ঢাকা ০২:০৫ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ৩ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সাহস লাইব্রেরিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালন

শুক্রবার (১৭ মার্চ, ২০২৩ বিকেল ৪ টায়) বরুড়া উপজেলার ঝলম ইউনিয়নের সিংগুরে সাহস লাইব্রেরিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, সাহস এর প্রধান সমন্বয়কারী ও লাইব্রেরির সাধারণ সম্পাদক সবুর বাদশা। উপস্থিত ছিলেন ছোট তুলাগাঁও মহিলা কলেজের প্রভাষক রানা শীল ও মোঃ ইব্রাহিম হোসেন। অনুষ্ঠানে শেখ মুজিবুর রহমান এর অসমাপ্ত আত্মজীবনী, আলী ইমাম এর ছোটদের বঙ্গবন্ধু ও জীবন বৃত্তান্ত, ড. সুনীল কান্তি দে র বঙ্গবন্ধুর অপ্রকাশিত চিঠিপত্র র উপর আলোচনা হয়। বক্তারা বলেন – শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ গোপালগঞ্জ এর টুঙ্গিপাড়া য় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছোটবেলা থেকেই ছিলেন দুরন্ত স্বভাবের, মায়াভরা ছিলো অন্তর। তিনি ছিলেন অদম্য সাহসী একজন মানুষ তাঁর প্রতিবাদের ভাষা, দৃঢ় কন্ঠ, সরলতা ও সততার মাধ্যমে লাখো মানুষের অন্তরে নিজের স্থান করে নেন। তিনি ৭ মার্চের ভাষণে বলেছিলেন এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। যে ভাষণ শুনে বীর বাঙালিরা উদ্বুদ্ধ হয়। বীর মুক্তিযোদ্ধারা
যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেন। অত্যন্ত দুঃখের বিষয় দেশ স্বাধীন হওয়ার কয়েক বছর পর ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট আততায়ীর হাতে সপরিবারে নিহত হন। বক্তারা শিশুদের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের চেতানাকে উজ্জীবিত করার লক্ষে দেশপ্রেম জাগিয়ে তোলার বিষয়টি অধিকতর গুরুত্ব দেন।
বক্তারা বই পড়া ও সাংস্কৃতিক চর্চার মাধ্যমে সমাজের সকল কুসংস্কার দূর করার কথা উল্লেখ করেন। অনুষ্ঠানে ছড়া কবিতা পাঠ করে ফাইজা, মোহাম্মদ গাজী৷ মারিয়া, আবদুল্লাহ ছোটন, সীমান্ত প্রমুখ। সঞ্চালনা করে পিংকী।
একটি আনন্দঘন সময়ের মধ্যদিয়ে সমাপ্ত হয় জাতীয় শিশু দিবস।

আপলোডকারীর তথ্য

জনপ্রিয় সংবাদ

সাহস লাইব্রেরিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালন

আপডেট সময় ০৩:৫২:৫৫ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৭ মার্চ ২০২৩

শুক্রবার (১৭ মার্চ, ২০২৩ বিকেল ৪ টায়) বরুড়া উপজেলার ঝলম ইউনিয়নের সিংগুরে সাহস লাইব্রেরিতে বঙ্গবন্ধুর জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন, সাহস এর প্রধান সমন্বয়কারী ও লাইব্রেরির সাধারণ সম্পাদক সবুর বাদশা। উপস্থিত ছিলেন ছোট তুলাগাঁও মহিলা কলেজের প্রভাষক রানা শীল ও মোঃ ইব্রাহিম হোসেন। অনুষ্ঠানে শেখ মুজিবুর রহমান এর অসমাপ্ত আত্মজীবনী, আলী ইমাম এর ছোটদের বঙ্গবন্ধু ও জীবন বৃত্তান্ত, ড. সুনীল কান্তি দে র বঙ্গবন্ধুর অপ্রকাশিত চিঠিপত্র র উপর আলোচনা হয়। বক্তারা বলেন – শেখ মুজিবুর রহমান ১৯২০ সালের ১৭ মার্চ গোপালগঞ্জ এর টুঙ্গিপাড়া য় জন্মগ্রহণ করেন। তিনি ছোটবেলা থেকেই ছিলেন দুরন্ত স্বভাবের, মায়াভরা ছিলো অন্তর। তিনি ছিলেন অদম্য সাহসী একজন মানুষ তাঁর প্রতিবাদের ভাষা, দৃঢ় কন্ঠ, সরলতা ও সততার মাধ্যমে লাখো মানুষের অন্তরে নিজের স্থান করে নেন। তিনি ৭ মার্চের ভাষণে বলেছিলেন এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম। যে ভাষণ শুনে বীর বাঙালিরা উদ্বুদ্ধ হয়। বীর মুক্তিযোদ্ধারা
যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেন। অত্যন্ত দুঃখের বিষয় দেশ স্বাধীন হওয়ার কয়েক বছর পর ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট আততায়ীর হাতে সপরিবারে নিহত হন। বক্তারা শিশুদের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের চেতানাকে উজ্জীবিত করার লক্ষে দেশপ্রেম জাগিয়ে তোলার বিষয়টি অধিকতর গুরুত্ব দেন।
বক্তারা বই পড়া ও সাংস্কৃতিক চর্চার মাধ্যমে সমাজের সকল কুসংস্কার দূর করার কথা উল্লেখ করেন। অনুষ্ঠানে ছড়া কবিতা পাঠ করে ফাইজা, মোহাম্মদ গাজী৷ মারিয়া, আবদুল্লাহ ছোটন, সীমান্ত প্রমুখ। সঞ্চালনা করে পিংকী।
একটি আনন্দঘন সময়ের মধ্যদিয়ে সমাপ্ত হয় জাতীয় শিশু দিবস।