যমুনা ব্যাংকের আস্থা ও বিশ্বাসের একুশ বছর

ডেস্ক রিপোর্টঃ হাজার হাজার শুভানুধ্যায়ী, গ্রাহকদের সেবা নিশ্চিত করে যমুনা ব্যাংক পার করেছে ২০ টি বছর।
৩ জুন ২০০০ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে সুনামের সাথে পাড়ি দিয়েছে এতটা পথ। সারা দেশে ব্যাংকের রয়েছে ১৫০টি শাখা এবং ৩০ টি উপশাখা। বরুড়া উপজেলার যমুনা ব্যাংক কার্যক্রম চলার পাশাপাশি আড্ডা ইউনিয়নের ছোট তুলাগাঁও এ চালু হয়েছে আরেকটি উপশাখা। উভয় শাখায় রয়েছে অনলাইন কার্যক্রম এর সকল সুবিধা সহ এটিএম বুথ। বুথ থেকে গ্রাহকরা ২৪ ঘন্টা সেবা পাচ্ছেন। আনন্দ সংবাদ হলো বরুড়ার এই ব্যাংক এ বছর সহ মোট ৫ বার বিভাগীয় পর্যায়ের চেয়ারম্যান এওয়ার্ড প্রাপ্ত হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে।
একঝাঁক উদ্যোমী, পরিশ্রমী, সদালাপী ও বন্ধুবৎসল কর্মীদের আন্তরিক প্রচেষ্টা ও সেবায় এই প্রতিষ্ঠান এগিয়ে চলেছে দূরন্ত গতিতে। দীর্ঘযাত্রা পথ পরিক্রমা প্রসংগে যমুনা ব্যাংক এর বরুড়া শাখার ব্যাবস্থাপক শামসুল আলম ভূঁইয়া বলেন, এ অর্জন আমাদের ব্যংকের সকল সহকর্মীদের আন্তরিক প্রচেষ্টার ফসল। তিনি সকল গ্রাহক সহ সকল শুভাকাঙ্ক্ষীদের ধন্যবাদ ও শুভকামনা জানান। তিান আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন যে, প্রতিটি সম্পর্ক ই আমাদের নতুন করে প্রেরণা দেয় আরো সমৃদ্ধ ভবিষ্যতের।
ছোট তুলাগাঁও উপশাখার ব্রাঞ্চ ইনচার্জ মোঃ আতাউর রহমান মজুমদার বলেন, সম্প্রতি আমাদের এই ব্রাঞ্চ চালু হলেও আমাদের সেবার মান ও আন্তরিকতা ভালো হওয়ায় গ্রাহকরা মুগ্ধ, যার ফলে প্রত্যাশার অধিক গ্রাহক বৃদ্ধি আমাদের আরো বেশি অনুপ্রেরণা দিয়েছে। তিঁনি উর্ধতন কতৃপক্ষ সহ সকল গ্রাহকদের শুভেচ্ছা ও কৃতজ্ঞতা জানান।
এই ক্ষুদ্র আয়োজনে উপস্থিত ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা আঃ করিম, শিক্ষানুরাগী মোঃ রফিকুল ইসলাম, বিদ্যোৎসাহী মোঃ আমিনুল ইসলাম মিন্টু, সমাজসেবক মোঃ রুহুল আমীন, শিক্ষক ফয়সুল ইসলাম মানিক (বিএসসি), ব্যাবসায়ী মোঃ নূরুল ইসলাম, রিপন, শিপন, দুলাল মিয়া, জসিমউদদীন, রুবেল, এনামুল হক সহ এলাকার গন্যমান্যব্যাক্তি।
এই আনন্দের দিনটি স্মরনীয় করে রাখতে ঢাকা সহ দেশের সকল শাখায়, দোয়া, কেককাটা ও মিস্টিমুখ করানোর মধ্যমে এই দিবসটি পালন করা হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *