ঢাকা ০২:০৮ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রেলপ্রজেক্টের চুরি যাওয়া বিপুল পরিমান লোহা জব্দ, আটক এক

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়নের নোয়াগ্রাম গ্রামের রাস্তার পাশে মহিদ খানের গোডাউন থেকে লোহাগড়ার রেলপ্রজেক্টের চুরি যাওয়া প্রজেক্টে ব্যাবহার করা বিপুল পরিমান লোহা জব্দ করেছে লোহাগড়া থানা পুলিশ।

পুলিশ সুত্রে জানা যায় গোপন সংবাদের ভিত্তি ৯ এপ্রিল লোহাগড়া থানার অপারেশন অফিসার পরিদর্শক শেখ মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে এস আই মামুনুর রহমান, এস আই তৌফিক হাসানের নেতৃত্বে লোহাগড়া পুলিশের একটি অভিযানিক দল অভিযান পরিচালনা করে নোয়াগ্রামে মহিদ এর গোডাউন থেকে লোহা জব্দ করে লোহাগড়া থানায় নিয়ে যায়।

সুত্রে জানা যায় এই চোরায় লোহা নোয়াগ্রামের মৃত তাহাজ্জত খানের ছেলে মহিদ খান প্রজেক্ট থেকে আনার অভিযোগ পাওয়া গেছে কিন্তু প্রজেক্টের চায়না ঠিকাদার মিসেস সিং দোভাষী আনোয়ার হোসেনের মাধ্যমে নিশ্চিত করে বলেন মহিদের গোডাউনে যে লোহা তা আমার প্রজেক্টের এবং আমার ক্রয় করা। আমার প্রজেক্ট থেকে এই লোহা চুরি হয়েছে। আমি এই চোর সিন্ডিকেটের হোতা মহিদ সহ সকল জড়িতদের বিচার দাবি করছি এবং আমার প্রোজেক্টের লোহা আমি প্রোজেক্টের কাজের জন্য ফেরত চাই।

এঘটনায় মহিদ পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত মটর সাইকেল যোগে এলাকা থেকে সটকে পড়ে। পরে মহিদের সংগে মুঠোফোনে কথা বলার চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায় নাই।

ওই সময় মহিদের ছেলে জিসান খানকে পুলিশ আটক করে লোহাগড়া থানায় নিয়ে আসে।

লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সেলিম উদ্দিন বলেন প্রোজেক্টের চুরি যাওয়া মাল জব্দ করে থানায় আনা হয়েছে তাছাড়া এই চোর সিন্ডিকেটের সাথে কারা জড়িত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং লোহাগড়া থানায় একটি মামলা রজু করে আসামিকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।

আপলোডকারীর তথ্য

রেলপ্রজেক্টের চুরি যাওয়া বিপুল পরিমান লোহা জব্দ, আটক এক

আপডেট সময় ০২:৩৬:৩১ অপরাহ্ন, রবিবার, ৯ এপ্রিল ২০২৩

নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার দিঘলিয়া ইউনিয়নের নোয়াগ্রাম গ্রামের রাস্তার পাশে মহিদ খানের গোডাউন থেকে লোহাগড়ার রেলপ্রজেক্টের চুরি যাওয়া প্রজেক্টে ব্যাবহার করা বিপুল পরিমান লোহা জব্দ করেছে লোহাগড়া থানা পুলিশ।

পুলিশ সুত্রে জানা যায় গোপন সংবাদের ভিত্তি ৯ এপ্রিল লোহাগড়া থানার অপারেশন অফিসার পরিদর্শক শেখ মিজানুর রহমানের নেতৃত্বে এস আই মামুনুর রহমান, এস আই তৌফিক হাসানের নেতৃত্বে লোহাগড়া পুলিশের একটি অভিযানিক দল অভিযান পরিচালনা করে নোয়াগ্রামে মহিদ এর গোডাউন থেকে লোহা জব্দ করে লোহাগড়া থানায় নিয়ে যায়।

সুত্রে জানা যায় এই চোরায় লোহা নোয়াগ্রামের মৃত তাহাজ্জত খানের ছেলে মহিদ খান প্রজেক্ট থেকে আনার অভিযোগ পাওয়া গেছে কিন্তু প্রজেক্টের চায়না ঠিকাদার মিসেস সিং দোভাষী আনোয়ার হোসেনের মাধ্যমে নিশ্চিত করে বলেন মহিদের গোডাউনে যে লোহা তা আমার প্রজেক্টের এবং আমার ক্রয় করা। আমার প্রজেক্ট থেকে এই লোহা চুরি হয়েছে। আমি এই চোর সিন্ডিকেটের হোতা মহিদ সহ সকল জড়িতদের বিচার দাবি করছি এবং আমার প্রোজেক্টের লোহা আমি প্রোজেক্টের কাজের জন্য ফেরত চাই।

এঘটনায় মহিদ পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে দ্রুত মটর সাইকেল যোগে এলাকা থেকে সটকে পড়ে। পরে মহিদের সংগে মুঠোফোনে কথা বলার চেষ্টা করা হলে তাকে পাওয়া যায় নাই।

ওই সময় মহিদের ছেলে জিসান খানকে পুলিশ আটক করে লোহাগড়া থানায় নিয়ে আসে।

লোহাগড়া থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ সেলিম উদ্দিন বলেন প্রোজেক্টের চুরি যাওয়া মাল জব্দ করে থানায় আনা হয়েছে তাছাড়া এই চোর সিন্ডিকেটের সাথে কারা জড়িত তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং লোহাগড়া থানায় একটি মামলা রজু করে আসামিকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হবে।