ঢাকা ০২:২৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

রূপগঞ্জে মন্দিরে হামলাকারীদের শাস্তির দাবিতে সমাবেশ ও বিক্ষোভ

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি:
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার কেয়ারিয়া উত্তরপাড়া সর্বজননী কালি মন্দিরে নিরীহ মানুষের উপর অতর্কিত হামলা ও মন্দিরের জমি আত্মসাৎকারীদের শাস্তির দাবিতে সমাবেশ ও বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী। গতকাল ২০ মে শনিবার সর্বজননী কালি মন্দিরে এ সমাবেশ ও বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন কেয়ারিয়া উত্তরপাড়া সর্বজননী কালি মন্দিরে সভাপতি হরি আনন্দ মন্ডল। সভায় বক্তব্য রাখেন মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক অপু সরকার, সহ সভাপতি সুমন সরকার, অরুল সরকার, খোকন সরকার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মরণ চন্দ্র সরকার ও নকুল চন্দ্র সরকার প্রমুখ। পরে সমাবেশ শেষে এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে মন্দিরের আশপাশের সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
উল্লেখ্য, গত ১৮ মে বৃহস্পতিবার মন্দিরের সভাপতি হরি আনন্দ মন্ডলের ভাই রামানন্দ মন্ডল প্রতিদিনের মতো মন্দিরে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ করতে গেলে পূর্বশত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের ১৪-১৫ সদস্যের এক দল সন্ত্রাসী জোটবদ্ধভাবে লোহার রড, বাঁশের লাঠি সোটা দিয়ে তাকে খুন করার উদ্দেশ্যে এলোপাথারীভাবে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্নস্থানে নীলাফুলা জখম করে। এসময় রামানন্দ মন্ডলের ডাক চিৎকারে নয়ন তারা রাণী (৬০), নিত্যানন্দ সরকার (৫৫) ও অবলা রাণী ঘটনাস্থলে ছুটে আসলে সন্ত্রাসীরা তাদেরকেও এলোপাথারিভাবে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলাফুলা জখম করে। এসময় সন্ত্রাসীরা ১ ভরি একটি স্বর্ণের চেইন লুটে নেয়। আহতদের রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।
এ ঘটনায় কেয়ারিয়া উত্তরপাড়া সর্বজননী কালি মন্দিরের সভাপতি বাদী হয়ে একই এলাকার পরেশ সরকার (৫৮), সবুজ সরকার (৩৫), শৈবাল সরকার (৩৩), অচিন্ত কুমার টিটু (৪০), মিহির সরকার খোকা (৪২), সমির সরকার (২৭), মৃনাল সরকারহরি (৩৩), হরিশ সরকার (৪৫), শীতল সরকার (৪০), অসিম সরকারসহ (২০) আরো অজ্ঞাত ১৪-১৫ জনকে আসামী করে রূপগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
রূপগঞ্জ থানার ওসি এএফএম সায়েদ বলেন, হামলার ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

রূপগঞ্জে মন্দিরে হামলাকারীদের শাস্তির দাবিতে সমাবেশ ও বিক্ষোভ

আপডেট সময় ০৪:৪৫:২৮ অপরাহ্ন, শনিবার, ২০ মে ২০২৩

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি:
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার কেয়ারিয়া উত্তরপাড়া সর্বজননী কালি মন্দিরে নিরীহ মানুষের উপর অতর্কিত হামলা ও মন্দিরের জমি আত্মসাৎকারীদের শাস্তির দাবিতে সমাবেশ ও বিক্ষোভ করেছে এলাকাবাসী। গতকাল ২০ মে শনিবার সর্বজননী কালি মন্দিরে এ সমাবেশ ও বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। আয়োজিত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন কেয়ারিয়া উত্তরপাড়া সর্বজননী কালি মন্দিরে সভাপতি হরি আনন্দ মন্ডল। সভায় বক্তব্য রাখেন মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক অপু সরকার, সহ সভাপতি সুমন সরকার, অরুল সরকার, খোকন সরকার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মরণ চন্দ্র সরকার ও নকুল চন্দ্র সরকার প্রমুখ। পরে সমাবেশ শেষে এলাকাবাসী বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে মন্দিরের আশপাশের সড়ক প্রদক্ষিণ করে।
উল্লেখ্য, গত ১৮ মে বৃহস্পতিবার মন্দিরের সভাপতি হরি আনন্দ মন্ডলের ভাই রামানন্দ মন্ডল প্রতিদিনের মতো মন্দিরে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার কাজ করতে গেলে পূর্বশত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের ১৪-১৫ সদস্যের এক দল সন্ত্রাসী জোটবদ্ধভাবে লোহার রড, বাঁশের লাঠি সোটা দিয়ে তাকে খুন করার উদ্দেশ্যে এলোপাথারীভাবে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্নস্থানে নীলাফুলা জখম করে। এসময় রামানন্দ মন্ডলের ডাক চিৎকারে নয়ন তারা রাণী (৬০), নিত্যানন্দ সরকার (৫৫) ও অবলা রাণী ঘটনাস্থলে ছুটে আসলে সন্ত্রাসীরা তাদেরকেও এলোপাথারিভাবে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলাফুলা জখম করে। এসময় সন্ত্রাসীরা ১ ভরি একটি স্বর্ণের চেইন লুটে নেয়। আহতদের রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়া হয়।
এ ঘটনায় কেয়ারিয়া উত্তরপাড়া সর্বজননী কালি মন্দিরের সভাপতি বাদী হয়ে একই এলাকার পরেশ সরকার (৫৮), সবুজ সরকার (৩৫), শৈবাল সরকার (৩৩), অচিন্ত কুমার টিটু (৪০), মিহির সরকার খোকা (৪২), সমির সরকার (২৭), মৃনাল সরকারহরি (৩৩), হরিশ সরকার (৪৫), শীতল সরকার (৪০), অসিম সরকারসহ (২০) আরো অজ্ঞাত ১৪-১৫ জনকে আসামী করে রূপগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
রূপগঞ্জ থানার ওসি এএফএম সায়েদ বলেন, হামলার ঘটনায় অভিযোগ পেয়েছি। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। সুষ্ঠু তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।