ঢাকা ০৩:০৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোল্লাহাটে বিয়ে বাড়িতে কনে পক্ষের হামলায় বরের দুলাভাইয়ের মৃত্যু

xr:d:DAGCJ1WEKAU:11,j:7784896645264597573,t:24041300

অতনু চৌধুরী (রাজু), বাগেরহাট

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে বিয়ে বাড়িতে কনে পক্ষের হামলায় বরের দুলাভাই আজিজুল হক (৪৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় মোল্লাহাট উপজেলার আংড়া গ্রামের এই ঘটনা ঘটে।

নিহত আজিজুল হক খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলার ইছামতী গ্রামের শাহাদাত মোল্লার ছেলে এবং বরের বোন জামাই। তার স্ত্রী ও ৪টি মেয়ে রয়েছে।

এ বিষয়ে বরের বাবা মোহাম্মাদ আলী গাজীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আংড়া এলাকার শাহাদাত মুন্সির সঙ্গে আমার ছেলে হাফিজুর রহমান গাজীর বিয়ের কথা হয়েছিল। আমরা আগেই বলেছিলাম যে – ছেলের মেয়ে দেখে পছন্দ হলে বিয়ে হবে।

সেই শর্তেই আজকে আমরা সবাই ওই বাড়িতে গিয়েছিলাম। কিন্তু মেয়ে দেখে ছেলের পছন্দ না হওয়ায় আমরা চলে যাচ্ছিলাম।
এ সময় মেয়ের বাড়ির লোকজন আমাদের ওপর হামলা চালায় কনে পক্ষের লোকজন। হামলায় আমার বড় জামাই আজিজুল হক নিহত হয়েছেন। আমি এই হত্যাকাণ্ডের বিচার চাই।
এ ঘটনায় কথা বলার জন্য কনে পক্ষের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কাউকে পাওয়া যায়নি।

মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম আশরাফুল আলম বলেন, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। উভয় পক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

আপলোডকারীর তথ্য

মোল্লাহাটে বিয়ে বাড়িতে কনে পক্ষের হামলায় বরের দুলাভাইয়ের মৃত্যু

আপডেট সময় ০৬:৩৫:০৩ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪

অতনু চৌধুরী (রাজু), বাগেরহাট

বাগেরহাটের মোল্লাহাটে বিয়ে বাড়িতে কনে পক্ষের হামলায় বরের দুলাভাই আজিজুল হক (৪৫) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) সন্ধ্যায় মোল্লাহাট উপজেলার আংড়া গ্রামের এই ঘটনা ঘটে।

নিহত আজিজুল হক খুলনা জেলার তেরখাদা উপজেলার ইছামতী গ্রামের শাহাদাত মোল্লার ছেলে এবং বরের বোন জামাই। তার স্ত্রী ও ৪টি মেয়ে রয়েছে।

এ বিষয়ে বরের বাবা মোহাম্মাদ আলী গাজীর কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আংড়া এলাকার শাহাদাত মুন্সির সঙ্গে আমার ছেলে হাফিজুর রহমান গাজীর বিয়ের কথা হয়েছিল। আমরা আগেই বলেছিলাম যে – ছেলের মেয়ে দেখে পছন্দ হলে বিয়ে হবে।

সেই শর্তেই আজকে আমরা সবাই ওই বাড়িতে গিয়েছিলাম। কিন্তু মেয়ে দেখে ছেলের পছন্দ না হওয়ায় আমরা চলে যাচ্ছিলাম।
এ সময় মেয়ের বাড়ির লোকজন আমাদের ওপর হামলা চালায় কনে পক্ষের লোকজন। হামলায় আমার বড় জামাই আজিজুল হক নিহত হয়েছেন। আমি এই হত্যাকাণ্ডের বিচার চাই।
এ ঘটনায় কথা বলার জন্য কনে পক্ষের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কাউকে পাওয়া যায়নি।

মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম আশরাফুল আলম বলেন, নিহতের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। উভয় পক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করা হচ্ছে। এখন পর্যন্ত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।