সিলেটেে লকডাউন মেনে চলতে সাধারণ মানুষকে উদ্ভুদ্ধ করেছেন প্রশাসন

তোফায়েল আহমদ, স্টাফ রিপোর্টার, সিলেটঃ বিশ্বজুড়ে করোনা ভাইরাস কোভিড-১৯ মহামারী মোকাবেলায় তৃতীয় বারের মতো ১৯ দফা কর্মসূচী ঘোষনার মধ্যদিয়ে বাংলাদেশে লকডাউন ঘোষনা করা হয়েছে। কর্মসূচি পালনের লক্ষ্যে দেশের পুলিশ, বিজিবি, সেনাবাহিনী মাঠে সর্বদা নিয়োজিত থেকে কঠোর ভাবে লকডাউন পালনে মানুষকে উদ্ভুদ্ধ করেছেন। সিলেটের কাজিরবাজার, জিন্দাবাজার, আম্বরখানা, টিলাগড়, মেজরটিলা, শাহপরান এলাকা ঘুরে দেখা যায় মানুষ রাস্তায় বের হয়নাই প্রায় রাস্তা ফাঁকা ছিল তবে আম্বরখানা এলাকায় কিছু রিক্সা চলাচল লক্ষ্য করা যায়। সিলেট শহরের মেজরটিলায় সকালে কিছু অটোরিক্সা দেখা গেলেও দুপরে আবার সব খালি হয়ে যায়। সকল দোকানপাঠ সকালে বন্ধ দেখা গেলেও বিকাল বেলা ৫টার দিকে প্রায় দোকান খোলা দেখা যায়। সিলেট থেকে জনপ্রিয় দৈনিক মুক্তির লড়াই পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার তোফায়েল আহমদ একজন শিক্ষক আব্দুল বারী চৌধুরীর সাথে কথা বললে উনি বলেন সাংবাদিক সাহেব আমরা শাহপরান,মেজরটিলা এলাকায় প্রায় সময় খরছ করি কিন্তু শাহপরান এলাকায় কিছু দেকানদার আছেন যারা লকডাউনের দোহাই দিয়ে যার যা ইচ্ছামত পণ্যের দাম রাখে তাদের মধ্যে মেজরটিলা মসজিদ মার্কেটের একটি ও শাহপরান সোনালীব্যাংকের নিচের কয়েকটা দোকানে কোন মূল্য তালিকা নেই, তাদের মুখদিয়ে যা আসে তাই মূল্য আর লকডাউনের সময়ে তো আর কথাই নাই। এ বিষয়গুলো প্রশাসনের নজরে আসা দরকার বলে মনে করেন এই শিক্ষক। তাই লকডাউনের নামে মানুষকে হয়রানী করা বন্ধ করা হোক। আর দেশের মানুষ স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে লকডাউন পালনে এগিয়ে আসার আহবান জানান প্রশাসনের দায়িত্বরত পুলিশ,বিজিবি,আর সেনাবাহিনীর অফিসাররা। মাস্ক পরিধান করুন, সচেন হোন, করোনামুক্ত বাংলাদেশ চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *