ঢাকা ০৯:০৪ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৫ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম
Logo রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা Logo ফকিরহাটে নির্বাচন পরবর্তি সংহিসতা মসজিদের ভেতর হামলা, আহত- ৩ Logo বরুড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তার বিদায় ও বরন অনুষ্ঠিত Logo প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল-জয়দেবপুর থানার ওসির কান্ড! Logo রাজউক আইন ভঙ্গ করে বহুতল ভবন/মার্কেট নির্মাণ (পর্ব-২) Logo বড় ভাইকে বাঁচাতে গিয়ে বিদ্যুতায়িত হয়ে দুই ভাইয়ের মৃত্যু Logo ঘূর্ণিঝড় রেমাল’র প্রস্তুতি পর্যবেক্ষণে দুর্যোগ প্রতিমন্ত্রী মুহিব Logo সাদুল্লাপুরে ১০কেজি শুকনো গাঁজাসহ দুইজন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার Logo এমপি আনারের মাংস কেটে কিমা করা কসাই জিহাদের ১২ দিনের রিমান্ড Logo চাকরি গেলেও কর্মকর্তা পরিচয়ে প্রতারণা করতেন শাহারুল

রাজশাহীর জলাশয় পুনরুদ্ধারে ধীর গতির কারন দূর্নীতি: সবুজ আন্দোলন

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে আবহাওয়ার তারতম্য দেখা দিয়েছে দেখা দিয়েছে ভূগর্ভস্থ পানির স্বল্পতা। সাম্প্রতিক সময়ে একটি জরিপে দেখা গেছে অনাবৃষ্টির ফলে ভূগর্ভস্থ পানি লেয়ার আশঙ্কাজনক হারে কমছে। আজ ১৯ নভেম্বর সকালে সবুজ আন্দোলন রাজশাহী জেলা শাখার উদ্যোগে শহরের আইডিইবি ভবনে” জলাশয় পুনরুদ্ধারে করণীয় ও নতুন জেলা কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। এ সময় নেতারা বলেন রাজশাহীর জলাশয়ে পুনরুদ্ধার না হওয়ার প্রধান কারণ দুর্নীতি। সাম্প্রতিক সময়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একনেকে রাজশাহী জেলার উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য ৩ হাজার কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করেন। যেখানে জলাশয়ে পুনরুদ্ধারের জন্য বিশাল বড় অংকের বাজেট থাকলেও কাজের অগ্রগতি নেই বললেই চলে। বিভিন্ন ওয়ার্ডে ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের নেতাদের ছত্রছায়ায় পুকুরগুলো ভরাট করার পাশাপাশি উপজেলাগুলোতেও একই চিত্র অব্যাহত রয়েছে।

সবুজ আন্দোলন রাজশাহী জেলার আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার জিয়া উদ্দিন আহমেদ জিয়া’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সবুজ আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার। উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন এসিআই গোদরেজ এগ্রোভেট প্রা: লিঃ রাজশাহী ফিডমিলের ম্যানেজার ইঞ্জিনিয়ার রবি শংকর ঘোষ। প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সবুজ আন্দোলন পরিচালনা পরিষদের পরিচালক অধ্যক্ষ নাদিয়া নূর তনু। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী জেলা নিরাপদ সড়ক চাই এর সভাপতি এ্যাড. তৌফিক আহসান টিটু, চলনবিল ও প্রকৃতি উন্নয়ন ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার জুনায়েদ আহমেদ, রাজশাহী মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিন আলম মোস্তফা।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, সবুজায়নের নগরী রাজশাহীকে বলা হলেও সাম্প্রতিক সময়ে সবুজ প্রকৃতি ধ্বংসের পাশাপাশি পদ্মা নদীর অবৈধ বালু উত্তোলন অব্যাহত রয়েছে। পাশাপাশি সরকারের দেওয়া উন্নয়ন প্রকল্প এবং জলাশয় পুনরুদ্ধারে খুব বেশি তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না। এক্ষেত্রে দুর্নীতি প্রধান অন্তরায়।

প্রধান আলোচক তার বক্তব্য বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সব সময় জনগণের জন্য প্রত্যেক জেলায় উন্নয়নের পর্যাপ্ত বাজেট দিচ্ছে কিন্তু কতিপয় নেতার কারণে তৃণমূল পর্যায়ে সঠিকভাবে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগছে না। আমরা আশা করি বিশাল এই বাজেটে জনগণের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা প্রতিয়মান হবে।

অনুষ্ঠানের সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, আমার শিখর এই রাজশাহীতে। এক সময় পদ্মা নদীতে নৌ পরিবহনের মাধ্যমে সকল যাতায়াত ব্যবস্থা ছিল। কালের বিবর্তনে তা বিলীন হয়েছে। জলাশয় পুনরুদ্ধারের জন্য সবুজ আন্দোলনের নেতৃত্বে খুব দ্রুত প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় করা হবে। সংগঠনের পক্ষ থেকে সর্ব স্থানের জনগণের সহযোগিতা কামনা করছি।

সবুজ আন্দোলন রাজশাহী জেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক ইঞ্জিনিয়ার আরিফুল ইসলাম আরিফের সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলার সদস্য সচিব আখতারুল ইসলাম খন্দকার, যুগ্ম আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার আশিকুর রসুল পিয়াল, কামরুজ্জামান রাকিব,ডাক্তার আমানউল্লাহ আবিদ, শারমিন সুলতানা, সামাউন ইসলাম, সাখাওয়াত হোসেন, সদস্য আলমগীর হোসেন, রাকিবুল ইসলাম, আশফাকুল হাদী প্রমূখ।

আপলোডকারীর তথ্য

রূপগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা

রাজশাহীর জলাশয় পুনরুদ্ধারে ধীর গতির কারন দূর্নীতি: সবুজ আন্দোলন

আপডেট সময় ০২:৪৪:১৯ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৯ নভেম্বর ২০২২

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: জলবায়ু পরিবর্তনের ফলে আবহাওয়ার তারতম্য দেখা দিয়েছে দেখা দিয়েছে ভূগর্ভস্থ পানির স্বল্পতা। সাম্প্রতিক সময়ে একটি জরিপে দেখা গেছে অনাবৃষ্টির ফলে ভূগর্ভস্থ পানি লেয়ার আশঙ্কাজনক হারে কমছে। আজ ১৯ নভেম্বর সকালে সবুজ আন্দোলন রাজশাহী জেলা শাখার উদ্যোগে শহরের আইডিইবি ভবনে” জলাশয় পুনরুদ্ধারে করণীয় ও নতুন জেলা কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়। এ সময় নেতারা বলেন রাজশাহীর জলাশয়ে পুনরুদ্ধার না হওয়ার প্রধান কারণ দুর্নীতি। সাম্প্রতিক সময়ে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী একনেকে রাজশাহী জেলার উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য ৩ হাজার কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করেন। যেখানে জলাশয়ে পুনরুদ্ধারের জন্য বিশাল বড় অংকের বাজেট থাকলেও কাজের অগ্রগতি নেই বললেই চলে। বিভিন্ন ওয়ার্ডে ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের নেতাদের ছত্রছায়ায় পুকুরগুলো ভরাট করার পাশাপাশি উপজেলাগুলোতেও একই চিত্র অব্যাহত রয়েছে।

সবুজ আন্দোলন রাজশাহী জেলার আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার জিয়া উদ্দিন আহমেদ জিয়া’র সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সবুজ আন্দোলনের প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালনা পরিষদের চেয়ারম্যান বাপ্পি সরদার। উদ্বোধক হিসেবে বক্তব্য রাখেন এসিআই গোদরেজ এগ্রোভেট প্রা: লিঃ রাজশাহী ফিডমিলের ম্যানেজার ইঞ্জিনিয়ার রবি শংকর ঘোষ। প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সবুজ আন্দোলন পরিচালনা পরিষদের পরিচালক অধ্যক্ষ নাদিয়া নূর তনু। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন রাজশাহী জেলা নিরাপদ সড়ক চাই এর সভাপতি এ্যাড. তৌফিক আহসান টিটু, চলনবিল ও প্রকৃতি উন্নয়ন ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার জুনায়েদ আহমেদ, রাজশাহী মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক মহসিন আলম মোস্তফা।

প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন, সবুজায়নের নগরী রাজশাহীকে বলা হলেও সাম্প্রতিক সময়ে সবুজ প্রকৃতি ধ্বংসের পাশাপাশি পদ্মা নদীর অবৈধ বালু উত্তোলন অব্যাহত রয়েছে। পাশাপাশি সরকারের দেওয়া উন্নয়ন প্রকল্প এবং জলাশয় পুনরুদ্ধারে খুব বেশি তৎপরতা দেখা যাচ্ছে না। এক্ষেত্রে দুর্নীতি প্রধান অন্তরায়।

প্রধান আলোচক তার বক্তব্য বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সব সময় জনগণের জন্য প্রত্যেক জেলায় উন্নয়নের পর্যাপ্ত বাজেট দিচ্ছে কিন্তু কতিপয় নেতার কারণে তৃণমূল পর্যায়ে সঠিকভাবে উন্নয়নের ছোঁয়া লাগছে না। আমরা আশা করি বিশাল এই বাজেটে জনগণের উন্নয়নের অগ্রযাত্রা প্রতিয়মান হবে।

অনুষ্ঠানের সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, আমার শিখর এই রাজশাহীতে। এক সময় পদ্মা নদীতে নৌ পরিবহনের মাধ্যমে সকল যাতায়াত ব্যবস্থা ছিল। কালের বিবর্তনে তা বিলীন হয়েছে। জলাশয় পুনরুদ্ধারের জন্য সবুজ আন্দোলনের নেতৃত্বে খুব দ্রুত প্রশাসন ও জনপ্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় করা হবে। সংগঠনের পক্ষ থেকে সর্ব স্থানের জনগণের সহযোগিতা কামনা করছি।

সবুজ আন্দোলন রাজশাহী জেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক ইঞ্জিনিয়ার আরিফুল ইসলাম আরিফের সঞ্চালনায় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলার সদস্য সচিব আখতারুল ইসলাম খন্দকার, যুগ্ম আহ্বায়ক ইঞ্জিনিয়ার আশিকুর রসুল পিয়াল, কামরুজ্জামান রাকিব,ডাক্তার আমানউল্লাহ আবিদ, শারমিন সুলতানা, সামাউন ইসলাম, সাখাওয়াত হোসেন, সদস্য আলমগীর হোসেন, রাকিবুল ইসলাম, আশফাকুল হাদী প্রমূখ।