ঢাকা ০৬:৩২ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৪ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মহেশখালীতে নিখোঁজ বোট উদ্ধার ও অস্ত্রসহ ৩ জলদস্যু আটক

কক্সবাজার জেলার মহেশখালীতে ডাকাতের কবলে পড়ে ১৪ মাঝি মাল্লাসহ নিখোঁজ হওয়া বোটটি মাঝি মাল্লা সহ অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করেছে মহেশখালী থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২ফেব্রুয়ারি) গভীর রাতে মোবাইল ট্রেকিং করে অভিযান চালিয়ে ভোর রাতে অস্ত্র ও সরঞ্জামসহ সম্পৃক্ত তিনজন ডাকাতকেও আটক করেছে। মহেশখালীর কুতুবজোম ইউনিয়নের ঘটিভাঙ্গা এলাকার মঞ্জুর ডাকাতের ঘর থেকে তাদেরকে আটক করা হয় বলে জানাযায়৷

আটককৃত হলেন, কুতুবজুম তাজিয়াকাটার জাফর আলমের পুত্র মোঃ কাইছার (১৯), আব্দুল মালেকের পুত্র সোনা মিয়া ও ঘটিভাঙ্গার মকবুল মিয়ার পূত্র তারেক (২৬)। তাদের থেকে ২টি দেশীয় তৈরী একনলা বন্ধুক, ১টি দেশীয় তৈরী এল জি, ২টি কিরিস, ১টি দা, ১০টি মোবাইল, ২টি হাতঘড়ি, ও ফিশিং বোডের ইঞ্জিনের সেলফ উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন মহেশখালী থানার ওসি তদন্ত আব্দুর রাজ্জাক মীর। তিনি আরো জানান, গত ২৯ জানুয়ারী কক্সবাজারে একটি বোট কক্সবাজারের নাজিরারটেক সাগরে জলদস্যুর কবলে পড়েছে মর্মে ১ ফেব্রুয়ারী থানায় জিডি করেন বোট মালিক মোহাম্মদ শাহদাত। তার অনুসন্ধান করতে গিয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুতুবজুমের ঘটিভাঙ্গার মঞ্জুর ডাকাতের বাড়ি থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মন্জুর ডাকাত পালিয়ে যায়। এটা নিয়ে মহেশখালী থানায় অস্ত্র মামলা ও কক্সবাজার সদর থানায় ডাকাতী মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
জলদস্যুদের আগামীকাল আদালতে সোপার্দ্ধ করা হবে বলে জানান।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

মহেশখালীতে নিখোঁজ বোট উদ্ধার ও অস্ত্রসহ ৩ জলদস্যু আটক

আপডেট সময় ০২:৫০:১১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩

কক্সবাজার জেলার মহেশখালীতে ডাকাতের কবলে পড়ে ১৪ মাঝি মাল্লাসহ নিখোঁজ হওয়া বোটটি মাঝি মাল্লা সহ অক্ষত অবস্থায় উদ্ধার করেছে মহেশখালী থানা পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২ফেব্রুয়ারি) গভীর রাতে মোবাইল ট্রেকিং করে অভিযান চালিয়ে ভোর রাতে অস্ত্র ও সরঞ্জামসহ সম্পৃক্ত তিনজন ডাকাতকেও আটক করেছে। মহেশখালীর কুতুবজোম ইউনিয়নের ঘটিভাঙ্গা এলাকার মঞ্জুর ডাকাতের ঘর থেকে তাদেরকে আটক করা হয় বলে জানাযায়৷

আটককৃত হলেন, কুতুবজুম তাজিয়াকাটার জাফর আলমের পুত্র মোঃ কাইছার (১৯), আব্দুল মালেকের পুত্র সোনা মিয়া ও ঘটিভাঙ্গার মকবুল মিয়ার পূত্র তারেক (২৬)। তাদের থেকে ২টি দেশীয় তৈরী একনলা বন্ধুক, ১টি দেশীয় তৈরী এল জি, ২টি কিরিস, ১টি দা, ১০টি মোবাইল, ২টি হাতঘড়ি, ও ফিশিং বোডের ইঞ্জিনের সেলফ উদ্ধার করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন মহেশখালী থানার ওসি তদন্ত আব্দুর রাজ্জাক মীর। তিনি আরো জানান, গত ২৯ জানুয়ারী কক্সবাজারে একটি বোট কক্সবাজারের নাজিরারটেক সাগরে জলদস্যুর কবলে পড়েছে মর্মে ১ ফেব্রুয়ারী থানায় জিডি করেন বোট মালিক মোহাম্মদ শাহদাত। তার অনুসন্ধান করতে গিয়ে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কুতুবজুমের ঘটিভাঙ্গার মঞ্জুর ডাকাতের বাড়ি থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে মন্জুর ডাকাত পালিয়ে যায়। এটা নিয়ে মহেশখালী থানায় অস্ত্র মামলা ও কক্সবাজার সদর থানায় ডাকাতী মামলা রুজু প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
জলদস্যুদের আগামীকাল আদালতে সোপার্দ্ধ করা হবে বলে জানান।