাবে সমর্থন করে এবং বেলারুশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপকারী বহিরাগত শক্তির বিরোধিতা করে।

সি চিন পিং জোর দিয়ে বলেন, দশ বছর আগে তিনি “বেল্ট অ্যান্ড রোড” উদ্যোগ প্রস্তাব করেন এবং এখন পর্যন্ত ১৫০টিরও বেশি দেশ এ উদ্যোগে সামিল হয়েছে। কিছুদিন আগে তিনি “বেল্ট অ্যান্ড রোড” উদ্যোগের উচ্চ-মানের বাস্তবায়নের স্বার্থে আট-দফা পদক্ষেপের কথা বলেন এবং বেলারুশকে এতে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করতে আহ্বান জানান।

প্রেসিডেন্ট সি বলেন, উভয় পক্ষের উচিত চীন-বেলারুশ শিল্প পার্কের মতো প্রকল্প বাস্তবায়ন করা এবং আরও ফলাফল অর্জনের জন্য চীন-বেলারুশ শিল্প সহযোগিতার প্রচার করা; উভয় পক্ষেরই উচিত আন্তঃসীমান্ত পরিবহনব্যবস্থা উন্নত করা এবং অর্থনৈতিক, বাণিজ্যিক ও সাংস্কৃতিক খাতে বিনিময় বাড়ানো।
তিনি বলেন, চীন ও বেলারুশ বৈশ্বিক শাসনব্যবস্থার সংস্কার ও নির্মাণে অংশগ্রহণকারী গুরুত্বপূর্ণ শক্তি। চীন জাতিসংঘ ও শাংহাই সহযোগিতা সংস্থার মতো বহুপাক্ষিক ব্যবস্থার মধ্যে সমন্বয় ও সহযোগিতা জোরদার করতে, বৈশ্বিক উন্নয়ন উদ্যোগ, বৈশ্বিক নিরাপত্তা উদ্যোগ, এবং বিশ্ব সভ্যতা উদ্যোগ বাস্তবায়ন করতে, এবং মানবজাতির অভিন্ন কল্যাণের সমাজ গড়ে তোলার জন্য বেলারুশের সাথে কাজ করতে ইচ্ছুক।

জবাবে লুকাশেঙ্কো বলেন, তার দেশ চীনের সাথে অটলভাবে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক জোরদার করবে; উচ্চ-স্তরের আদান-প্রদান জোরদার করবে; পারস্পরিক কল্যাণকর সহযোগিতা আরও গভীর করবে; এবং বেলারুশ-চীন সর্বজনীন সার্বিক কৌশলগত অংশীদারিত্বের সম্পর্কের বিকাশ ঘটাবে।
সূত্র: চায়না মিডিয়া গ্রুপ।