হঠাৎ করে পিঁয়াজ ও আলুর দাম বৃদ্ধি ক্রেতাদের ক্ষোভ!

সাইফুল্লাহ নাসির, আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি: বরগুনার আমতলী উপজেলার বিভিন্ন বাজারগুলোতে এক সপ্তাহে ব্যবধানে পেঁয়াজের দাম কেজিতে ১৫ টাকা বৃদ্ধি পেয়েছে। সাথে আলুর দাম বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। এক শ্রেণীর অসাধু ব্যবসায়ীরা কোন কারন ছাড়াই পেঁয়াজ ও আলু মজুদ করে দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। হঠাৎ পেঁয়াজ ও আলুর মূল্য বৃদ্ধিতে সাধারণ ক্রেতারা ক্ষোভ প্রকাশ করছেন।
আজ (শুক্রবার) সরেজমিনে আমতলী পৌর শহরসহ উপজেলা সদরের বেশ কয়েকটি দোকান ঘুরে দেখাগেছে, গত সপ্তাহে দোকানদাররা যে পেঁয়াজ কেজি প্রতি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা দরে বিক্রি করেছে এক সপ্তাহের ব্যবধানে সে পেঁয়াজ ৫৫ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে। প্রতি কেজি আলু ১৫ টাকা থেকে বেড়ে ২২ টাকা হয়েছে। পেঁয়াজ ও আলু পাইকারি মূল্য বৃদ্ধির অযুহাতে খুচরা বাজারের ব্যবসায়ীরা বেশি দামে তা বিক্রি করছে বলে জানাগেছে। এতে সাধারণ ক্রেতাদের ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা গেছে।
ক্রেতা মোঃ শহিদুল ইসলাম জানান, গত সপ্তাহে বাজারে যে পেঁয়াজের প্রতি কেজি ৩৫ থেকে ৪০ টাকা দরে বিক্রি হয়েছে, সেই পেঁয়াজ আজ (শুক্রবার) ৫৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। পেঁয়াজের এমন দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় আমার মত অনেকেই দোকানদারদের কাছে ক্ষোভ প্রকাশ কতে দেখা গেছে। আবার অনেক ক্রেতা পেঁয়াজ না কিনেই বাসায় ফিরে গেছে।
আজ বিকেলে কথা হয় একে স্কুল চৌরাস্তায় একটি মুদি মনোহরদি দোকানের ক্রেতা গৃহবধূ কল্পনা বেগমের সাথে, তাকে সাংবাদিক পরিচয় দেওয়াতে তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, দেখেন এক সপ্তাহের ব্যবধানে দোকানদাররা হঠাৎ করে পেঁয়াজ ও আলুর বাড়িয়ে দিয়েছে। এক কেজি পেঁয়াজ ৫৫ টাকা ও আলু ২২ টাকা করে চাচ্ছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আসাদুজ্জামান মুঠোফোনে বলেন, আমিও শুনেছি বাজারে পেঁয়াজ ও আলুর দাম হঠাৎ করে ব্যবসায়ীরা বাড়িয়ে দিয়েছে। দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি না করতে ব্যবসায়ীদের ডেকে নির্দেশনা দেওয়া হবে। তারপরেও যদি কোন বিক্রেতা বেশি দামে নিত্যপণ্য বিক্রি করে তাদের বিরুদ্ধে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *