ঢাকা ০৩:১৬ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাজেকে আগুনে বাড়ি পুড়ে ছাই

রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের শুকনা ছড়া এলাকায় রান্নার সময় চুলার গ্যাস সিলিন্ডার থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে মুহূর্তেই জেসমিন চাকমার বাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এসময় কেও হতাহত হয়নি। এসময় আগুনে ঘরের যাবতীয় মালামাল সহ বিক্রির জন্য জমিয়ে রাখা লক্ষাধিক ঝাড়ু ফুলও পুড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে সাড়ে ৪ ঘটিকায় এই আগুনের সূত্রপাত হয়। পানির তীব্র সংকট ও আশপাশে লোকজন না থাকায় চোখের সামনেই মুহূর্তে সব শেষ হয়ে যায়। আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত জেসমিন চাকমা বলেন বহু কষ্টে পাহাড় থেকে ঝাড়ু ফুল সংগ্রহ করে বিক্রির জন্য জমিয়ে রেখেছি কত স্বপ্ন ছিলো এগুলো বিক্রি করে ঘরের কাজ ধরবো আগুনে আমার সব স্বপ্ন পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আমাদের আর কিছুই বাকী রইলো না এখন আমরা খোলা আকাশের নিচে থাকতে হবে।

সাজেক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অতুলাল চাকমা আগুনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন- পরিবারটি পথে বসে গেছে, সবমিলিয়ে প্রায় আড়াই লাখ টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সরকারি সহায়তা না পেলে পরিবারটি আর ঘুরে দাড়াতে পারবে না।

এদিকে বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা আক্তার আগুনের ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে পরিবারটির পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সাজেকে আগুনে বাড়ি পুড়ে ছাই

আপডেট সময় ০২:১৯:১৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ এপ্রিল ২০২৩

রাঙ্গামাটির বাঘাইছড়ি উপজেলার সাজেক ইউনিয়নের শুকনা ছড়া এলাকায় রান্নার সময় চুলার গ্যাস সিলিন্ডার থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়ে মুহূর্তেই জেসমিন চাকমার বাড়ি পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এসময় কেও হতাহত হয়নি। এসময় আগুনে ঘরের যাবতীয় মালামাল সহ বিক্রির জন্য জমিয়ে রাখা লক্ষাধিক ঝাড়ু ফুলও পুড়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

৬ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে সাড়ে ৪ ঘটিকায় এই আগুনের সূত্রপাত হয়। পানির তীব্র সংকট ও আশপাশে লোকজন না থাকায় চোখের সামনেই মুহূর্তে সব শেষ হয়ে যায়। আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত জেসমিন চাকমা বলেন বহু কষ্টে পাহাড় থেকে ঝাড়ু ফুল সংগ্রহ করে বিক্রির জন্য জমিয়ে রেখেছি কত স্বপ্ন ছিলো এগুলো বিক্রি করে ঘরের কাজ ধরবো আগুনে আমার সব স্বপ্ন পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। আমাদের আর কিছুই বাকী রইলো না এখন আমরা খোলা আকাশের নিচে থাকতে হবে।

সাজেক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান অতুলাল চাকমা আগুনের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন- পরিবারটি পথে বসে গেছে, সবমিলিয়ে প্রায় আড়াই লাখ টাকা ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। সরকারি সহায়তা না পেলে পরিবারটি আর ঘুরে দাড়াতে পারবে না।

এদিকে বাঘাইছড়ি উপজেলা নির্বাহী অফিসার রুমানা আক্তার আগুনের ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করে পরিবারটির পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।