• সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ১২:১১ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
শিরোনাম
পাচার বাণিজ্যে মতানৈক্যের জেরে সীমান্তে অপহৃত নাবালক ৬ চিকিৎসক নিয়ে ধুঁকে ধুঁকে চলছে বরগুনা সরকারি হাসপাতাল সামাজিক দূরত্ব ভুলে রাসিক মেয়র লিটনের খাদ্য সামগ্রী বিতরন সলঙ্গায় ১০কেজি গাঁজাসহ মাদক ব‍্যবসায়ী আটক বরুড়ায় ১৫০ অক্সিজেন সিলিন্ডার দিলেন এসকিউ গ্রুপের শফিউদ্দিন শামীম বাবার মৃত্যুর একদিন পর মাকেও হারালেন সহকারী এটর্নি জেনারেল এড. ফারুক সাতক্ষীরা শহরের বাগানবাড়িতে ভূমিহীনদের পুর্নবাসনের দাবিতে উঠান বৈঠক আগামী দুই সপ্তাহের মধ্যে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে আনতে হবে: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মুরাদনগরে দিনব্যাপী ডিউটি অফিসারের ভূমিকায় এএসপি রূপগঞ্জে ওয়ারেন্টভুক্ত চার পলাতক আসামি গ্রেফতার
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

লাকসামের সাবেক পৌর চেয়ারম্যান মোস্তফা কামাল খাঁনের ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

news / ৭১ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার, ১০ জুন, ২০২১

মাসুদ পারভেজ রনি, লাকসাম: লাকসামে মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, সাবেক পৌরসভার চেয়ারম্যান, বীরমুক্তিযোদ্ধা মরহুম মোস্তফা কামাল খাঁনের ১৪তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ (১০জুন) বৃহস্পতিবার। তিনি ২০০৭ সালের এই দিনে ৬৭বছর বয়সে ইন্তেকাল করেন। এর আগে মরহুম মোস্তফা কামাল খাঁন লাকসাম পৌরসভার চেয়ারম্যান হিসেবে ৯বছরের অধিক সময় দায়িত্ব পালন করেন। পাশাপাশি তিনি মুক্তিযুদ্ধের নেতৃত্ব দানকারী আওয়ামীলীগের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বও পালন করেন। মরহুম মোস্তফা কামাল খাঁনের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে কবর জিয়ারত, দোয়া-মিলাদ সহ বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করা হবে।
মরহুম মোস্তফা কামাল খাঁন ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক হিসাবে তিনি সাবেক বৃহত্তর লাকসাম অঞ্চলের মনোহরগঞ্জের বাদুয়াড়া ক্যাম্পের গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। পাশাপাশি লাকসাম জংশনে আরএনবি অফিসের কন্ট্রোল রুম থেকে লাকসামের মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক মরহুম আবদুল আউয়াল, নজির আহমেদ ভূঁইয়া, জালাল আহমেদ, হাজী আলতাফ আলী, মুক্তিযোদ্ধা প্লাটুন কমান্ডার আবুল হোসেন ননীসহ পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীদের প্রতিরোধ করেন।
সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ মরহুম মোস্তফা কামাল খাঁন তৎকালীন লাকসামকে জেলা বাস্তবায়ন দাবিও জানিয়েছিলেন। লাকসাম পৌরসভার নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন করতে লাকসাম এসেছিলেন প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিল্লুর রহমান (সাবেক স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী)। মোস্তফা কামাল খান লাকসামকে জেলা বাস্তবায়নের দাবি জানিয়ে জিল্লুর রহমানকে স্মারকলিপি দিয়েছিলেন। বক্তব্যে জিল্লুর রহমান ভবিষ্যত যে কোন সময়ে লাকসামকে জেলা বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়েছিলেন। ১৯৯১ সালের নির্বাচন পূর্ববর্তী সময়ে লাকসামে এসেছিলেন বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নির্বাচনী জনসভায় তখনও লাকসামকে জেলা বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছিল তিনি। বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও লাকসামকে জেলা বাস্তবায়নের আশ্বাস দিয়েছিলেন।
মরহুম মোস্তফা কামাল খাঁন মৃত্যুর দীর্ঘ বছরেও সবার হৃদয়ে একজন ভালো মানুষ হিসেবে পরিচিত আছেন। তার কাছে কেউ বিচার নিয়ে আসলে থানায় আর মামলা করতে হতো না। তিনি সবার হৃদয়ে একজন ন্যায় বিচারক হিসেবে প্রতিষ্ঠিত ও পরিচিত ছিলেন। তিনি সবার সব সমস্যার সমাধান করে দিতেন বলেই সবার কাছে প্রিয় ছিলেন। রাজনৈতিক, সামাজিক অঙ্গনেও তাঁর অবদান ছিল অপরিসীম। এছাড়াও অনেক গুণের অধিকারী ছিলেন তিনি। রাজনৈতিক ও সামাজিক অঙ্গনে তিনি ব্যাপক প্রশংসিত ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর আদর্শে আওয়ামীলীগের রাজনীতিতে তিনি ছিলেন এক নিবেদিত প্রাণ।


এই বিভাগের আরো সংবাদ