বৌধ্য পূর্ণিমা উপলক্ষে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

মুসলিম-হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান সম্প্রতি পরিষদের আহ্বায়ক বঙ্গদীপ এম এ ভাসানীর সভাপতিত্বে দলীয় কার্যালয়ে বৌদ্ধ ধর্মালম্বিদের বৌধ্য পূর্ণিমা উপলক্ষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সভাপতির বক্তব্যে বঙ্গদীপ এম এ ভাসানী বলেন, আজ বিশ্বে ধর্মীয় সা¤্রাজ্যবাদ কায়েমের অপচেষ্টা চলছে। আমরা একসময় রাষ্ট্রীয় সা¤্রাজ্যবাদ দেখেছি, যেটা ছিল উপনিবেশবাদ। আজ উপনিবেশবাদের অস্তিত্ব নেই। আজকে নতুন করে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে অর্থনৈতিক ও ধর্মীয় সা¤্রাজ্যবাদ। তিনি আরো বলেন, আজ ধর্মীয় সা¤্রাজ্যবাদ ও উগ্র জাতীয়তাবাদের কারণে প্রত্যেক দেশের সংখ্যালঘুরা নির্যাতিত এবং নিপীড়িত হচ্ছে। এটা আজকের অত্যাধুনিক যুগে কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। কারণ উপনিবেশবাদে কোন সংখ্যালঘুদের রাষ্ট্রহীন করার নজীর ছিল না। আজকে নতুন করে বিশ্বব্যাপী যেটা দেখা দিয়েছে সংখ্যালুঘদের অধিকাংশ রাষ্ট্রহীন করার অপচেষ্টা চলছে। আমরা তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।
বক্তব্য তিনি আরো বলেন, যার নগ্ন প্রমাণ ইজরাইল কর্তৃক ফিলিস্তিনবাসীদের রাষ্ট্রহীন করে বাস্তচ্যুত করছে। পাশাপাশি মায়ানমারে রোহিঙ্গাদেরকে জাতিনিধন করে মায়ানমার থেকে বিতাড়িত করে বাংলাদেশে পাঠিয়ে দিয়েছে। খোদ ভারতে বিশেষ করে আসামে এনআরসি নামে বাঙালিদের রাষ্ট্রহীন করে বাঙাল খেদাও নামে রাষ্ট্রহীন করতে চায়। কাজেই মুসলিম-হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিষ্টান সম্প্রতি পরিষদ গঠন করি। সর্বধর্মীয় সম্প্রতি সৃষ্টি করতে চাই। যাতে ধর্মের নামে ধর্মীয় গোড়ামি ও বাড়াবাড়ি না হয়। পাশাপাশি আমার তৈরী জন্ম অধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা এই দুটির সমন্বয়ে আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক শান্তি, স্থিতি, বন্ধুত্ব ও ভাতৃত্ব সৃষ্টি হবে। এ ব্যাপারে বিশ্বব্যাপী জনমত তৈরী করার আহ্বান জানাচ্ছি। পরিশেষে বৌদ্ধ ধর্মালম্বিদের বৌদ্ধ পূর্ণিমার ধর্মীয় সম্প্রীতি ও সংহতি জানাচ্ছি।

আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কনজারভেটিভ পার্টির সভাপতি আনিসুর রহমান দেশ, লোকশক্তি পার্টির সভাপতি শাইকুল আলম টিটু ও আমানুল্লাহ সিকদার প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *