মোরেলগঞ্জে বাচতে চায় এক অসহায় মা

সাব্বির হোসেন, শরনখোলা প্রতিনিধি বাগেরহাটঃ বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলার পূর্ব সরালিয়া গ্রামের ৪নং ওয়ার্ডের আলতাফ হাওলাদারের স্ত্রী নাছিমা বেগম (৩৯) গলায় টনসিল, পেটে টিউমারসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর প্রহর গুনছে।

হত দরিদ্র পরিবারে বসবাস করায় নাই তার চিকিৎসার খরচ। অনেক কস্টে কিছু টাকা জোগাড় করে স্বামী আলতাফ হাওলাদার খুলনা আদদিন হসপিটালে অনেক পরিক্ষা নিরীক্ষা করার পর জানতে পারে নাছিমা বেগমের চারটি (৪) অপারেশন করতে হবে।যাতে আশি হাজার (৮০,০০০) টাকার প্রয়োজন। নাছিমা বেগমের তিনটি মেয়ে নাই কোনো ছেলে সন্তান। স্বামী আলতাফ হাওলাদার পেশায় কৃষক হওয়ায় তার চিকিৎসা করানোর মতো অবস্থা নাই।বিভিন্ন মানুষের কাছ থেকে ধার দেনা করে যতটুকু সম্ভব চেষ্টা করেছে এখন আর কিছু করা সম্ভব হচ্ছে না।তাই হসপিটালের খরচ চালাতে না পেরে রোগীকে বাড়িতে রাখছে। ডাক্তার বলছে খুব তাড়াতাড়ি অপারেশন করাতে।

মেয়ে তাজরিনা কান্নাজড়িত কন্ঠে বলেন আমার মা মারা গেলে আমি বাঁঁচবো না।আমরা গরিব হওয়ায় কি আমাদের বাচার অধিকার নেই।আমার কোনো ভাই নাই যদি ভাই থাকতো তাহলে হয়তো আমাদের এতো কস্ট হতো না।আমার মায়ের চিকিৎসার টাকার অভাব হতো না।তাই তিনি সমাজের বিত্তশালী এবং সামর্থবানদের নিকট আর্থিক সাহায্য চেয়েছেন। অসহায় নাছিমা বেগমকে সাহায্য পাঠাতে বিকাশ নাম্বার 01862697193 (পারসোনাল)।

দানে সম্পদ কমে না বরং বাড়ে সকলের কাছে অনুরোধ এই অসহায় মায়ের দিকে একটু এগিয়ে আসুন। আপনার ৫০/১০০ টাকার বিনিময়ে বেচে যেতে পারে একটি মায়ের প্রান।আপনার আমার সকলের বাড়িতে মা আছে আবার কারো কারো মা নেই। যার মা নেই সেই বুঝে একমাত্র মায়ের অভাব। তাই সকলের নিকট আহবান জানাই এই পরিবারের দিকে তাকিয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *