করোনায় লক ডাউন স্থায়ী সমাধান নয় : রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে হবে

মোঃ ইলিয়াছ আহমদ, বরুড়া: করোনা আমাদের দেশে প্রতি নিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। লকডাউন দিয়ে করোনা প্রতিরোধে সাময়িক কিছু সুবিধা পাওয়া যায়। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করা জরুরী। আমাদের দেশে জরুরী হচ্ছে মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানো। সরকার এ বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করতে কাজ করা জরুরী মনে করি।
করোনার কারনে মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়ছে। কেউ আপনজন হারাচ্ছে। কেউ করোনার ভয়ে আতংকে দিনানিপাত করছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে শ্বাসকষ্টের যন্ত্রণা ভয়ানক। আমাদের দেশে যে হারে করোনায় আক্রান্ত হচ্ছে সে হারে হসপিটালে সিট নেই। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ। কয়েকদিন পর দেখা যাবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আইসোলেশন সিট হচ্ছে।
আমার বক্তব্য হলো রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি হলে মানুষ ঘুরে দাঁড়াবে। যেহেতু করোনাভাইরাস থেকে যাওয়ার সম্ভাবনা বেশী সেহেতু রোগ প্রতিরোধের বিকল্প নেই।

রোগ প্রতিরোধ করতে হলে আমাদের করনীয় হলোঃ-

কার্বোহাইট কম খেতে হবে। অর্থ্যা ভাত রুটি কম খেতে হবে। সবুজ শাক সবজি বেশী খেতে হবে। হলুদ নারকেল তৈল মিশিয়ে খেতে হবে। সকাল বেলায় রুদ্রে হাটতে হবে।ব্যায়াম করতে হবে। কাঁচা রৌশন খেতে হবে। রং চা আদা মসল্লা দিয়ে খেতে হবে। কাগুজি লবন গরম পানি দিয়ে খেতে হবে। লিকুইড খাবার বেশী খেতে হবে।আম বেশী করে খেতে হবে। গরম পানি খেতে হবে।সকালের সূর্যের তাপ নিতে হবে। দুধ ডিম খাবেন।অন্তত দৈনিক একটি ডিম খাবেন।
ভিটামিন ডি ভিটামিন সি ভিটামিন জিংক বেশী বেশী খাবেন।বেশী করে ঘুমাবেন। শ্বাস নাকে দিয়ে নিয়ে বুক ফুলিয়ে মুখে ছাড়বেন। আবার ও ধম বন্ধ করে ধম ছাড়বেন। হালকা লবন খাবেন। মনে রাখবেন করোনাকে ভয় করা যাবেনা। জ্বর সর্দি,কাশ শ্বাসকষ্ট গলা ব্যাথা দেখা দিলে নমুনা পরীক্ষা করে নিবেন। যে কোন সরকারি হসপিটাল গেলে পরীক্ষা করতে পারবেন। করোনা হয়ে গেলে ঘরে আলাদা একা থাকবেন। যার করোনা হবে পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা তাকে সহোযোগিতা করবেন। সাহস না হারিয়ে মনোবল রাখতে হবে।
করোনাকে জয় করতে হবে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে করোনাকে জয় করা যায়। গ্রামের মানুষ আরো সর্তক হতে হবে। টিকা নিলে ও মুখে মাস্ক পড়তে হবে। সামাজিক দুরুত্ব বজায় চলতে হবে। ঘন ঘন সাবান দিয়ে হাত ধুয়ে ফেলতে হবে। করোনা একটি ভাইরাস। একে স্বাভাবিক ভাবে মেনে নিতে হবে। পর্যায়ক্রমে সকলে টিকা পাবে। ধৈর্য সহকারে মানসিক শক্তি নিয়ে আমাদেরকে এগিয়ে যেতে হবে। রোগ প্রতিরোধে কোন বিকল্প নেই। সরকারকে অনুরোধ করবো মানুষকে সচেতন করুন। সকল টেলিভিশনে প্রিন্ট মিডিয়ায় বিজ্ঞাপন দিয়ে মানুষকে সচেতন করুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *