কোটচাঁদপুরে ইউপি চেয়ারম্যানের ওপর হামলায় অভিযোগে আটক ২

শাহিনুর রহমান পিন্টু;ঝিনাইদহ প্রতিনিধি : দুর্বৃত্তদের মারপিটে গুরুতর আহতহয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ঝিনাইদহর কোটচাঁদপুর উপজেলার এক ইউনিয়ন চেয়ারম্যান। সোমবার ঘটনাটি ঘটেছে স্থানীয় মেইন বাসস্ট্যান্ডে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ দুইজন গ্রেফতার করেছেন বলেজানিয়েছেন।
ভুক্তভোগী চেয়ারম্যান আব্দুলমতিন বলেন, মঙ্গলবার দুপুর ১২ টায় আমার ছেলে আলামিন কে মারপিট করেন লিমন,রাহুল,আলমগীর প্রদীপসহ ১০/১২ জন। এরপর আমি ছেলে কে নিয়ে থানায় যাচ্ছিলাম। এ সময় দেখি লিমন এক পুলিশ অফিসারের সঙ্গে স্ট্যান্ডে বসে আছে। আমি ওই অফিসারকে ছেলেকে কে মেরেছে জিজ্ঞাসা করতেই,অকথ্য ভাষায় গালাগালি করতে থাকে লিমন। আমি এরপ্রতিবাদ করায় আমাকেও মারতে শুরুকরে। এ সময় পুলিশ তাদের কে থামাতে চেষ্টা করেন। এবং ঘটনাস্থল থেকে তাদের দুইজন আটক করে নিয়ে যান। এরপর তারা আমাকে একা পেয়ে আবারও মারতে থাকে। একপর্যায় আমিপড়ে গেলে তারা আমাকে হাতুড়ি,বাশদিয়ে আঘাত করে। এ সময় স্থানীয়রা ছুটে এসে আসলে তারা চলে যান। পরে উপজেলা চেয়ারম্যানের গাড়িতে করে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন। মতিন আরো জানান,এর আগেও ওই আমাকে হেনস্তা করেছেন অনেকবার। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মরত চিকিৎসক শিরিন শারমিন বলেন, চেয়ারম্যানের মাথায় ও শরীরে ৭/৮ জায়গায় কাটা,ছিড়ার দাগ রয়েছে। তবে মাথায় আঘাত লেগেছ। এটা বাইরে থেকে বোঝা যাবেনা। রোগীর উন্নত চিকিৎসার জন্য যশোরে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে কথাহয় উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শরিফুননেসা মিকির সঙ্গে,তিনি বলেন চেয়ারম্যান মার খেয়ে বাড়ি চলে গিয়ে ছিল। খবর শুনে আমি গিয়ে তাকে বাড়ি থেকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসি। এটা একটা জগন্যতম কাজ। সে একটা জনপ্রতিনিধি তাকে এভাবে মারবে কেন। চেয়ারম্যানের মারপিটের প্রসঙ্গে এলাঙ্গী ইউনিয়নের চেয়াম্যান মিজানুর রহমান খান বলেন,এটা একটা দুঃখজনক ঘটনা। সে জনপ্রতিনিধি তাকে মারবে কেন। আমি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। কোটচাঁদপুর থানার (ভারপ্রাপ্ত) কর্মকর্তা মঈনউদ্দিনের সঙ্গে এই বিষয়ে কথা বললে তিনিবলেন,এঘটনায় মামলা হয়েছে। এ মামলার এজাহারনামীয় এক নম্বর আসামী লিমন ও আলমগীরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতার করা হবে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *