• শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৪৬ অপরাহ্ন
  • Bengali Bengali English English
বিজ্ঞাপন
মুক্তিকামী জনতার দৈনিক 'মুক্তির লড়াই' পত্রিকার জন্য জরুরী ভিত্তিতে দেশের চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা, সিলেট, বরিশাল, রংপুর ও ময়মনসিংহ বিভাগে একজন করে ব্যুরো চীফ, প্রতি জেলা ও উপজেলার একজন করে প্রতিনিধি নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আবেদন করুন। যোগাযোগের ঠিকানাঃ কামরুজ্জামান জনি- সম্পাদক, মুক্তির লড়াই। ইমেইলঃ jobmuktirlorai@gmail.com । ধন্যবাদ ।

বাকীতে খাবার না দেয়ায় বাপ-বেটা ভাংচুর করলো হোটেলঃ আটক-১

Muktir Lorai / ২৯ বার ভিউ করা হয়েছে
বাংলাদেশ সময় রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধিঃ চুয়াডাঙ্গায় পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে রাম দা দিয়ে হোটেলের শার্টারে কোপ মারে এবং হোটেল ভাংচুর করে। শনিবার ০৪ সেপ্টেম্বর রাত ১১টার দিকে চুয়াডাঙ্গা শহরের মুক্তিপাড়ায় সাতভাই পুকুরের নিকট হোটেল সুন্দরবনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় হামলাকারী চুয়াডাঙ্গা শহরের মুক্তিপাড়ার ইসমাইল খলিল আদরকে ধারালো অস্ত্রসহ আটক করেছে পুলিশ। সে ওই এলাকার সাঈদ আলম মানুর ছেলে।
সুন্দরবন হোটেলের মালিক চুয়াডাঙ্গা জেলা শহরের মুক্তিপাড়ার রকিবুল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, একই এলাকার সাঈদ আলম মানু ও তার ছেলে ইসমাইল খলিল আদর রমজান মাসে আমার হোটেল থেকে ২৪ হাজার ১২০ টাকার খাবার নেয় বাকীতে। পূর্বের টাকা পরিশোধ না করে শনিবার রাতে আবার তারা আমার হোটেলে খাবার নিতে আসে। আমি খাবার না দিলে তারা বাড়ীতে চলে যায়। আমিও হোটেল বন্ধ করে বাড়ী চলে যায়। মানু ও তার ছেলে বাড়ী থেকে ধারালো অস্ত্র রাম দা নিয়ে এসে আমার হোটেলের সার্টারে কোপ মারে এবং হোটেল ভাংচুর করে।
এদিকে, খবর পেয়ে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে যায় এবং ধারালো অস্ত্র রাম দাসহ আদরকে আটক করে।
চুয়াডাঙ্গা সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবু জিহাদ ফকরুল আলম খান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, খবর পাওয়ার সাথে সাথে পুলিশের একটি টিম সেখানে পাঠানো হয়। ঘটনার সাথে জড়িত ইসমাইল খলিল আদরকে ধারালো অস্ত্রসহ আটক করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


এই বিভাগের আরো সংবাদ