• শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১২ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
শিরোনাম
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

মেহেরপুরে হত্যার মামলায় রায়ে স্ত্রীসহ ৪ জনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড

Muktir Lorai / ৫৬ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার, ২৬ আগস্ট, ২০২১

মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধিঃ মেহেরপুর সদর উপজেলার বলিয়ারপুর গ্রামের আলম হত্যার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আলমের স্ত্রী সাফিয়া খাতুন, খোকন, মুকুল ও আসাদুল নামের ৪ ব্যক্তিকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত।

সে সাথে প্রত্যেকের ১০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে মেহরপুরের অতিরিক্ত দায়রা জজ আদালতের বিচারক কুমার বিশ্বাস এ রায় দেন। সাজাপ্রাপ্ত আলমের স্ত্রী সাফিয়া খাতুন মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার হিজলবাড়িয়া গ্রামের আছান আলীর মেয়ে, খোকন চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার জয়রামপুর গ্রামের আসির উদ্দিন মন্ডলের ছেলে, মুকুল চুয়াডাঙ্গার শংকর চন্দ্রপুর গ্রামের টেঙ্গর ওরফে হোসেন আলীর ছেলে এবং আসাদুল চুয়াডাঙ্গার আলমডাঙ্গা উপজেলার ফরিদপুর গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা গেছে ২০০৭ সালের ৩১ জুলাই মেহেরপুর সদর উপজেলার পিরোজপুর ইউনিয়নের বলিয়ারপুর গ্রামের জনৈক আসামের পাটক্ষেত সংলগ্ন রাস্তার উপর অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করা হয়। ওই সময় মৃত ব্যক্তি আলমের দুই হাত কাঁচা পাট দিয়ে বাঁধা ছিল, গলায়, ঘাড়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো অবস্থায় পড়েছিল। খবর পেয়ে মেহেরপুর থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং অজ্ঞাত ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে মেহেরপুর মর্গে প্রেরণ করেন। পরে তার পরিচয় পাওয়া যায়। এবং তিনি বলিয়ারপুর গ্রামের হাতেম আলীর ছেলে আলম বলে জানা যায়।


এই বিভাগের আরো সংবাদ