বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

মালদ্বীপের উন্নয়নে প্রবাসীদের অবদানের প্রশংসায় উপ-রাষ্ট্রপতি

Muktir Lorai / ৫১ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার, ২৬ মে, ২০২২

মোঃ ওমর ফারুক অনিক”মালদ্বীপ থেকেঃ বুধবার ২৫, মে মালদ্বীপের উপ-রাষ্ট্রপতি ফয়সাল নাসিমের সঙ্গে বাংলাদেশ হাইকমিশনার জনাব রিয়ার এডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ এর সাথে সৌহার্দ্যপূর্ণ একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

উপ-রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ে বুধবার সন্ধ্যায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে বাংলাদেশ হাইকমিশনার রিয়ার অ্যাডমিরাল এস এম আবুল কালাম আজাদ এর সৌজন্য সাক্ষাৎ’তে উপ-রাষ্ট্রপতি জনাব ফয়সাল নাসিম মালদ্বীপের উন্নয়নে বাংলাদেশি কর্মীদের অবদানের জন্য প্রশংসা করেন।

অনুষ্ঠিত বৈঠকে, উপ-রাষ্ট্রপতি জনাব ফয়সাল নাসিম এবং বাংলাদেশ হাইকমিশনার জনাব এস এম আবুল কালাম আজাদ পারস্পরিক স্বার্থ এবং সহযোগিতার ক্ষেত্রগুলি নিয়ে আলোচনা করেন। যার মধ্যে জনগণের মধ্যে মিথস্ক্রিয়া, বাণিজ্য, স্বাস্থ্যসেবা, পর্যটন এবং মানবসম্পদ উন্নয়নের সুযোগ রয়েছে। জনাব ফয়সাল নাসিম বলেন, তিনি মালদ্বীপের উন্নয়নে বাংলাদেশি কর্মশক্তির অবদানকে খুবই মূল্যায়ন করেন। তিনি এ-ও বলেছিলেন যে কর্মক্ষেত্রের নিরাপত্তা এবং শ্রমিকদের জন্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করন মালদ্বীপের সরকারের জন্য একটি শীর্ষ অগ্রাধিকার ছিল, এবং প্রতিটির ফ্রন্টে অনেক কিছু করার বাকিও ছিল। তিনি আরও বলেন যে মালদ্বীপ সরকার প্রবাসী বাংলাদেশি কর্মীদের নিয়মিতকরণের জন্য দ্রুত কাজ করছে এবং মালদ্বীপের প্রতিটি উন্নয়নমূলক প্রকল্পের প্রবাহের সাথে শ্রমিকদের নিয়োগ বৃদ্ধির প্রয়োজনীয়তার উপরও গুরুত্বারোপ করছেন।

মান্যবর বাংলাদেশ হাইকমিশনার বলেন যে, ইতিমধ্যে, করোনা মহামারী চলাকালীন মালদ্বীপে কর্মরত প্রবাসী বাংলাদেশী নাগরিকদের এবং ভ্যাকসিন ইক্যুইটি নীতির জন্য প্রদত্ত সহায়তায় মালদ্বীপ সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন, এবং নিশ্চিত করেছেন যে প্রবাসী বাংলাদেশিরা সময়মত ভ্যাকসিন সেবা পেয়েছেন। এবং তিনি অনথিভুক্ত প্রবাসী বাংলাদেশী কর্মীদের দ্রুত বৈধ করন ও শ্রমবাজার উন্মুক্ত করনের জন্যও অনুরোধ জানান।এসময় এম্বাসেডর এট লার্জ আব্দুল গফুর মোহাম্মদ এবং মিশনের প্রথম সচিব জনাব মোঃ সোহেল পারভেজ ও তৃতীয় সচিব জনাব মিজানুর রহমান ভূঁইয়া উপস্থিত ছিলেন।

উপ-রাষ্ট্রপতি জনাব ফয়সাল নাসিম এবং বাংলাদেশ হাইকমিশনার এস এম আবুল কালাম আজাদ উভয় দেশের রাষ্ট্র ও সরকারের নেতৃবৃন্দের পূর্ববর্তী উচ্চ-পর্যায়ের সফল সফর নিয়ে আলোচনা করেছেন এবং বলেছেন যে মিথস্ক্রিয়াগুলি দুই দেশের সম্পর্ককে আরও শক্তিশালী করেছে। বৈঠক শেষে উপ-রাষ্ট্রপতি ও বাংলাদেশ হাইকমিশনার দুই দেশের মধ্যে দীর্ঘস্থায়ী দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক আরও জোরদার করার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।

প্রসঙ্গত্ব, মালদ্বীপ এবং বাংলাদেশ ১৯৭৮ সালের, ২২শে, সেপ্টেম্বর কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করেন। বর্তমানে কূটনৈতিক সম্পর্কের পয়তাল্লিশ তম বছরের পদার্পণ করেছেন।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »