বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

সুষ্ঠ নির্বাচনের স্বার্থে নির্বাচনকালীন সরকারের বিকল্প নাই..আলোচনা সভায় বক্তারা

Muktir Lorai / ১৯ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় বুধবার, ২২ জুন, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টারঃ বুধবার ২২ জুন সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের (৩য় তলা মওলানা আকরম খাঁ হলে ‘নির্বাচনকালীন নির্দলীয় সরকারের প্রয়োজনীয়তা নাগরিক ভাবনা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ভয়েস ফর ডেমোক্রেসি অ্যান্ড ভোটার রাইটস এর সদস্য সচিব হুমায়ুন কবির বেপারীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নাগরিক ঐক্যের সভাপতি মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, সুষ্ঠ অবাধ নির্বাচনের জন্য নির্দলীয় সরকারের বিকল্প নাই। তিনি বলেন নির্দলীয় বুঝি না, নির্বাচনকালীন এমন একটি সরকার থাকবে যেই সরকার স্বাধীনভাবে সকল জায়গায় ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারবে। শুধু তাই নয়, অতিতেও ফখরুদ্দিন-মঈনুদ্দিন সরকার ৩ মাসের কথা বলে দুই বছর সময় ক্ষেপন করে একটি নতজানু নির্বাচন কমিশনের মাধ্যমে নির্বাচন করেছিল। আগামীতে এইরকম কোন ঘটনা যেন না ঘটে সেই জন্য নির্বাচনকালীন গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিদেরকে দিয়ে নির্বাচনকালীন সরকার করতে হবে। তাহলেই একটি অবাধ ও সুষ্ঠ নির্বাচন করতে সক্ষম হবে। তিনি আরো বলেন, সিলেট-সুনামগঞ্জ বন্যা কবলিত এলাকার মানুষের সাথে সরকার যে রসিকতা শুরু করেছে এটা খুবই দুঃখ জনক। যেখানে কোটি মানুষের উপরে মানুষ বন্যা অবহেলিত সেখানে কিভাবে সরকার ৬০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দিতে পারে। এর থেকে বেশি টাকা তো বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক সংগঠন দিচ্ছে। সরকার পদ্মা সেতু উদ্বোধনের নামে যেভাবে ঢাকঢোল পিটিয়ে ভারতীয় শিল্পীদের দেশে এনে নাচ-গানের চিন্তা-ভাবনা করছে এগুলোর জন্য একদিন জবাবদিহিতা করতে হবে। অবিলম্বে মানুষের মুখের ভাষা বুঝার চেষ্টা করুন, অন্যথায় পরিণতি খুব ভয়াবহতা হবে।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান এডভোকেট আহমেদ আজম খান, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাছের মোহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, জাতীয়তাবাদী তাঁতী দল, কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক ড. কাজী মনিরুজ্জামান মনির, শাজাহান মিয়া সম্রাট, সাংস্কৃতিক দলের সহ-সভাপতি তাজুল ইসলাম সেলিম, বাকের হোসেন, মৎসজীবী দলের কেন্দ্রীয় সদস্য ইসমাইল হোসেন সিরাজী প্রমুখ।


এই বিভাগের আরো সংবাদ
Translate »
Translate »