ঢাকা ১০:১১ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সুদখোরের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সুহিলপুর গৌতমপাড়া এলাকায় সুদখোরের ভয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন গোপাল রায়ের ছেলে অভিমুন্য রায় ও তার পরিবার । এই বিষয়ে গত (২১এপ্রিল) সদর থানায় সাজেদা বেগম, রূপবান বেগম ও দানা হাজারীর নামে একটি অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী অভিমুন্য রায়।

ভুক্তভোগী ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, অভিমূন্য রায় আশুগঞ্জ উপজেলায় একটি ফার্নিচারের দোকানে কাঠমিস্ত্রীর কাজ করে। অভিমুন্য রায়ের বাবা গোপাল রায় স্ট্রোক করে অসুস্থ হয়ে পড়ায় একই এলাকার বাচ্চু মিয়ার মেয়ে সাজেদা বেগম ও বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী রূপবান বেগমের কাছ থেকে একলক্ষ টাকা এবং সহিদ হাজারির ছেলে দানা হাজারীর কাছ থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকা সট্যাম্পের মাধ্যমে কর্জ নেয় অভিমুন্য রায়। ওই টাকা সুদে আসলে নিয়মিত দিয়ে আসছেন। কিন্তু সুদখোর আসামিগন অন্যায় ভাবে অতিরিক্ত টাকা দাবি করে চাপ প্রয়োগ করে আসছে।

অভিমুন্য রায় বলেন বাচ্চু মিয়ার মেয়ে সাজেদা বেগম ও বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী রূপবান বেগমের কাছ থেকে একলক্ষ টাকা সে। এর থেকে ৪০ হাজার টাকা পরিশোধ করে অভিমুন্য। আর সহিদ হাজারির ছেলে দানা হাজারীর কাছ থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকা নিয়ে ২০ হাজার টাকা পরিশোধ করে সে। বাকি টাকা যত দ্রুত সম্ভব পরিশোধ করে দিবো বলার তারা আমার নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে নাজেহাল করছে। এছাড়া আসামিগন আমাকে স্বপরিবারে মেরে লাশ গুম করে ফেলার হুমকি দিয়ে আসছে। আমি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতেছি। আমি প্রশাসনের কাছে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানাচ্ছি।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম বলেন, একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় সুদখোরের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ

আপডেট সময় ১০:২২:০৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৪ মে ২০২৩

সরাইল (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি:
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সুহিলপুর গৌতমপাড়া এলাকায় সুদখোরের ভয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন গোপাল রায়ের ছেলে অভিমুন্য রায় ও তার পরিবার । এই বিষয়ে গত (২১এপ্রিল) সদর থানায় সাজেদা বেগম, রূপবান বেগম ও দানা হাজারীর নামে একটি অভিযোগ দায়ের করেন ভুক্তভোগী অভিমুন্য রায়।

ভুক্তভোগী ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, অভিমূন্য রায় আশুগঞ্জ উপজেলায় একটি ফার্নিচারের দোকানে কাঠমিস্ত্রীর কাজ করে। অভিমুন্য রায়ের বাবা গোপাল রায় স্ট্রোক করে অসুস্থ হয়ে পড়ায় একই এলাকার বাচ্চু মিয়ার মেয়ে সাজেদা বেগম ও বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী রূপবান বেগমের কাছ থেকে একলক্ষ টাকা এবং সহিদ হাজারির ছেলে দানা হাজারীর কাছ থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকা সট্যাম্পের মাধ্যমে কর্জ নেয় অভিমুন্য রায়। ওই টাকা সুদে আসলে নিয়মিত দিয়ে আসছেন। কিন্তু সুদখোর আসামিগন অন্যায় ভাবে অতিরিক্ত টাকা দাবি করে চাপ প্রয়োগ করে আসছে।

অভিমুন্য রায় বলেন বাচ্চু মিয়ার মেয়ে সাজেদা বেগম ও বাচ্চু মিয়ার স্ত্রী রূপবান বেগমের কাছ থেকে একলক্ষ টাকা সে। এর থেকে ৪০ হাজার টাকা পরিশোধ করে অভিমুন্য। আর সহিদ হাজারির ছেলে দানা হাজারীর কাছ থেকে পঞ্চাশ হাজার টাকা নিয়ে ২০ হাজার টাকা পরিশোধ করে সে। বাকি টাকা যত দ্রুত সম্ভব পরিশোধ করে দিবো বলার তারা আমার নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে নাজেহাল করছে। এছাড়া আসামিগন আমাকে স্বপরিবারে মেরে লাশ গুম করে ফেলার হুমকি দিয়ে আসছে। আমি বর্তমানে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতেছি। আমি প্রশাসনের কাছে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানাচ্ছি।

এই বিষয়ে জানতে চাইলে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম বলেন, একটি অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।